আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > চট্টগ্রাম > বিদ্যুতের ভেল্কিবাজীতে অতিষ্ট চাঁদপুরবাসী

বিদ্যুতের ভেল্কিবাজীতে অতিষ্ট চাঁদপুরবাসী

চাঁদপুর শহরে বিদ্যুতের ভেল্কিবাজী ভোগান্তিতে এলাকাবাসী

রিয়াদ ফেরদৌস: টানা দুই দিনের ভয়াবহ লোডশেডিংয়ে চাঁদপুর শহরবাসী অতিষ্ট হয়ে উঠেছে। দিনভর বিদ্যুৎ আসা-যাওয়ায় শহরবাসীর স্বাভাবিক জীবনযাত্রা মারত্মকভাবে ব্যহত হচ্ছে।

 গত ১ জুলাই শনিবার থেকে চাঁদপুর শহর এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহে ভয়াবহ এ বিপর্যয় নেমে আসে। চাঁদপুর পাওয়ার হাউজ গ্রিডের সাব-স্টেশনে যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে বিদ্যুৎ সরবরাহে এ বিপর্যয় দিখা দিয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ জানালেও, কবে নাগাদ এ সমস্যা দূর হবে তা সঠিকভাবে জানা যায়নি।

ভূক্তভুগী পৌরবাসীর সাথে কথা বলে জানা গেছে, পবিত্র ঈদুল ফিতরের পর থেকেই চাঁদপুর পৌর এলাকায় বিদ্যুৎতের লোডশেডিং শুরু হয়। তবে মূলত ১লা জুলাই শনিবার থেকে তা ভয়াবহ রুপ নেয়। ওই দিন থেকে দিনে এবং রাতে বিদ্যুৎ আসা-যাওয়ার মধ্যে রয়েছে। বিদ্যুৎতের এই আসা যাওয়ার মধ্যে আবার দিন ও রাতের হিসেবে বেশীভাগ সময় ছিলো বিদ্যুৎ শুণ্য।

এদিকে বিদ্যুৎতের এই ভেল্কিবাজিতে শহরবাসীর স্বাভাবিক জীবনযাত্রায় নেমে আসে ভয়াবহ দূর্ভোগ। বিশেষ করে তাদের প্রচন্ড গরম শয্য করে রাত পার করতে হয়েছে। এছাড়া শহরের কর্মব্যস্ত অফিস পাড়াগুলোতে নেমে আসে সিমাহীন দুর্ভোগ। তাদের নিত্যদিনের কজকর্ম মারাত্মকভাবে ব্যহত হয়।

এ বিষয়ে ক্ষুব্ধ ভুক্তভুগি শহরবাসী জানিয়েছে, কয়েকদিন পরপরই শহর এলাকায় বিদ্যুৎ লোডশেডিং দেখা দেয়া। এতে কতৃপক্ষ বরাবরই পাওয়ার হাউজ গ্রিডের সাব-স্টেশনে যান্ত্রিক ত্রুটির দোহাই দিয়ে বিষয়টি এড়িয়ে যান।

অপর দিকে এ বিষয়ে চাঁদপুর পিডিবির নির্বাহী প্রকৌশলী আ ফ ম মোস্তাফিজুর রহমান জানিয়েছেন, চাঁদপুর ১৩২ কেভি গ্রিড সাব-স্টেশন থেকে যে দু‘টি সার্কিট ব্রেকারের মাধ্যমে বিদ্যুৎ সরবরাহ দেয়া হয়ে থাকে সে সার্কিট ব্রেকারে ত্রুটি দেখা দিয়েছে। অপ্রত্যাশিত এ যান্ত্রীক ত্রুটির ফলে বিদ্যুতের এ বিপর্যয় দেখা দিয়েছে।

তিনি আরো জানান, শুরু থেকেই সেখানে মেরামতের কাজ করে যাচ্ছি। তবে কখন এ সমস্যা সমাধান হবে এ বিষয়ে তিনি নিশ্চিত করে কিছু বলতে পারেননি।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে