আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > বিজ্ঞান প্রযুক্তি > হার্টের সুস্থতায় কফি

হার্টের সুস্থতায় কফি

coffee

প্রতিচ্ছবি লাইফস্টাইল ডেস্ক:

দিনের শুরুতে বা ক্লান্ত-শ্রান্ত দিনের ইতি টানতে এক কাপ কফি যেন যাদুকরী ভূমিকা পালন করে। এই যাদুকরী কফির রয়েছে বেশকিছু উপকারীতা। যা সম্প্রতি এক গবেষণায় ফুটে উঠেছে হার্টের সুস্থতায় কফির উপকারিতার বেশকিছু তথ্য।

বিশ্বব্যাপী অন্যতম একটি জনপ্রিয় পানীয় কফি। মূলত পোড়ানো কফি বীজের গুড়োই কফি নামে পরিচিত।

জ্বালানী তেলের পরে কফি বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম বিক্রিত পণ্য এবং বিশ্বের সর্বাপেক্ষা বেশি পানকৃত পানীয়গুলোর মধ্যে অন্যতম। ১৯৯৮-২০০০ সালের মধ্যে ৬.৭ মিলিয়ন টন কফি উৎপন্ন হয়েছে। সূত্র: ওয়েবসাইট।

বিশ্বের সর্বত্র ব্যাপকভাবে প্রচলিত উত্তেজক পানীয় হিসেবে কফির ব্যাপক পরিচিতি রয়েছে।

দিনের শুরুতে কফি পান করা খুব ভাল অভ্যাস। গবেষকদের মতে, প্রতিদিন ৪ কাপ কফি পান করে আপনি আপনার হার্টকে সুস্থ রাখতে পারেন।

বার্ধক্য রোধে, রক্ত সঞ্চালনসহ প্রভৃতি ক্ষেত্রে ক্যাফেইন (কফির মূল উপাদান) নিয়ে অনেক গবেষণা হয়েছে এবং এ সম্পর্কিত প্রচুর তথ্য উপাত্ত রয়েছে। গবেষকরা ব্যাখ্যা করেছেন হার্টের সুস্থ্যতায় ৪কাপ কফি পান কেন গুরুত্বপূর্ণ।

ক্যাফেইন এবং পি২৭

PLOS Biology জার্নালে গত ২১ জুন, ২০১৮ তে প্রকাশিত একদল জার্মান গবেষকের গবেষণা তথ্য অনুসারে, ক্যাফেইন মাইটোকন্ড্রিয়ায় প্রোটিন পি২৭ এর চলাচল বাড়িয়ে দেয়। এটা হার্টের কোষ গুলো নষ্ট হয়ে যাওয়া থেকে রক্ষা করে এবং এন্ডোথেলিয়াল কোষ মাইগ্রেশনে সহায়তা করে।

মলিকুলার বায়োলজিস্ট জাদিত হেইনডেলার এর নেতৃত্ব জোকিম আলচমাইড ক্যাফেইন নিয়ে ইঁদুর ও মানুষের কোষের উপর ফলাফল বিশ্লেষণ করেছেন। ফলাফলে বেরিয়ে এসেছে, ৪ কাপ কফিতে যে পরিমাণ ক্যাফেইন আছে তা পি২৭ প্রোটিন উপদানটির মাইগ্রেশনকে ত্বরান্বিত করে।

আলচমাইড বিজনেস ইনসাইডারকে বলেন, “যখন আপনি চার থেকে পাঁচ কাপ ইসপ্রেসো কফি পান করবেন, তখন তা আপনার কোষের ‘পাওয়ার হাউজের’ কাজকে উন্নত করার মাধ্যমে আপনাকে রক্ষা করবে।”

মেডিকেল নিউজ ট্যুডে অনুসারে, ক্যাফেইন ডায়েবেটিক পূর্বাবস্থা ও বয়ঃস্কালে মানুষের হার্টকে রক্ষা করে থাকে। পূর্ববর্তী গবেষণা মতে, ক্যাফেইন এন্ডোথেলিয়াল কোষের কাজকে ত্বরান্বিত করে।

হেইনডেলার সায়েন্স ডেইলিকে ব্যাখ্যা করে বলেন “ক্যফেইন কফি কিংবা অন্য খাবার যেখান থেকেই গ্রহণ করা হোক, তা বয়স্ক ব্যক্তিদের হার্টের পেশীকে ধ্বংস হওয়া থেকে রক্ষা করে। মাইটোকন্ড্রিয়ার পি২৭ এর কার্যক্রম ত্বরান্বিত হওয়া শুধুমাত্র হৃদরোগের ক্ষেত্রেই গুরুত্বপূর্ণ নয় তা সুস্বাস্থ্য ধরে রাখার জন্যও জরুরী।”

অন্যদিকে, গবেষকরা অতিরিক্ত কফি গ্রহণ থেকে বিরত থাকতে বলেছেন। কফি ব্যয়াম ও সম্পূরক খাদ্যের বিকল্প নয় এবং অতিরিক্ত কফি গ্রহণ স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর।

বিজনেস ইনসাইডার এর তথ্যমতে, হৃদরোগ বিশেষজ্ঞরা দৈনিক ৬ কাপ পর্যন্ত কফি পান করা নিরাপদ বলে জানান। এর অতিরিক্ত গ্রহণে হৃদ স্পন্দন বেড়ে যাওয়ার সাথে সাথে অনান্য শারীরিক সমস্যা দেখা দিতে পারে।

আলচমাইড বলেন, “ক্যাফেইন রক্তের শিরার বৃদ্ধিতে এবং বেশি পরিমাণ অক্সিজেন সরবরাহ করতে সহায়তা করে, ফলে দিনে ৪ কাপ কফি গ্রহণ ক্যান্সার রোগীদের জন্য সুপারিশকৃত নয়।”

তিনি আরও বলেন, “আপনি যদি সুস্থ হন, তবে এটা আপনার জন্য ক্ষতিকর নয়। ইহা অবশ্যই আপনার হার্ট ও রক্তসংবহনতন্ত্রকে দীর্ঘকাল ভাল রাখবে”।

এজন্যই কি প্রিয়তমার সাথে প্রথম দেখায় হৃদকম্পন নিয়ন্ত্রন করতে এক কাপ কফি দিয়েই শুরু হয় নতুন পথচলা? নাকি বন্ধুর আড্ডায় প্রাণ হিসেবেই সমাদৃত হয় এক কাপ কফি?

জেএস

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

Leave a Reply

উপরে