আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > শিল্প-সাহিত্য > ফয়সল নোই’র দুটি কবিতা

ফয়সল নোই’র দুটি কবিতা

ফয়সল নোই-এর দুটি কবিতা

কবি ফয়সাল নোই। কবিতা লেখায় তার হাত অসাধারণ। দীর্ঘদিন থেকেই কবিতা লিখছেন তিনি। ফয়সাল নোই একাধারে কবি ও সাংবাদিক। বর্তমানে জনপ্রিয় বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল ‘চ্যানেল আই’-এর প্রধান প্রতিবেদক হিসেবে কর্মরত আছেন। তুলে ধরা হলো ফয়সাল নোই- এর অসাধারণ দুটি কবিতা-

> আগুন কিশোরীর বাড়ি

আরেকটা বুনো ফুল, চেহারা হুবহু বিষণ্নতায় –

বাঁচবার সুখ উদ্রেক করে

উল্লাস ভেঙ্গে আদীম যুদ্ধ পতাকায়

ফিরে আসে স্বপ্ন-সম্মোহনের কাদা।

দূরে আদিবাসী গাঁয়

আলগোছে এই প্রশ্ন রটে যায়ঃ

– কি মেঘে এমন সংসারে

মেয়েদের বুক ফুলে ওঠে;

মরা জ্যোৎস্নায় ক্রমশঃ বিলীন ভেলা…

-উদাসী বেহুলা গান গায়,

এবং, অচেনা নীল ফুল

অভিমানে কাঁদে

-ভ্রমরের আচরনে জ্বলে সারা রাত।

আর, দু’নয়নের ক্লান্ত মায়ায়

কে ভুলাল, উজান বাওয়া

রক্ত জমা বুকের নিচে

বিদিক হাওয়া, বেওয়ারিশ মৃত আছে।

আর, দূরে লালছে মশাল

সাঁজ বয়ে গেলে সব

খুন হতে যায়

ঐতিহাসিক আগুন কিশোরীর বাড়ি।

> বনস্পতি

ভাল না বাসলেও নিয়মিত দুঃখ পাঠায় বলে

আমাকেই নজর রাখতে হয়, তার —

শিশু হাসপাতাল,মাতৃসদন, প্রাথমিক বিদ্যালয়;

ক্রমশঃ আড়াল করে ফেলছে হাস্নাহেনা,

সন্ধ্যার ঝিরঝিরে বৃষ্টি,কাঁঠালচাপা ও রূপালী জ্যোৎস্না।

অথচ,চোখ ধাঁধাঁনো দুপুর রোদে

গাছের তলে,গাছের ডালে রঙিন ঝুমকাটা

এতোই স্পষ্ট আর প্রকাশ্য যে তার

প্রেমিকরাও চোখ তুলে তাকাতে সাহস পায় না।

বরঞ্চ সন্দেহ জমে বুকে–

নিশ্চিতই, মেয়েটা ভুবনে এমন রহস্য জানে

যা কাউকেই ফাঁস করতে রাজি নয়

তার ভ্রমর উড়ানো উদাসী আড় চোখ

গোপনে কখনো এই রহস্য প্রকাশ করে

— ব্যাকুল বিষাদ সুরে হাহাকার ফোটে যদি

বাউলের আঙ্গুলে-একতারায়-কণ্ঠে,

জন্ম-কোঠরে, নদের বানে, কস্তুরী মাখা চাঁদে;

কেউ কেউ অনুমান করে বটে আমারও উপশম।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে