আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > রাজনীতি > আওয়ামী লীগের ৬৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ

আওয়ামী লীগের ৬৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ

তিচ্ছবি প্রতিবেদক:
দেশের প্রাচীনতম রাজনৈতিক সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৬৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ। দলটির হাত ধরে এই ভূখন্ডের মানুষ যেমন পেয়েছে স্বাধীনতার স্বাদ, তেমনি রচিত হয়েছে বাংলাদেশের ঘুরে দাঁড়ানোর ইতিহাস। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা, আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে অর্থনৈতিক উন্নয়নের ধারায়। জাতি এগিয়ে চলছে ডিজিটাল বাংলাদেশের সোপান ধরে।
পাকিস্তান রাষ্ট্রের জন্মের পর থেকেই পশ্চিম পাকিস্তানীদের শোষন, বঞ্চনার শিকার হতে থাকে পূর্ব বাংলার মানুষ। এ’ থেকে মুক্তির লক্ষে ১৯৪৯ সালের ২৩ জুন ঢাকার রোজ গার্ডেনে জন্ম হয় আওয়ামী মুসলিম লীগের। পরবর্তীতে ১৯৫৫ সালে অনুষ্ঠিত দলীয় কাউন্সিলে ‘মুসলিম’ শব্দটি বাদ দিয়ে সব ধর্ম-বর্ণের মানুষের দলে পরিণত হয় আওয়ামী লীগ। সেই থেকে বাঙ্গালীর অধিকার আদায়ে আপোষহীন থেকেছে দলটি; পরিণত হয়েছে গণমানুষের সংগঠনে।

1434996139
ভাষা আন্দোলনেও দিক নির্দেশনা দিয়েছেন আওয়ামী লীগের নেতারা। আর স্বাধিকার থেকে স্বাধীনতা- পুরো কৃতিত্বই আওয়ামী লীগের। তবে, ১৯৭৫ সালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং জাতীয় চার নেতাকে হত্যার পর সংকটে পড়ে মুক্তিযুদ্ধে নেতৃত্বদানকারী দলটি। এর ৬ বছর পর, ১৯৮১ সালের ১৭ মে ঝাঞ্ঝা-বিক্ষুব্ধ দিনে দেশে ফিরে দলের হাল ধরেন বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা। দীর্ঘ ২১ বছর পর নানা চড়াই উৎরাই পেরিয়ে ১৯৯৬ সালে ক্ষমতায় আসে আওয়ামী লীগ। শেখ মুজিবের হাত ধরে পাওয়া লাল সবুজের পতাকা, শেখ হাসিনার হাতে মর্যাদার সাথে উড়তে থাকে বিশ্বমঞ্চে।
দ্বিতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় বসার পর দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে মনোযোগ দেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। প্রণয়ন করেন ডিজিটাল বাংলাদেশের রূপরেখা। নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মাসেতুর মতো বড় প্রকল্প গ্রহণ করে বিশ্বকেও তাক লাগিয়ে দিয়েছেন তিনি। রাজনীতি বিশ্লেষকরা মনে করেন, ঐতিহাসিক কারণেই দেশ ও জাতির স্বার্থে ভেবেচিন্তে সিদ্ধান্ত নেয়া উচিত আওয়ামী লীগের।
উপমহাদেশের অন্যতম প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী দল আওয়ামী লীগ নীতি-আদর্শ, সাফল্যে অটুট থাকবে এমন প্রত্যাশা সবার।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে