আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > বিনোদন-সংস্কৃতি > কারাগারে বিমর্ষ বিক্রম

কারাগারে বিমর্ষ বিক্রম

imageপ্রতিচ্ছবি বিনোদন ডেস্ক:

পুলিশের কাছে ধরা খাওয়ার পর থেকে গত দুইদিন জেলহাজতেই বসবাস করছেন টালিউড অভিনেতা বিক্রম।

বেপরোয়া গাড়ি চালিয়ে বান্ধবীর মৃত্যু ঘটানোর অভিযোগে আপাতত জেলে আছেন তিনি। দু’রাতেই মুখ থেকে জেল্লা উধাও! চোখেমুখে ভেঙে পড়ার ছাপ। পরনে খাকি শার্ট-হাফ প্যান্ট। বাড়ির বিছানার বদলে কুটকুটে কম্বল। কখনও শুয়ে উসখুস করছেন, বেশির ভাগ সময় হাঁটুতে মাথা ঠেকিয়ে বসে থাকছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার রাতে বিক্রমকে গ্রেফতার করার পরেই খাকি শার্ট-প্যান্ট পরতে দেওয়া হয়েছিল। শুক্রবার সেই পোশাক ছাড়িয়ে ডেনিম-টি শার্ট পরিয়ে আদালতে নিয়ে যাওয়া হয়। ফেরার পরেই ফের খাকি পোশাক পরে নেন বিক্রম। রাতে থানার ক্যান্টিন থেকেই রুটি-তরকারি দেওয়া হয়। সামান্য মুখে তুলে বাকিটা ফিরিয়ে দেন বিক্রম। রাতে লকআপের মেঝেতে কম্বল পেতে শুয়েছিলেন নায়ক। ওই লকআপেই ছিলেন প্রতারণায় অভিযুক্ত এক আসামি। নায়ককে সামনে দেখে একটু ভাব জমানোর চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু বিক্রম কোনও কথা বলেননি। সারা রাত কার্যত জেগেই কাটিয়েছেন তিনি। মাঝেমধ্যে উঠে কপালে হাত দিয়ে বসে ছিলেন। শনিবার সকালে আর পাঁচটা বন্দির মতোই পাঁউরুটি, চা দিয়ে ব্রেকফাস্ট সারতে হয়েছে। দুপুরে ভাত, ট্যালট্যালে ডাল আর ছোট এক টুকরো পোনা মাছে লাঞ্চ। থানার একটি সূত্র বলছে, খাবার মুখেই তুলতে চাইছিলেন না বিক্রম।

এ দিন সকালে বিক্রমের এক আইনজীবী তাঁর সঙ্গে কথা বলতে থানায় যান। এ দিন দুপুরে প্রায় তিন ঘণ্টা জেরা করা হয়েছে বিক্রমকে। দুর্ঘটনার রাতে তিনি কী কী করেছেন, সেই প্রশ্নই এক নাগাড়ে করা হয়েছে। তদন্তকারীরা জানান, এখনও দোষ স্বীকার করেননি বিক্রম।

হাজতবন্দি ‘হিরো’-কে নিয়ে সাবধানী লালবাজারও। দোতলায় যেখানে বিক্রমকে রাখা হয়েছে, সেখানে আমজনতার ঢোকা-বেরনোয় কড়াকড়ি হয়েছে। সেন্ট্রি মোতায়েন সব সময়ই থাকে, শুক্রবার সকাল থেকে থানার কোল্যাপসিবল গেটে তালাও ঝুলছে। পুলিশ সূত্রের খবর, লকআপে থাকা সব কয়েদীর মতই আচরণ করা হভবে বিক্রমের প্রতি। প্রয়োজনের বাইরে তার সাথে কোন কথা বলাও নিষেঢ করে দিয়েছ পুলিশ। কড়া নিরাপত্তার মধ্যে রয়েছেন অভিনেতা। তার লকআপের সামনে ছবি তোলা ও অযথা চলাচল নিষিদ্ধ। লালবাজারের কন্ট্রোল রুম থেকে টালিগঞ্জ থানার সিসিটিভি ক্যামেরার ছবিতে নজরদারি চলছ অভিনেতার উপর।

সূত্র: আনন্দবাজার

এন টি

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে