আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > ঢাকা > গ্লোবাল রানিং ডে’তে ঢাকা-চট্টগ্রামে ‘সচেতনতা রান’ অনুষ্ঠিত

গ্লোবাল রানিং ডে’তে ঢাকা-চট্টগ্রামে ‘সচেতনতা রান’ অনুষ্ঠিত

গ্লোবাল রানিং ডে’তে ঢাকা-চট্টগ্রামে ‘সচেতনতা রান’ অনুষ্ঠিত

প্রতিচ্ছবি প্রতিবেদক:

বাংলাদেশে গ্লোবাল রানিং ডে উদযাপন করেছে ‘দ্য গ্রেট বাংলাদেশ রান’। গ্লোবাল রানিং ডে উদযাপন উপলক্ষে ‘দ্য গ্রেট বাংলাদেশ রান (টিজিবিআর)’ গত ৬ জুন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস এবং চট্টগ্রামে একইসাথে এক সচেতনতা রান এর আয়োজন করে।

উল্লেখ্য, টিজিবিআর বাংলাদেশের একটি বৃহৎ রানিং প্লাটফর্ম, যারা দ্বিতীয় বছরের মত বাংলাদেশে গ্লোবাল রানিং ডে উদযাপন করল। মঙ্গলবার ইফতারের পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের ব্রিটিশ কাউন্সিলের সামনে থেকে শুরু হওয়া ৫ কিলোমিটারের এ রানে ১৩০ জনেরও বেশি রানার অংশগ্রহণ করে।

উল্লেখ্য, ’দ্য গ্রেট বাংলাদেশ রান (টিজিবিআর)’কে www.globalrunningday.org গ্লোবাল সহযোগী হিসেবে তাদের ওয়েবসাইটে স্বীকৃতি দিয়েছে। এছাড়াও যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়াভিত্তিক রানিং কমিউনিটি ‘রানারস কানেক্ট’ দিবসটি উপলক্ষে টিজিবিআর-এর মোহাম্মদ সামসুজ্জামান আরাফাতের একটি সাক্ষাতকার প্রচার করেছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপাচার্য অধ্যাপক ড. আআমস আরেফিন সিদ্দিক রান শেষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে রানারদের মাঝে পদক বিতরণ করেন। এসময় ইভেন্টের হসপিটালিটি পার্টনার আল কাদেরিয়া লিমিটেডের চেয়ারম্যান জনাব ফিরোজ আলম সুমন বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক ড. আআমস আরেফিন সিদ্দিক বলেন যে, রানের মাধ্যমে শরীর সচল ও সক্রিয় রেখে দীর্ঘায়ু লাভ করা সম্ভব। আশার কথা যে, বাংলাদেশে এ বিষয়ে দিন দিন সচেতনতা বৃদ্ধি পাচ্ছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

মাদকমুক্ত সমাজ গঠনে যুবসমাজকে রানিংয়ের প্রতি আগ্রহী করে তোলার এরকম একটা প্রচেষ্টার পাশাপাশি থাকতে পেরে তিনি আনন্দিত বলে ড. সিদ্দিক উল্লেখ করেন। তিনি আরও বলেন, টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যে এগিয়ে যেতে হলে সুস্থ থাকার কোন বিকল্প নেই।

গতকাল অনুষ্ঠিত রানের ঢাকায় সহযোগী হিসেবে ছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় রানারস, কম্পাস ৩৬০ ডিগ্রী এ্যাডভেঞ্চার ও উডপেকার। ইভেন্টটি কভার করে রেডিও স্টেশন জাগো এফএম ৯৪.৪। চট্টগ্রামে সহযোগী হিসেবে ছিল সাইক্লিং কমিউনিটি এফ এন এফ রাইডারস ও চট্টলা রানারস।

উল্লেখ্য যে, টেকসই উন্নয়নের তিন নম্বর লক্ষ্যমাত্রা “Good Health and Wellbeing” কে সমর্থন করে ‘দ্য গ্রেট বাংলাদেশ রান’ Run For Healthy Bangladesh প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে সারা দেশে রানিং প্রোমোট করছে, যার উদ্দেশ্য মাদকমুক্ত স্বাস্থ্য সচেতন একটি বাংলাদেশ।

সমগ্র বাংলাদেশে স্বাস্থ্য সচেতনতা বৃদ্ধি করা, মাদকমুক্ত সমাজ গঠনে উদ্বুদ্ধ করতে এবং একইসাথে দেশের মানুষকে ম্যারাথন দৌড়ের প্রতি আগ্রহী করার লক্ষ্যে টিজিবিআর টেকনাফ থেকে তেতুলিয়া দৌড় আয়োজন করেছিল যা মোহাম্মদ সামছুজ্জামান আরাফাত বাংলাদেশে প্রথম ও একমাত্র ব্যক্তি হিসেবে এই ১০০৪ কিমি পথ অতিক্তম করেন।

এছাড়াও টিজিবিআর দেশের আনাচে কানাচে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে ৬৪টি জেলায় আলাদা আলাদা রানিং ইভেন্ট শুরু করেছে। ইতোমধ্যে ৫ টি জেলায় (রাঙ্গামাটি, ময়মনসিংহ, গাজীপুর, ঢাকা, কুমিল্লা) ১০ কিমি দৌড় আয়োজন সম্পন্ন করেছে।

এছাড়াও টিজিবিআর ডায়াবেটিস নিয়ে সচেতনতার লক্ষ্যে ডায়াবেটিস ডে রান, বন্যায় দুর্গতদের সাহায্য করার জন্য চ্যারিটি রান এবং শিশুদের জন্য কিডস রান আয়োজন করেছে। এই সামাজিক সচেতনতা বজায় রাখার জন্য প্রতিষ্ঠানটি এবং তাদের পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান̧গুলো নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

এআর

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

Leave a Reply

উপরে