আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > জাতীয় > গয়না ছাড়া ঈদ হয়না

গয়না ছাড়া ঈদ হয়না

img_20170606_143955নাজমুন নাহার তুলি:

কবি মনের আকুতি প্রকাশ পায় নারীর সৌন্দর্য্যে। আর সেই রুপের স্তুতি বহুগুন বাড়িয়ে দেয় আনু্ষাঙ্গিক গয়না। আর মাত্র কিছুদিন বাকি ঈদের। ঈদ উপলক্ষে কেনাকাটার শেষপর্বে চলছে পোশাকের সাথে মিলিয়ে গয়না কেনার ব্যস্ততা। এবারের ঈদে সবচেয়ে বেশী গুরত্ব পাচ্ছে নতুন নতুন গয়নার ডিজাইন আর মেটেরিয়াল। ফ্যাশনের অনুষঙ্গ হিসেবে গয়নার কদর থাকবে এবার ঈদে সবচেয়ে উঁচুতে।

গয়নার দোকানে বেচাকেনার ধুম পড়েছে। নিজের রুচি ও সাধ্যের মধ্যে আকর্ষনীয় গয়নাটি নিজের জন্য কিনতে অনলাইন তো বটেই মার্কেটেও ঢুঁ মারছেন সব বয়সী নারীরা। সোনা, রূপা, হীরে আর অন্যান্য মেটেরিয়াল এর গয়না বরাবরের মত উচ্চবিত্তের পছন্দের তালিকায়। তবে পিছিয়ে নেই অন্যরাও। কাঠ, পুতি, তামা, মাটি, সুতা, পাথর, কাপড়, কাঁচ এমন কোন উপাদান নেই যা দিয়ে গয়না তৈরি হয়না। গয়নার আকারেও রয়েছে নতুনত্ব।  কমদামের মধ্যে এসব গয়নার দিকে ঝুঁকছেন অল্পবয়সী তরুণীরা। সোনার দাম অনেক বেশী তাই এবারের ঈদে রুপার গয়না চলবে সবচেয়ে বেশি। বেশ কিছুদিন আগেও দেখা যেত সোনালি রঙের গয়নার অনেক চাহিদা তবে একদম খাঁটি রূপা না হলেও রুপালি রঙের গয়নার কদর দেখা যাবে এবারের ঈদ ফ্যাশনে।

img_20170606_144740বাজার ঘুরে দেখা গেল শুধু তরুণীরা নয়, শিশু থেকে শুরু করে সব বয়সী নারীরাই কিনছেন গয়না। তাদের পছন্দের তালিকায় রয়েছে, কানের দুল, চুড়ি, ব্রেসলেট, পায়েল, নেকলেস,বাজুবন্ধনী, নাকফুল, টিকলি, টায়রা, আংটি, মালা ইত্যাদি। এবার খুব বেশি চলছে বড় আকৃতির কানের দুল। এই সিজনের ঈদ ফ্যাশনে খুব হালকা পোষাকের সাথে ভারি কাজের কানের দুল মানানসই। আফগানি দুল নামক এক ধরণের দুল এবার সবার পছন্দের শীর্ষে। অনেকে আবার পোষাক থেকেও গয়নার প্রাধান্য দিচ্ছেন বেশি। এই ঈদে হাইপড দুটি গয়না হচ্ছে আফগানি দুল ও নথ। কামিজ, কুর্তা, শাড়ি, সকিছুর সাথেই মানিয়ে যায় এই দুল ও নথ। তাই চিন্তা ভাবনার কোন অবকাশ নেই যে, কোনটা মানাবে আর মানাবে না। শুধু এক জোড়া কানের দুল আপনার ব্যাক্তিত্বকে ফুটিয়ে তুলতে পারে অনায়াসে। দরকার নেই আর অন্য গহনার। নিজের পছন্দের অলংকার কেনার মোক্ষম সময় ঈদ। তাই নিজের গয়নার বাক্স সমৃদ্ধ করতে আভিযান চলছে সবচেয়ে সুন্দর জিনিসের খোঁজে।

রাজধানীর বিভিন্ন মার্কেট ঘুরে দেখা গেলো। ফাঙ্কি ও নতুন ডিজাইনের দিকে নজর সবার। রুপালি রঙের গয়নার চাহিদা বেশি। দোকানিরা বলছেন, তাদের কিছু এক্সক্লুসিভ কালেকশন রয়েছে যেগুলোর দাম বেশি। তারা ভারত, নেপাল, থাইল্যান্ড এমনকি আদিবাসী গয়নাও নিয়ে আসেন। দোকানী জানান, মেয়েরা এমন গয়না চায় সব ছাপিয়ে যা সবার নজর কাড়বে। দাম খুব বেশি না হলেও আগের তুলনায় অনেক কিছুর দাম বেড়েছে। কারণ ডিজাইনে এসেছে নতুনত্ব।

gold-souk-dieraরোজার পর পর অনেকের বিয়ের অনুষ্ঠান তাই এখনি সোনা বা হীরের গয়না কিনে রাখছেন অনেকে। “ঈদের এই সময়টাতে খুব সুন্দর কিছু কালেশন থাকে দোকানে তাই মেয়ের জন্য কিনে রাখলাম” বলেন মাহিমা চৌধুরি। স্বর্ণ ব্যবসায়ী  আফজল জানান, ঈদের সোনার গয়নার চাহিদা রয়েছে। এ সময়ে বেশ কিছু টাকা একসাথে হাতে আসে তাই সোনা কেনার ক্ষমতা হয় অনেকের। আবার কেউ কেউ আছে যারা ঈদের সোনার গয়না কিনবেন বলেই সারাবছর টাকা জমান। তবে কিছু বাঁধা ক্রেতা যারা সবসময় কেনেন তারাই মূল ক্রেতা, নতুন মানুষের সংখ্যা অনেক কম।

গাউছিয়া আর দেশীয় ব্রান্ডগুলোর গয়নার কদর নারীমহলে খুব বেশি। এন্টিকের গয়না কমদামী হওয়াতে ক্রেতারা কিনতে আগ্রহী , আর বাচ্চাদের জন্য চুড়ির চাহিদাটাই বরাবরের মতই অনেক। গাউছিয়ার দোকান গুলোতে হরেক রঙের পাথরের কাজ করা সোনালি রুপালি গয়নার আধিক্য। এখানে দামগুলো সবার নাগালের মধ্যেই আছে বলে জানালেন এক ক্রেতা।

সৌন্দর্য্য ও ফ্যাশনের প্রয়োজনীয়  আনুষাঙ্গিক অনবদ্য জিনিস গয়না। ঈদ উপলক্ষে সবথেকে সুন্দর গয়নাটাই নিজের কালেকশনে রাখতে আর দেরি না করে এখনি বেড়িয়ে পড়ুন অভিনব ও মানানসই গয়নার খোঁজে।

 

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে