আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > জাতীয় > ভালবাসায় ভালো থাকুক বাবা’রা

ভালবাসায় ভালো থাকুক বাবা’রা

father's day 2

জোহরা সিজন:

সন্তান বড় করায় তাঁর ভূমিকায় যদিও ঘাটতি নেই। তবে সন্তানের সঙ্গে তার বন্ধনটা মায়ের তুলনায় যেন বরাবরই একটু ফিকে।

শত দিবসের মাঝে অন্যতম সেই মানুষটি কে ভালবাসা জানানোর আনুষ্ঠানিক দিবস আজ। বিশ্বের প্রতিটি সন্তান আজ একটু আলাদা ভাবেই কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছে সেই মানুষটার প্রতি যার জন্য পৃথিবীতে আসা।

father's day 3

বাবা দিবসের সূচনা হয় সনোরা স্মার্ট ডড নামের এক মহিলার হাত ধরে। যিনি বাবা দিবসের স্বীকৃতির জন্য উঠে পড়ে লাগেন। ডড এবং তার ছয় ভাই বোনকে তাদের সিঙ্গেল ফাদার বড় করেন। সিঙ্গেল ফাদার বলতে আসলে বোঝায় যে পুরুষ কোন স্ত্রী বা সঙ্গিনীর সাহায্য ছাড়াই , একমাত্র নিজেই তার সন্তানদের অভিভাবকত্ব বহন করেন। মা দিবসে জাতীয় ছুটির দিন পালন করা থেকেই তাঁর মাথায় বাবা দিবস পালনের পরিকল্পনা আসে। গির্জার এক পুরোহিতের বক্তব্য শুনে তার মনে হয়, তাহলে বাবাদের নিয়েও তো কিছু করা দরকার। তাঁর মতে মা’দের সম্মান জানানোর জন্য যদি বিশেষ দিন প্রয়োজন হয়, তাহলে বাবাদের জন্যও এমন দিন থাকা দরকার। ১৯০৮ সালের ৫ জুলাই যুক্তরাষ্ট্রের পশ্চিম ভার্জিনিয়ার ফেয়ারমন্টের এক গির্জায় এই দিনটি প্রথম পালিত হয়। যদিও ডড ১৯০৯ সালে ভার্জিনিয়ার বাবা দিবসের কথা একেবারেই জানতেন সম্পূর্ণ নিজ উদ্যোগেই পরের বছর, অর্থাৎ ১৯১০ সালের ১৯ জুন থেকে বাবা দিবস পালন করা শুরু করেন।

Sonora Smart Dodd

তবে ওই সময় বাবা দিবস বেশ টানাপোড়েনের মধ্য দিয়েই পালিত হতো! আসলে মা দিবস নিয়ে মানুষ যতটা উৎসাহ দেখাতো, বাবা দিবসে মোটেও তেমনটা দেখাতো না, বরং বাবা দিবসের বিষয়টি তাদের কাছে বেশ হাস্যকরই ছিল।

ধীরে ধীরে অবস্থা পাল্টায়। ১৯১৩ সালে যুক্তরাষ্ট্রের সিনেটে বাবা দিবসকে ছুটির দিন ঘোষণা করার জন্য একটা বিল উত্থাপন করা হয়। ১৯২৪ সালে তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ক্যালভিন কুলিজ বিলটিতে পূর্ণ সমর্থন দেন। অবশেষে ১৯৬৬ সালে প্রেসিডেন্ট লিন্ডন বি. জনসন বাবা দিবসকে ছুটির দিন হিসেবে ঘোষণা করেন। বিশ্বের বেশিরভাগ দেশে জুন মাসের তৃতীয় রোববার বাবা দিবস পালিত হয়ে থাকে।

জেএস

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

Leave a Reply

উপরে