আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > আন্তর্জাতিক > আয়ারল্যান্ডে বৈধতা পেল গর্ভপাত

আয়ারল্যান্ডে বৈধতা পেল গর্ভপাত

ireland abortion protest 2

প্রতিচ্ছবি আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

৩৫ বছর পর গর্ভপাতের অধিকার পেতে যাচ্ছে আয়ারল্যান্ডের নারীরা। সমকামীতার পর এবার গর্ভপাতকে বৈধতা দিল আয়ারল্যান্ড।

শনিবার এক গণভোটে ইউরোপের অত্যন্ত সংরক্ষণশীল এই দেশটির জনগণ গর্ভপাত বৈধ করার পক্ষে ভোট দেন।

গর্ভপাতের কঠোর আইনের পক্ষে-বিপক্ষে দেয়া গণভোটে মোট ৬৬.৪০ শতাংশ আইরিশ ভোট দেয়। এর মধ্যে গর্ভপাতকে আইনি স্বীকৃতি দেওয়ার পক্ষে ভোট দেন ৬৪.৫১ শতাংশ ভোটার।

শনিবারের গণভোটটিতে প্রতি তিন জন ভোটারের মধ্যে দুজন গর্ভপাতের পক্ষে ভোট দিয়েছেন। এই বছরের মধ্যেই গর্ভপাত বিষয়ক আইনে পরিবর্তন আনবে সরকার।

দেশটির প্রধানমন্ত্রী লিও ভারাদকার বলেন, ‘তাদের স্বাধীনতা অনুযায়ী স্বাস্থ্যসেবা বেছে নেয়ার পক্ষে ভোট দিয়েছেন জনগণ’।

উল্লেখ্য, আয়ারল্যান্ডে ১৯৮৩ সালের এক আইন অনুযায়ী গর্ভপাত নিষিদ্ধ করা হয়। দেশটির সংবিধানে আনা অষ্টম সংশোধনীতে গর্ভপাতের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়। শুধু গর্ভবতীর জীবনের ঝুঁকি ছাড়া কোন গর্ভপাত করানো হলে ১৪ বছরের কারাদণ্ড রাখা হয় ঐ আইনে। তবে দেশটির নারীদের একটি বড় অংশই বিগত কয়েক বছর যাবত এই আইনের সংশোধনের দাবি জানিয়ে আসছিল। এর প্রেক্ষিতে দেশটির সংবিধান পরিবর্তনের জন্য গতকাল শুক্রবার এক গণভোটের আয়োজন করা হয় দেশটিতে।

কয়েক দশক ধরে প্রতি বছর গর্ভপাত বিরোধী আইনের কারণে ৩ হাজারেরও বেশি আইরিশ নারীকে গর্ভপাতের জন্য যুক্তরাজ্যে ভ্রমণ করতে হতো। অনেকে চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়াই অনলাইনে অবৈধ উপায়ে ঔষুধ এনে তা খেয়ে গর্ভপাত করতো। গর্ভপাতের সমর্থকরা বলেন, আয়ারল্যান্ডে গর্ভপাত ইতিমধ্যেই চলছিল।

সম্প্রতি দেশটিতে গর্ভপাতের পক্ষে নারীদের আন্দোলন শুরু হয়। তারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গর্ভপাত নিয়ে তাদের কষ্টকর অভিজ্ঞতা শেয়ার করেন। পুরো দেশের ৪০টি নির্বাচনী আসনের মধ্যে ৩৯টিতেই গর্ভপাতের পক্ষে ভোটদানকারীরা জয়ী হয়েছে। গণভোটটিতে ভোটার উপস্থিতি ছিল ৬ শতাংশ। দেশটির ইতিহাসে কোন গণভোটে এটাই সর্বোচ্চ ভোটার উপস্থিতির ঘটনা।

এসএইচ/ জেএস

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

Leave a Reply

উপরে