আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > বিজ্ঞান প্রযুক্তি > অস্কার বিচারক হচ্ছেন বাংলাদেশী নাফিস

অস্কার বিচারক হচ্ছেন বাংলাদেশী নাফিস

অস্কারে বিচারক হচ্ছেন বাংলাদেশী নাফিস

প্রতিচ্ছবি ডেস্ক: দু-দুবার অস্কার জয়ের পর এবার এর বিচারক হচ্ছেন বাংলাদেশের নাফিস বিন যাফর। সিনেমার ‘নোবেল’ খ্যাত অ্যাকামেডি অ্যাওয়ার্ড বা অস্কার পুরস্কার প্রদানকারী অ্যাকাডেমি অব মোশন পিকচার আর্টস অ্যান্ড সায়েন্সেস এর সদস্য হবার আমন্ত্রণ পেয়েছেন নাফিস।

ভিজ্যুয়াল ইফেক্টস বিভাগের অস্কারের জন্য ভোট-মূল্যায়ন দেবেন তিনি। বাংলাদেশ হতে প্রথমবারের মতো এ সম্মান পেলেন এই কৃতি সফটওয়্যার প্রকৌশলী।

প্রতিবছর অস্কার ভোটিং পুলে নতুন সদস্য আমন্ত্রণ জানিয়ে থাকে অ্যাকাডেমি। ২০১৭ সালে এতে অভিতাভ বচ্চন, আমির খান, সালমান খান, ইরফান খান, প্রিয়াঙ্কা চোপড়া, দীপিকা পাড়ুকোন, ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চনও আমন্ত্রণ পেয়েছেন।

বিভিন্ন বিভাগে ৫৭টি দেশের ৭৭৪ জন নতুন সদস্যের এই তালিকায় ওয়ান্ডার উইমেন খ্যাত গ্যাল গ্যাডেট হতে শুরু করে ৯৫ বছর বয়সী অভিনেত্রী বেটি হোয়াইট রয়েছেন। রয়েছেন ক্রিস হেমসওয়ার্থ, ক্রিস উভান্স, ডোয়াইন জনসন-দ্য রক, ক্রিস প্যাট, আনা ফারিস এর মতো তারকারা।

অ্যাকাডেমির বরাতে নিউইয়র্ক টাইমস জানিয়েছেন, নতুন আমন্ত্রিতরা আমন্ত্রণ গ্রহণ করলে অ্যাকাডেমির এই সদস্য সংখ্যা হবে ৮ হাজার ৪২৭। যাদের ভোট-মূল্যায়নে দেয়া হয়ে থাকে অস্কার পুরস্কার।

নাফিস প্রথম বাংলাদেশী ব্যক্তি হিসেবে ২০০৭ সালে অস্কার পুরষ্কার জেতেন। হলিউডের পাইরেটস অফ দ্য ক্যারিবিয়ান: অ্যাট ওয়ার্ল্ড’স এন্ড চলচ্চিত্রেফ্লুইড অ্যানিমেশনের জন্য সায়েন্টিফিক অ্যান্ড টেকনিক্যাল বিভাগে ডিজিটাল ডোমেইন নামে ভিজ্যুয়াল ইফেক্টস ডেভেলপার কোম্পানির হয়ে দুই সহকর্মী ডাগ রোবেল ও রিয়ো সাকাগুচি সাথে নাফিস এ পুরস্কার জিতেছিলেন।

এর পর ২০১২ মুভিতে প্রথম ড্রপ ড্রেসট্রাকশন টুলকিট ব্যবহারের জন্য অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ড অব সায়েন্স ২০১৪ পুরস্কার পান তিনি। ওই ড্রপ ড্রেসট্রাকশন টুলকিটটি প্রথম ব্যবহার হয় ২০১২ ছবিতে। এরপর ট্রান্সফরমারের প্রতিটি সিরিজ ও ২০১৪ সালে মুক্তি পাওয়া   ‘অগম্যান্ট’সহ ২০ টিরও বেশি ছবিতে এটি ব্যবহার করা হয়েছে।

নাফিস ১৯৭৮ সালের ৮ অক্টোবর ঢাকায় জন্মগ্রহণ করেন। বাবা মায়ের একমাত্র সন্তান তিনি। বাবা জাফর বিন বাশার বর্তমানে নিউইয়র্কে একটি অ্যাকাউন্টিং ফার্মে কর্মরত। আর মা নাফিসা জাফর গৃহিনী। তাঁর দাদা বাড়ি রাজবাড়ী জেলার কাজীকান্দা।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে