আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > ঢাকা > নির্বাচনী প্রচারণায় সরব আওয়ামী লীগ: তোরণ-ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে মিরপুর

নির্বাচনী প্রচারণায় সরব আওয়ামী লীগ: তোরণ-ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে মিরপুর

নির্বাচনী প্রচারণায় সরব আওয়ামী লীগ: তোরণ-ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে মিরপুর

প্রতিচ্ছবি বিশেষ প্রতিবেদক:

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আর বাকী প্রায় আড়াই মাস। এরইমধ্যে তোরণ-ব্যানার আর পোষ্টার-ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে ঢাকা-১৬ আসনের সংসদীয় এলাকা রাজধানীর মিরপুর।

নির্বাচনের সম্ভাব্য সময় ডিসেম্বরের শেষ অথবা জানুয়ারির শুরু। তবে এখনো ঘোষণা হয়নি তফসিল, ভাঙেনি বর্তমান সংসদ।

এদিকে, এখনো জানা যায়নি বিএনপি’র সম্ভাব্য প্রার্থীর নাম। অথচ এরইমধ্যে শুরু হয়ে গেছে নির্বাচনী প্রচারণা। ঢাকা-১৬ আসনে সরকারদলীয় প্রার্থীরা প্রচারণা শুরু করেছেন। রাজধানীর মিরপুরের বাস স্ট্যান্ডে, রাস্তার মোড়ে, বিভিন্ন এলাকা ছেয়ে গেছে তোরণ-ব্যানার আর পোষ্টার-ফেস্টুনে।

সরেজমিনে দেখা যায়, মিরপুরের ১০ নম্বর গোল চত্বরের ট্রাফিক পুলিশ বক্স সরকারি নেতাদের পোষ্টার, ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে। এখানে টাঙানো হয়েছে ঢাকা ১৫, ১৬, ১৭ আসনের এমপি পদ প্রার্থীদেরও ফেস্টুন।

নির্বাচনী প্রচারণায় সরব আওয়ামী লীগ: তোরণ-ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে মিরপুর

১০ নম্বরের ফায়ার সার্ভিসের সামনে টাঙানো আছে বিশাল দুটি ফেস্টুন। এর সামনে অরজিনাল ১০ নম্বরেও ১টি বেসরকারি হাসপাতালের সামনে আছে বর্তমান সাংসদের ১টি বড় ফেস্টুন। এর ঠিক উল্টো পাশে রাস্তায় টানানো হয়েছে সরকারি দলের আরেক প্রার্থীর ফেস্টুন।

মিরপুর ১১ নম্বর বাস স্ট্যান্ডেও একই চিত্র। রাস্তার দুই পাড়ে টানানো আছে সরকারী দলের প্রার্থীদের ফেস্টুন। পূরবী সিনেমা হল থেকে কালশী রোডের মোড় পর্যন্ত এখানের বাতির খুটিতে লাগানো হয়েছে সরকারী দলের প্রার্থীর ফেস্টুন। এই রাস্তার ‘ধ’ ব্লকের মোড়ে এস এ মান্নান কোচির তোরণ তৈরি করা হয়েছে।

পূরবী থেকে মিরপুর ১২ নম্বর পর্যন্ত রাস্তার দুই পাশে দেখা যাবে আওয়ামী লীগের এমপি প্রার্থীদের ব্যানার-পোষ্টার-ফেস্টুন।

মিরপুর ডিওএইচএসের গেটে সাগুফতার সামনে ও কালশী রোড়ের মোড়ে সরকারী দলের আরেক প্রার্থী একলাস মোল্লার ২টি তোরণ তৈরি করা হয়েছে। কালশী উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে ও কালশী মোড়ে বর্তমান এমপি’র বড় ২টি ফেস্টুন টাঙানো হয়েছে।

নির্বাচনী প্রচারণায় সরব আওয়ামী লীগ: তোরণ-ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে মিরপুর

ইসিবি চত্বরে যাওয়ার পথে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর আর একটি তোরণ তৈরি করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত অন্য কোনো দলের পোষ্টার ফেস্টুন দেখা যায়নি। বিশেষ করে বিএনপি’র প্রাথীর পোষ্টার ফেস্টুন দেখা যায়নি।

সরকারি দলের প্রার্থীদের তোরণ-ব্যানার-পোষ্টার-ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে মিরপুর। ঢাকা ১৬ আসনের জনগণদের সাথে কথা বলে জানা যায়, কেউ বলছেন এবারের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পাবেন এস এম মান্নান কচি। এই আসনে আরও ২ জন মনোনয়ন প্রত্যাশি হলেন, একলাস উদ্দিন মোল্লা ও ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লা (বর্তমান এমপি)।

বিএনপি’র প্রার্থীদের কথা কেউ নিশ্চিত করে কিছু বলতে পারছেন না। অনেকে বলছেন ব্যারিষ্টার রফিকুল ইসলাম মিয়ার কথা। নির্বাচন নিয়ে এভাবে চলছে মানুষের মনে জল্পনা কল্পনা।

এ বিষয়ে ঢাকা সাংবাদিক গৃহসংস্থান সমবায় সমিতি লিমিটেডের সাধারণ সম্পাদক মো. আমিনুল হক বলেন, এসএম মান্নান কোচির ফেস্টুন, পোষ্টার দেখা যাচ্ছে বেশি। ঢাকা ১৬ আসনে আওয়ামী লীগ থেকে ৬০% সম্ভবনা কচির। কারণ তার প্রধানমন্ত্রীর সাথে ভালো সম্পর্ক। কয়েক দিন আগে প্রধানমন্ত্রীর সাথে বিদেশ সফর করেছেন।

তিনি বলেন, বর্তমান এমপি’র পর পর ২ টার্ম হয়ে গেছে। শেখ হাসিনা (প্রধানমন্ত্রী) নতুনদের সুযোগ দেন। বিএনপি’র অবস্থা এলোমেলো। এখান থেকে কাকে নমিনেশন দিবে বলা যায় না।

নির্বাচনী প্রচারণায় সরব আওয়ামী লীগ: তোরণ-ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে মিরপুর

একলাস উদ্দিন মোল্লা বলেন, আমি এলাকায় এলাকায় গিয়ে মসজিদে নামাজ পড়ছি। নামাজের পরে জনগণের সাথে কথা বলছি। একটি আসন থেকে ৩-৬ জন মনোনয়ন চাইতে পারে। প্রধানমন্ত্রী যাকে যোগ্য মনে করবেন তাকেই নমিনেশন দিবেন। আমি তাকেই সমর্থন দিব। নৌকার জন্য ভোট চাইব। ডোর টু ডোর গিয়ে মানুষের কাছে ভোট চাইবো।

ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ উত্তরের সিনিয়র জয়েন্ট সেক্রেটারি ও বিজিএমই’র সহসভাপতি এসএম মান্নান কচি বলেন, মানুষ পরিবর্তন চায়। আমি সাধারণ মানুষ। মানুষের জন্য কাজ করতে চাই। আমার এই প্রচারণা দলের জন্য। আমি বা আমারা সবাই প্রচার করছি।

তিনি বলেন, এবারের নির্বাচনে সবদলের অংশ গ্রহন থাকবে। দেশে ব্যপক উন্নয়ন হয়েছে। আমরা উন্নয়নের ধারা অব্যহত রাখতে চাই। নির্বাচনকে সামনে রেখেই আগে থেকে জোরেশোরে প্রচারে নেমেছি। আমি দলের জন্য, নৌকার জন্য কাজ করছি। জনগণের কাছে আমি আমার দলের পক্ষের থেকে যাচ্ছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই আসন থেকে যাকে মনোনয়ন দিবেন। আমি তার জন্য কাজ করবো। তাকেই সমর্থন দিব।

নির্বাচনী প্রচারণায় সরব আওয়ামী লীগ: তোরণ-ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে মিরপুর

ঢাকা ১৬ আসনের এমপি ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লা বলে, যারাই পোষ্টার ফেস্টুন তোরণ তৈরি করছে। নৌকা প্রতিকের জন্য ভোট চাইছে আমি তাদেরকে স্বাগত জানাই। শুভেচ্ছা জানাই। নৌকার প্রচারণা করছেন। সবাইকেই জানাই ধন্যবাদ। আমার ১৬ আসন থেকে ১৭ আসনের পোষ্টার ফেস্টুন লাগাচ্ছে। নৌকার জন্য ভোট চাইছে। আমি সবাইকে স্বাধুবাদ জানাই।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৬ আসন থেকে যাকেই মনোনয়ন দিবেন আমি তার জন্য কাজ করবো। আমি নৌকার জন্য কাজ করবো। আমি তার হয়ে নৌকা প্রতিকের জন্য ভোট চাইবো। আওয়ামী লীগের জন্য কাজ করব।

নির্বাচন কমিশন সুত্রে জানা যায়, তফসিল ঘোষনার আগে নির্বাচণী প্রচারণা নিয়ে নির্বাচন কমিশনের কেউ কোনো মন্তব্য করবে না।

আইএম/এআর

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

Leave a Reply

উপরে