আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > আন্তর্জাতিক > আবারও যৌন কেলেঙ্কারি এবং মন্ত্রীর পদত্যাগ

আবারও যৌন কেলেঙ্কারি এবং মন্ত্রীর পদত্যাগ

uk minister

প্রতিচ্ছবি আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

বৃটিশ বিজনেস বিষয়ক মন্ত্রী অ্যানড্রু গ্রিফিথস পদত্যাগ করেছেন। যৌন কেলেঙ্কারিতে ফেঁসে গিয়ে পদত্যাগে বাধ্য হয়েছেন তিনি। শনিবার দিবাগত রাতে পদত্যাগে বাধ্য হন ওই মন্ত্রী।

দ্য সানের একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পানশালার দু’জন পরিচারিকাকে দুই হাজার রগরগে যৌন উত্তেজনা সৃষ্টিকারী টেক্সট ম্যাসেজ পাঠিয়েছিলেন অ্যানড্রু গ্রিফিথস। তাদের কাছে রগরগে ছবি ও ভিডিও দাবি করেছিলেন তিনি। এ বিষয়টি প্রকাশ পাওয়ার পর পরই পদত্যাগে বাধ্য হন মন্ত্রী।

জানা গেছে, তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পানশালার ওই দু’জন পরিচারিকার সঙ্গে পরিচিত হওয়ার পর তাদের সঙ্গে রগরগে আলোচনা ও সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। তিনি একজন পরিচারিকা ইমোজেন ট্রেহারনিকে (২৮) ও তার সঙ্গীকে ৭০০ পাউন্ড পাঠিয়েছেন। তাদেরকে প্রস্তাব করেছেন একটি ফ্লাট ভাড়া নিতে, যেখানে তারা যৌন সম্পর্ক স্থাপন করতে পারবেন। এর মধ্যে তিনি ওই দুই পরিচারিকাকে এমন সব মেসেজ পাঠিয়েছেন তা ভাষায় প্রকাশ করা যায় না। তিনি তাদেরকে শরীরের অন্তর্বাসগুলো খুলে ফেলারও আহ্বান জানিয়েছেন।

ইমোজেন বলেছেন, এত বেশি পরিমাণ বার্তা পেয়ে তিনি হতাশ হয়েছেন। তিনি এগুলো নোংরামি ছাড়া আর কিছু ভাবতে পারেননি বলে জানান।

এসব তথ্য প্রকাশ হওয়ার পর অ্যানড্রু গ্রিফিথস বলেছেন, এই স্ক্যান্ডালের বিষয়ে তিনি গভীরভাবে লজ্জিত। আর এ ঘটনা যাতে আর না ঘটে তা নিশ্চিত হতে তিনি পেশাদারদের সহায়তা নেবেন।

পদত্যাগ করে একটি বিবৃতিতে গ্রিফিথ তার আচরণের জন্য প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে’র কাছে জানিয়েছেন যে, তিনি গভীরভাবে বিব্রত।

উল্লেখ্য, অ্যানড্রু গ্রিফিথস বিবাহিত। এপ্রিলে তিনি একটি সন্তানের পিতা হয়েছেন। এরপরই বেরিয়ে আসতে থাকে গ্রিফিথসের ওই কাহিনী। এখন তিনি পদত্যাগ করায় বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী পার্লামেন্টে তার সামনের বেঞ্চ থেকে আরো একজন মন্ত্রীকে হারালেন। এর আগে ব্রেক্সিট ইস্যুতে পদত্যাগ করেছেন সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসন ও ব্রেক্সিট বিষয়ক সাবেক মন্ত্রী ডেভিড ডেভিস।

এসএইচ

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

Leave a Reply

উপরে