আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > খুলনা > বাগেরহাটে ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম

বাগেরহাটে ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম

প্রতিচ্ছবি বাগেরহাট প্রতিনিধি:

বাগেরহাটের কচুয়া উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক হাজরা ইশতিয়াক হোসেন বাহাদুরকে কুপিয়ে জখম করেছে দুর্বৃত্তরা। তাঁকে আশংকাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মঙ্গলবার ভোরে ভ্যানযোগে বাড়ি ফেরার পথে ছাত্রনেতা ইশতিয়াককে সাইনবোর্ড-কচুয়া সড়কের রাঢ়িপাড়া কাটা বটতলা এলাকায় সশস্ত্র দুর্বৃত্তরা এই হামলা চালায়।

এদিকে, ছাত্রলীগ নেতা ইশতিয়াক হোসেন বাহাদুরের উপর হামলার প্রতিবাদে কচুয়া বাজারের সব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এবং অভ্যন্তরীণ সড়কে যানচলাচল বন্ধ করে দিয়েছে স্থানীয় যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগ। ছাত্রনেতার উপর হামলাকারীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তারের দাবীতে তারা কচুয়ার জিরো পয়েন্টে বিক্ষোভ সমাবেশ করছে।

ছাত্রনেতা ইশতিয়াক কচুয়া উপজেলা সদরের প্রয়াত বাশারত হাজরার ছেলে। কচুয়া উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক দিহিদার আলী হোসেন সুজন এই প্রতিবেদককে বলেন, মঙ্গলবার ভোর পৌনে পাঁচটার দিকে কচুয়া উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক হাজরা ইশতিয়াক হোসেন বাহাদুর পরিবহণযোগে ঢাকা থেকে কচুয়ার সাইনবোর্ড এলাকায় নামেন। সেখানে নেমে তিনি ব্যাটারী চালিত ভ্যানযোগে কচুয়ার বাড়িতে ফেরার পথে কাটা বটতলা এলাকায় পৌছলে ৫/৬ জনের একটি সশস্ত্র দুর্বৃত্তের দল তার ভ্যানের গতিরোধ করে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাথাড়ী কুপিয়ে জখম করে পালিয়ে যায়। পরে ওই ভ্যানের চালক রুবেল এবং অন্য দুই যাত্রীর ডাকচিৎকারে স্থানীয় লোকজন এসে ইশতিয়াককে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেলে নিয়ে যায়। সেখানে তার চিকিৎসা চলছে। তার অবস্থা আশংকাজনক।

কচুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রবিউল কবির এই প্রতিবেদককে বলেন, কচুয়া উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক হাজরা ইশতিয়াক হোসেন বাহাদুরকে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে মারাতœক জখম করেছে। তার দুই হাত, দুই পাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম রয়েছে। তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

কি কারনে দুর্বৃত্তরা ইশতিয়াকের উপর হামলা করল তা খতিয়ে দেখতে পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। হামলাকারীদের সনাক্ত করতে পুলিশ কাজ করছে। কচুয়া উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক মনিরুজ্জামান ঝুমুর এই প্রতিবেদককে বলেন, ছাত্রলীগ নেতা ইশতিয়াকের উপর হামলা খবর স্থানীয় নেতাদের মাঝে ছড়িয়ে পড়লে তারা কচুয়ায় জড়ো হয়ে বাজারের সব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এবং অভ্যন্তরীণ সড়কের যান চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে।

হামলার প্রতিবাদে কচুয়ায় সমাবেশ চলছে। ছাত্রলীগ নেতার উপর হামলাকারীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার করা না হলে আরও কঠোর কর্মসূচি দেওয়া হবে। বাগেরহাট জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সরদার নাহিয়ান আল সুলতান ওশান এই প্রতিবেদককে বলেন, কচুয়া উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক হাজরা ইশতিয়াক হোসেন বাহাদুরের উপর যারা হামলা চালিয়েছে তাদের খুঁজে বের করতে হবে। তা নাহলে ছাত্রলীগ কঠোর কর্মসূচি দিতে বাধ্য হব। তাই হামলাকারী সন্ত্রাসীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার করতে পুলিশ প্রশাসনের কাছে দাবী জানান ওই ছাত্রনেতা।

ইমরুল কায়েস/ইএ

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

Leave a Reply

উপরে