আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > অপরাধ > কুষ্টিয়ায় অপারেশন টেপিড পাঞ্চ, তিন বোমা নিষ্ক্রিয়

কুষ্টিয়ায় অপারেশন টেপিড পাঞ্চ, তিন বোমা নিষ্ক্রিয়

কুষ্টিয়ায় অপারেশন টেপিড পাঞ্চ, তিন বোমা নিষ্ক্রিয়

প্রতিচ্ছবি প্রতিবেদক:
কুষ্টিয়ার ভেড়ামারার জঙ্গি আস্তানা ঘিরে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর অপারেশন টেপিড পাঞ্চ শেষ হয়েছে। নিষ্ক্রিয় করা হয়েছে তিনটি বোমা। শনিবার সন্ধ্যা থেকে তিন ঘন্টার অভিযান চালায় আইন শৃঙ্খলা বাহিনী। এর আগে আস্তানা থেকে দুই শিশু ও নব্য জেএমবি’র আমীরের স্ত্রীসহ তিন নারীকে আটক করা হয়। উদ্ধার করা হয় ২টি সুইসাইডাল ভেষ্ট, একটি পিস্তল, ম্যাগজিন ও গান পাউডার।
কুষ্টিয়ার ভেড়ামাড়র বামুনপাড়া জঙ্গি আস্তানায় সন্ধ্যা থেকে অপারেশন টেপিড পাঞ্চ শুরু করে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী। অভিযানে অংশ নেয় কাউন্টার টেররিজম ইউনিট, বোমা নিস্ক্রিয়কারী দল, সিআইডির ক্রাইম সিন ইউনিট ও কুষ্টিয়া জেলা পুলিশ। নিষ্ক্রিয় করা হয় তিনটি বোমা। পরে সংবাদ সম্মেলন করে অভিযানের বিষয়ে বিস্তারিত জানান অতিরিক্ত ডিআইজি হাবিবুর রহমান।
তিনি জানান , শুক্রবার রাত ১২টার দিকে কাউন্টার টেররিজম ইউনিট খবর পায় কুষ্টিয়া ভেড়ামারার বামুনপাড়া তালতলা মসজিদের সামনে একটি বাড়ীতে জঙ্গিরা অবস্থান করছে। এ সংবাদের ভিত্তিতে কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের এডিসি আব্দুল মান্নান ও কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার এস,এম মেহেদী হাসান এর নেতৃত্বে কুষ্টিয়া পুলিশের যৌথ টিম সেখানে অবস্থান নেয়।
রাত ৩টার দিকে ঘটনাস্থলে পুলিশ ও কাউন্টার টেররিজম ইউনিট যৌথভাবে বাড়ীতে অভিযান চালালে একজন মহিলা সুইসাইড ভেষ্ট পরিহিত অবস্থায় পুলিশের উপর হামলার চেষ্টা চালায়। এ সময় পুলিশ সদস্যরা তা বিষ্ফোরিত হওয়ার আগেই তাকে ধরে ফেলে। পরে পর্যায়ক্রমে আরও দুই জন মহিলাকে আটক করে তারা।এর আগে শুক্রবার রাত ১২টার দিকে ভেড়ামারার বামনপাড়া তালতলা মসজিদের পাশে বাড়িটি ঘিরে ফেলে পুলিশ। রাত ৩টার দিকে অভিযান শুরু করে কাউন্টার টেররিজম ইউনিট ও পুলিশের যৌথ দল।
আটক একজন নব্য জেএমবির বর্তমান আমীর আইয়ুব বাচ্চুর স্ত্রী তিথি, আরেকজন সেকেন্ড ইন কমান্ড রাশেদের স্ত্রী সুমাইয়া এবং অন্যজন জঙ্গি আরমানের স্ত্রী টলি বেগম। তাদের সাথে তিথির চার মাসের এবং সুমাইয়ার ছয় মাসের শিশু কন্যাও ছিল।
আটক নারীরা জেএমবির সুইসাইডাল স্কোয়াডের সদস্য বলেও জানান অতিরিক্ত ডিআইজি।  বাড়ীর মালিক নাসিমা খাতুনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তিথি ও সুরাইয়া নাটোর জেলার বাসিন্দা এবং টলি বিশ্বাস দৌলতপুর উপজেলার ঠাকুরপুকুর এলাকার বাসিন্দা।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে