আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > আইন-মানবাধিকার > বনদস্যু গুরু বাহিনীর প্রধান গুরুসহ গ্রেপ্তার-২

বনদস্যু গুরু বাহিনীর প্রধান গুরুসহ গ্রেপ্তার-২

sundarban-map20170615133411

ইমরুল কায়েস, প্রতিচ্ছবি বাগেরহাট প্রতিনিধি :

সুন্দরবনে দস্যুতার অভিযোগে বনদস্যু গুরু বাহিনীর প্রধান গুরুসহ দু’ জনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। এসময় তাদের কাছ থেকে দেশি তৈরি পাঁচটি অস্ত্র উদ্ধার করা হয়।

বুধবার বেলা বারোটার দিকে সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের চাঁদপাই রেঞ্জের পশুর নদী সংলগ্ন নন্দবালা খাল এলাকায় অভিযান চালিয়ে র‌্যাব সদস্যরা গুরু বাহিনীর প্রধান ও তার এক সহযোগিকে গ্রেপ্তার করে। তাদের বাগেরহাটের মংলা থানায় নিয়ে আসা হচ্ছে বলে জানিয়েছে ব্যাব।

উদ্ধার হওয়া অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে দুটি একনলা বন্দুক, দুটি দোনলা বন্দুক, একটি এলজি ও ৬৩টি বিভিন্ন ধরনের গুলি।

তারা হলেন বাগেরহাটের মো. আনিস মোল্লা ওরফে গুরু (৩৪) এবং তার সহযোগি আকরাম সানা (৩৫)। এদের বাড়ি বাগেরহাটে।

র‌্যাব-৮ এর উপঅধিনায়ক মেজর আদনান কবির দুপুরে এই প্রতিবেদককে বলেন, সম্প্রতি মো. আনিস মোল্লা ওরফে গুরু নামে এক যুবক ৬-৭ জনকে নিয়ে একটি দস্যু বাহিনী গড়ে তোলেন। গুরু নামে এই বাহিনীটি বেশ কিছুদিন ধরে সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জের অল্প কিছু এলাকায় চাঁদাবাজি করছিল বলে জেলেরা অভিযোগ করে।

বুধবার জেলেদের কাছ থেকে খবর পেয়ে সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের চাঁদপাই রেঞ্জের পশুর নদী সংলগ্ন নন্দবালা খাল এলাকায় বনের উপর নির্ভরশীল জেলে নৌকায় চাঁদাবাজির প্রস্তুতি নিচ্ছে এই গোপণ সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাবের একটি দল সেখানে অভিযানে যায়।

এসময় তারা র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে নৌকা থেকে পালানোর চেষ্টা করলে ধাওয়া করে গুরু বাহিনীর প্রধান আনিস মোল্লা ওরফে গুরু ও তার অন্যতম সহযোগি আকরাম সানাকে গ্রেপ্তার করে। তাদের নৌকায় তল্লাসি চালিয়ে পাঁচটি দেশি অস্ত্র ও ৬৩টি গুলি উদ্ধার করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ‘বাহিনী’ গঠন করে চাঁদাবাজির কথা স্বীকার করেছে বলে র‌্যাবের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে