আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > জাতীয় > শেষ মুহূর্তে বাড়ি ফেরা

শেষ মুহূর্তে বাড়ি ফেরা

img_20170625_120738

ইফতি মাহবুব:

ঈদযাত্রার শেষ সময়ে মহাসড়কে যানবাহনের চাপ অনেকখানি কমেছে। তবে এখনও ভিড় রয়েছে কমলাপুর রেলস্টেশনে।

সোমবার সম্ভাব্য ঈদ ধরেই ঘরমুখো মানুষ ছুটে আসছেন কমলাপুরে। পরিবার আত্মীয়স্বজনদের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতেই ট্রেনে চেপে গ্রামের বাড়ি যাচ্ছেন হাজারো মানুষ।

রোববার সরেজমিনে দেখা যায়, কমলাপুর রেলস্টেশনে আজও মানুষের ভিড় বেশি। অধিকাংশ যাত্রীই যাচ্ছেন টিকিট কেটে দাঁড়িয়ে। এর বাইরে টিকিট প্রত্যাশী যাত্রীরাও ভিড় করেছেন কমলাপুর রেলস্টেশনে।

খোঁজ নিয়ে জানাযায়, আজ ৬০টি ট্রেন রাজধানী থেকে দেশের বিভিন্নস্থানে ছেড়ে যাবে। যার মাঝে বেলা ১১টা পরযন্ত ছেড়ে গেছে ২০টি ট্রেন। এরমধ্যে একমাত্র রংপুর এক্সপ্রেস ছাড়া কোন ট্রেনেরই শিডিউল পরিবর্তন ঘটেনি। অন্যান্য ট্রেনগুলোও নির্ধারিত সময়ের কাছাকাছি সময়েই ছেড়ে যাচ্ছে।

এ সম্পর্কে কমলাপুর রেলস্টেশনের ম্যানেজার সিতাংশু চক্রবর্তী প্রতিচ্ছবিকে বলেন, ‘রংপুর একাসপ্রেস ট্রেনটি টানা দেরিতে ছেড়ে যাওয়ার সময়কে কাভার করতে পারছে না। তাছাড়া স্টেশনে যাত্রীরা মালামাল নিয়ে নামতে গিয়ে দেরিও করছেন। যে কারণে ট্রেনটি আজও দেরিতে ছেড়ে যাবে। আজ রোববার ট্রেনটি ১টা ২০ মিনিটে ছেড়ে যাবে। এছাড়া আমাদের অনান্য ট্রেনগুলো প্রায় সঠিক সময়েই ছেড়ে যাচ্ছে।’

%e0%a6%ae%e0%a6%b9%e0%a6%be

এদিকে ঈদের ছুটি কাটাতে এরই মধ্যে অধিকাংশ মানুষ বাড়ি চলে যাওয়ায় রাস্তায় যানবাহনের সংখ্যাও কম। রোববার সকাল থেকেই গাজীপুরে ঢাকাটাঙ্গাইল মহাসড়কে যানবাহন চলাচল অনেকটাই স্বাভাবিক দেখা গেছে, বাড়তি কোনো চাপ নেই। একই অবস্থা ঢাকাময়মনসিংহ মহাসড়কেরও। শেষ মুহূর্তে বাড়ি ফেরার জন্য বাস কাউন্টারগুলোতে ভিড় করছেন যাত্রীরা।

তবে গাজীপুরের চন্দ্রা ত্রিমোড় এলাকায় যানবাহন কম থাকায় কিছুটা সংকটে পড়েছেন উত্তরবঙ্গগামী যাত্রীরা। ছাড়া বাড়তি ভাড়া আদায়ের অভিযোগও করেছেন অনেকে।

এদিকে, ঢাকাময়মনসিংহ মহাসড়কের চান্দনা চৌরাস্তায় যানবাহনের চাপ থাকলেও থেমে নেই কোনো যানবাহন। গাড়ি চলছে স্বাভাবিক গতিতে।

সড়ক পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে হাইওয়ে পুলিশের পাশাপাশি জেলা পুলিশ, আনসার কমিউনিটি পুলিশ একযোগে কাজ করছে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে