আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > রাজনীতি > কেউ কথা শুনে না, অনেক কথা বলার ছিল-এরশাদ

কেউ কথা শুনে না, অনেক কথা বলার ছিল-এরশাদ

 প্রতিচ্ছবি প্রতিবেদক:

সুষ্ঠু নির্বাচনের অনুকূল পরিবেশ চেয়ে সাবেক রাষ্ট্রপতি ও সম্মিলিত জাতীয় জোটের চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, আমরা জোটগতভাবে নির্বাচন করবো। সুযোগ আসছে, যারা নির্বাচন করতে চাও, আসো। যোগ্য প্রার্থী দাও। আমরা ৩০০ আসনে প্রার্থী দেবো। এ সময় সংসদে প্রতিনিধিত্বশীল দলগুলোকে নিয়ে নির্বাচনকালীন সরকারের দাবি করেন তিনি।

শনিবার রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে মহাসমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, এত লোক হয়েছে আশা করিনি। সবাইকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা। তবে সমাবেশে পোস্টার নামানোর কথা বললেও কেউ না শুনায় ক্ষোভ নিয়ে এরশাদ বলেন, কেউ কথা শুনে না। অনেক কথা বলার ছিল।

তিনি আরো বলেন, আগামী নির্বাচন হয়ত আমার জীবনের শেষ নির্বাচন। নির্বাচন নিয়ে অনেক সংশয় আছে। হবে কি না জানি না। একটা দল ৭ দফা দফা দিয়েছে, এগুলো এই সংবিধান অনুয়ায়ী মানা সম্ভব নয়। তবে আমরাও সুষ্ঠু নির্বাচন চাই। সবার অংশগ্রহণে নির্বাচনকালীন সরকার চাই।

এরশাদ বলেন, নির্বাচন পদ্ধতি সংস্কার, স্বাধীন বিচার বিভাগ চাই, শিক্ষা পদ্ধতির সংস্করণ চাই, এ পদ্ধতি ধংস হয়ে গেছে। সড়কে নিরাপত্তা চাই।

এ সময় সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান রওশন এরশাদ বলেন, জাতীয়পার্টি আজ জেগে উঠেছে। এ সমাবেশই তা প্রমাণ করলো। বঙ্গবন্ধু স্বাধীনতা এনে দিয়েছে। আর জাতীয় পার্টি স্বাধীনতার সুফল জনগণের কাছে পৌছে দিয়েছে।

দীর্ঘ ২৭ বছর আমরা ক্ষমতায় নেই। আজকের এই জন সমাবেশ দেখে, জনগণের আগ্রহ দেখে আমরা ক্ষমতায় যেতে চাই। সেভাবেই দলকে সংগঠিত করতে হবে। কারণ জনগণ আমাদের ক্ষমতায় দেখতে চায়। সেই সুযোগটা আমাদের নিতে হবে। ইনশাল্লাহ আমরা এবার যাবই যাব।

সম্মিলিত জাতীয় জোটের এ সমাবেশে আরো বক্তব্য দেন জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের, মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য সালমা ইসলাম, ফয়সল চিশতী, আবু হোসেন বাবলা, খেলাফত মজলিশের জোবায়ের আহমদ আনসারী, ইসলামিক ফ্রন্টের এমএ মান্নান, আবু সুফিয়ান, বিএনএ’র সেকান্দর আলী প্রমুখ।

আরো উপস্থিত ছিলেন, জাপার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, জিয়াউদ্দিন বাবলু, কাজী ফিরোজ রশিদ, খেলাফত মজলিশের মাওলানা মাহফুজুল হকসহ জোটের শীর্ষ নেতারা।

জাতীয় জোটের এসমাবেশে আশানুরূপ লোক সমাগম হলেও ছিল না কোনো শৃঙ্খলা। সমাবেশের শুরুতে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। এতে একজন আহতও হয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।

এর আগে সকাল থেকেই ঢাকা ও আশপাশের জেলা থেকে মিছিল নিয়ে এসে সমাবেশস্থলে সমবেত হয় জাপা ও জোটের নেতাকর্মীরা। সকাল ১০টায় সমাবেশ শুরু হওয়ার কথা থাকলেও পৌনে ১১টায় সমাবেশটি শুরু হয়। হাবিবুল্লা বেলালীর সুমধুর কন্ঠে তেলাওয়াতে মুগ্ধ হয় নেতাকর্মীরা।

ইএ

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

Leave a Reply

উপরে