আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > আন্তর্জাতিক > সৌদি জোটের শর্ত মেনে নেবেনা কাতার

সৌদি জোটের শর্ত মেনে নেবেনা কাতার

lead_960

প্রতিচ্ছবি ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক:

মধ্যপ্রাচ্যের চলমান সংকট নিরসনের লক্ষ্যে সৌদি  জোটের দেওয়া ১৩ দফা শর্ত প্রত্যাখ্যান করেছে কাতার।

কাতারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ বিন আবদুল রহমান আল-থানি রোম সফরকালীন এই ঘোষণা দেন। তিনি জানান, এমন শর্ত মেনে নেওয়া সম্ভব নয় কারণ এতে সন্ত্রাস নির্মূল নয়, দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব বিলোপ হয়ে যাবে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, তার দেশ সংকট নিরসনে সংলাপের জন্য প্রস্তুত। কিন্তু শর্তগুলো গ্রহনযোগ্য হতে হবে।

আল থানি আরো বলেন, ‘আমরা বিশ্বাস করি, হুমকি দিয়ে বিশ্ব শাসন করা যায় না। বিশ্ব চলবে তার আপন আইন অনুযায়ী। এখানে বড়রা ছোট রাষ্ট্রকে হুমকি-ধামকির মধ্যে রাখবে, এটা মেনে নেওয়া যায় না।’

একই সঙ্গে সৌদি জোট কাতারকে কিছু শর্ত বেঁধে দেয় আবার এসব শর্ত পূরণের জন্য ১০ দিন সময় বেধে দেয়। রোববারই এর মেয়াদ শেষ হচ্ছে। তার ঠিক ২৪ ঘন্টা আগে কাতারের পক্ষ থেকে জানানো হয় এসব যুক্তিহীন শর্ত যা কিনা বাক স্বাধীনতা নষ্ট করে তা মেনে নেয়া হবেনা।

এদিকে, ১৩ শর্ত প্রত্যাখ্যানের পর সৌদি আরব কঠোর প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে। সৌদিআরবের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আদেল আল-জুবায়ের বলেছেন, ‘কাতার সন্ত্রাস ও চরমপন্থীর মদদদাতা। কাতার তার অঙ্গীকার ভঙ্গ করেছে। এবং তারা আবার প্রমাণ করলো তারাই আসলে সন্ত্রাসবাদের পেছনে কলকাঠি নাড়ছে। তারা যা করছে, তাতে ধৈর্য্যের সব বাঁধ ভেঙে গেছে।”

এর আগে সন্ত্রাসবাদে মদদ দেওয়ার অভিযোগে কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করেছে সৌদি আরব, মিশর, বাহরাইন ও সংযুক্ত আরব আমিরাত। দেশগুলোর অভিযোগ, কাতার মুসলিম ব্রাদারহুডসহ অন্যান্য সন্ত্রাসবাদী সংগঠনকে সমর্থন করছে। এরপর থেকেই মধ্যপ্রাচ্যের রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক অস্থিরতা সৃষ্টি হয়। এরপর থেকেই কুয়েতের নেতৃত্বে বিশ্ব নেতৃবৃন্দ কাতার সংকট নিরসনে কাজ করে যাচ্ছেন।

 

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে