আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > খেলাধুলা > ইফতারের জন্য গোলরক্ষকের ইনজুরির ‘অভিনয়’!

ইফতারের জন্য গোলরক্ষকের ইনজুরির ‘অভিনয়’!

ইফতারের জন্য গোলরক্ষকের ইনজুরির 'অভিনয়' [১]

প্রতিচ্ছবি স্পোর্টস ডেস্ক:

আর মাত্র কয়েকদিন পরই শুরু হচ্ছে ফুটবল বিশ্বকাপ। ‘দ্যা গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ’ নিজেদের সেরাটা দেয়ার জন্য শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতিতে ব্যস্ত রাশিয়ার টিকিট পাওয়া ৩২ দল। এদের মধ্যে আছে তিউনিসিয়াও। মুসলিম প্রধান দেশটির ফুটবলারদের অনেকেই রমজানের রোজা রেখে খেলতে নামছেন প্রস্তুতি ম্যাচে। অনেক সময় খেলার মাঝখানেই হয়ে যাচ্ছে ইফতারের সময়।

ইফতারের জন্য গোলরক্ষকের ইনজুরির 'অভিনয়' [২]

তাই সতীর্থদের ইফতারের সুযোগ করে দিতে তিউনিসিয়ার গোলরক্ষক মৌজ হাসান ইনজুরির অভিনয় করলেন। সেসময় চিকিৎসাকর্মীরা মাঠে ছুটে যান। কিছু সময় বন্ধ থাকে খেলা।

এই সুযোগে সতীর্থরা সাইড লাইনে গিয়ে ইফতার সেরে নেন পানি আর খেজুর দিয়ে। একজন খেলোয়াড় তা পৌঁছে দেন হাসেনের কাছেও।

এমন দৃশ্য পর পর দুটি প্রস্তুতি ম্যাচে দেখা গেছে। পর্তুগাল ও তুরস্কের বিপক্ষে একই কাজ করেছেন মৌজা হাসান। গত শনিবার তুরস্কের বিপক্ষে দ্বিতীয়ার্ধে গোলবারের সামনে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন তিনি। সপ্তাহ খানেক আগে পর্তুগালের বিপক্ষেও করেছিলেন এমনটা।

ইফতারের জন্য গোলরক্ষকের ইনজুরির 'অভিনয়' [৩]

পর্তুগালের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে ২-১ গোলে পিছিয়ে ছিল তিউনিসিয়া। দ্বিতীয়ার্ধ্বের খেলা শুরু হওয়ার পর ম্যাচের ৫৮তম মিনিটে আহত হন হাসেন। এতে করে দলের খেলোয়াড়রা মাঠের পাশে গিয়ে ইফতার করেন। পানি পান ও খেজুর দিয়ে দ্রুত ইফতার সেরে উত্তর আফ্রিকার দেশটির খেলোয়াড়রা মাঠে নামেন। ছয় মিনিটের মাথায় ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নদের জালে বল ঢুকিয়ে খেলায় সমতা আনে তারা। পরের আধাঘণ্টা আর কোনও গোল না হওয়ায় খেলা ড্র হয় ২-২ গোলে।

শনিবার তুরস্কের বিরুদ্ধে খেলার ৪৯ মিনিটে আবারও মাঠে শুয়ে পড়েন গোলরক্ষক হাসেন। সঙ্গে সঙ্গেই দলের ফুটবলাররা ছুটে যান টাচ লাইনের দিকে। সেখানেও আগের ম্যাচের মতো ইফতার করেন। এই প্রীতিম্যাচটিও ২-২ গোলে ড্র হয়।

বিশ্বকাপের বাছাই পর্বে অপরাজিত তিউনিসিয়া ১২ বছরের মধ্যে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ খেলবে এবার। ১৮ জুন ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম বিশ্বকাপ ম্যাচ খেলতে নামবে দেশটি। তখন অবশ্য রমজান মাস শেষ যাবে।

এসএম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

Leave a Reply

উপরে