আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > খেলাধুলা > অবসর নেয়ার পর খেলার আক্ষেপ নেই ডি ভিলিয়ার্সের

অবসর নেয়ার পর খেলার আক্ষেপ নেই ডি ভিলিয়ার্সের

ডি ভিলিয়ার্স

প্রতিচ্ছবি  স্পোর্টস ডেস্ক :

এবি ডি ভিলিয়ার্স। দক্ষিণ আফ্রিকার সদ্য সাবেক হওয়া এ ক্রিকেটার মারকুটে ব্যাটিং দিয়ে বিশ্বজুড়ে দর্শকপ্রিয়তা পেয়েছেন। কিন্তু হঠাৎ করে গত মে মাসে অবসরের ঘোষণা দেন এবি। কারণ হিসেবে দেখান নিজে ক্লান্ত ও অন্যদের সুযোগ করে দেওয়া। কিন্তু যে কোনো খেলোয়াড়ের জন্যই অবসরটা বেদনাদায়ক। বিদায়বেলায় তাই আবেগাপ্লুত দেখা যায় তাদের। অবসর নেয়ার পরও অনেকের মনে আক্ষেপ থাকে, ‘ইশ, আরেকটু যদি খেলতে পারতাম!’

তবে এবি ডি ভিলিয়ার্স তাদের তালিকায় নন। জাতীয় দলকে বিদায় বলা এই ব্যাটসম্যান স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে মোটেই মিস করেন না তিনি। বিশ্ব ক্রিকেটের সেরা ব্যাটসম্যানদের একজন ছিলেন। ছিলেন ফর্মেরও তুঙ্গে। বয়সটাও খুব বেশি নয়, ৩৪। চাইলে আর তিন-চারটি বছর আন্তর্জাতিক আঙিনায় দাপিয়ে বেড়াতে পারতেন ডি ভিলিয়ার্স। কিন্তু হঠাৎই তিনি জানিয়ে দেন, দক্ষিণ আফ্রিকার জার্সিতে আর নয়। সিদ্ধান্তটা কি আবেগের? আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে কি এখন মিস করেন সাবেক প্রোটিয়া অধিনায়ক? এমন প্রশ্নে তার পরিষ্কার উত্তর, ‘না, বরং অবসরের সময়টাই বেশি উপভোগ করছি আমি।’

জাতীয় দলের একজন ক্রিকেটারকে কতটা চাপ মাথায় নিয়ে খেলতে হয়, সেটি মনে করিয়ে দিয়ে ডি ভিলিয়ার্স বলেন, ‘একটা সময় এটা নেয়া অসম্ভব হয়ে পড়ে। প্রচুর চাপ সামলাতে হয়, প্রতিদিন-প্রতিক্ষণে। আপনাকে প্রত্যাশার চাপ নিতে হয় সমর্থকদের, দেশের, কোচের। এটা বিশাল। একজন ক্রিকেটার হিসেবে এটা সবসময়ই মাথায় কাজ করে।’

দেশের হয়ে খেলতে গেলে দর্শক সমর্থনের বিষয়টি অন্যরকম, অস্বীকার করছেন না ডি ভিলিয়ার্স। তবে অবসর নিয়ে কোনো আক্ষেপ নেই তার, ‘আমি জানি বড় ম্যাচ সেঞ্চুরি করার সঙ্গে কোনো কিছুকেই তুলনা করা যায় না। হাজার হাজার মানুষ আপনার নাম ধরে চিৎকার করবে। তবে সত্যি করে বলতে, আমি এসব মিস করি না। এখন পর্যন্ত না। সরে যেতে পেরে আমি খুশি। অবশ্যই এটা নিয়ে আমার কোনো আক্ষেপ নেই।’

এএস

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

Leave a Reply

উপরে