আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > আন্তর্জাতিক > সৌদি কনস্যুলেটেই খুন হন সাংবাদিক খাশোগি

সৌদি কনস্যুলেটেই খুন হন সাংবাদিক খাশোগি

jamal

প্রতিচ্ছবি আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

সৌদি কনস্যুলেটে প্রবেশ করার পরপর সেখানেই সাংবাদিক খাশোগিকে তাকে হত্যা করা হয়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক তুর্কি সূত্রের বরাতে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্রটি জানিয়েছে, জামাল খাশোগির হাতে থাকা অ্যাপল ওয়াচে ধারণকৃত অডিওর চেয়ে ভিন্ন আরেকটি সূত্র থেকে এই অডিও হস্তগত হয়েছে তুর্কি কর্তৃপক্ষের কাছে।

তুরস্কের কর্তৃপক্ষের কাছে একটি ১১ মিনিটের অডিও রেকর্ডিং রয়েছে। এই অডিও থেকে ইঙ্গিত মিলেছে, সৌদি ভিন্নমতালম্বী সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে হত্যা করা হয়েছে।

রয়টার্স জানিয়েছে, তুরস্ক পুলিশের হাতে একটি অডিও রেকর্ডিং রয়েছে যা থেকে বোঝা যায় যে কনস্যুলেটেই খাশোগিকে হত্যা করা হয়। ওই অডিও অনেক দেশের কর্তৃপক্ষের সঙ্গে শেয়ার করা হয়েছে। এর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র ও সৌদি আরবও রয়েছে।

তবে, এখন পর্যন্ত খাশোগিকে হত্যার কথা অস্বীকার করেছে সৌদি আরব। সৌদি বলছে, খাশোগি কনস্যুলেটে প্রবেশের কিছুক্ষণ পরই বেরিয়ে যান।

সৌদি আরবের রাজপরিবারের সমালোচক ও ভিন্ন মতাবলম্বী সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে মাত্র সাত মিনিটেই হত্যা করা হয় বলে জানিয়েছে তুরস্ক। দুই সপ্তাহ আগে তুরস্কের ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটের ভেতর খাশোগিকে হত্যার পর শরীর টুকরো টুকরো করা হয়। তুরস্কের একটি সূত্রের বরাত দিয়ে মার্কিন বার্তা সংস্থা সিএনএন ও আল-জাজিরা এ খবর প্রকাশ করেছে।

ওই সূত্র আল-জাজিরাকে জানায়, খাশোগিকে হত্যা করতে মাত্র সাত মিনিট লেগেছে। পরে সৌদি ফরেনসিক বিশেষজ্ঞ সালেহ আল-তুবাইকি খাশোগির মৃত দেহ টুকরো টুকরো করেন, এসময় তিনি তার সহকর্মীদের গান শুনতে বলেন।

এর আগে তুরস্ক দাবি করেছিল খাশোগিকে হত্যার উদ্দেশে সৌদির ১৫ সদস্যের একটি দল ইস্তাম্বুলে উড়ে যায়। তারা জানায়, খাশোগিকে ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেটে হত্যা করার স্বপক্ষে তাদের কাছে অডিও এবং ভিডিও প্রমাণ রয়েছে। যদিও সেসময় এর চেয়ে বিস্তারিত কিছুই জানায়নি তুরস্কের কর্মকর্তারা।

এদিকে সোমবার তুরস্কের একটি তদন্তকারী দল প্রায় ৯ ঘণ্টা ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেট সার্চ করে। ওই অভিযানের পর তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রেচেপ তায়েপ এরদোয়ান বলেন, তদন্তকারীরা ভেতরে ঢোকার আগে কিছু ‘বিষাক্ত বস্তুর’ ওপর ‘রং’ করেছিল।

অন্যদিকে তুরস্কের আরও একজন উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তার বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা জানায়, ওই অভিযানের পর পুলিশ হত্যার ‘সুনির্দিষ্ট প্রমাণও পেয়েছে।

উল্লেখ্য, ওয়াশিংটন পোস্টের কলামিস্ট খাশোগি তার তুর্কি বাগদত্তা হ্যাটিস সেনজিজকে বিয়ে করতে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সংগ্রহ করতে গেল ২ অক্টোবর ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেটের ভেতর প্রবেশ করেন। তবে তুরস্কের কর্মকর্তারা এবং খাশোগির পরিবার জানায়, তিনি কনস্যুলেট থেকে আর বের হননি।

এমন পরিস্থিতিতে খাশোগি নিখোঁজ হওয়া নিয়ে ধোঁয়াশার তৈরি হয়। তুরস্কের দাবি খাশোগিকে হত্যা করা হয়েছে। যদিও সৌদি প্রথমে এ ধরনের অভিযোগ অস্বীকার করেছে। তবে সূত্রের বরাত দিয়ে সিএনএন জানিয়েছে, খাশোগিকে হত্যার বিষয়টি স্বীকার করতে যাচ্ছে সৌদি কর্তৃপক্ষ।

জেএস

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

Leave a Reply

উপরে