আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > আন্তর্জাতিক > কয়েদিদের ইফতারে শূকরের মাংস!

কয়েদিদের ইফতারে শূকরের মাংস!

কয়েদি

প্রতিচ্ছবি আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

পবিত্র রমজান মাসেও মুসলমান কয়েদিদের ওপর নির্যাতন থেমে নেই। যুক্তরাষ্ট্রের আলাস্কার একটি কারাগারে মুসলিম কয়েদিদের ইফতারে সরবরাহ করা হচ্ছে শুকরের মাংস। দেশটির মানবাধিকার কর্মীরা এরকমই অভিযোগ তুলেছেন।

দ্য কাউন্সিল অন আমেরিকান-ইসলামিক রিলেশন্স (সিএআইআর) মঙ্গলবার অ্যানকোরেজ কারেকশনাল কমপ্লেক্সের বিরুদ্ধে মামলাও দায়ের করেছেন। পরে মুসলিম বন্দিদের এ ধরনের খাবার সরবরাহ না করতে নিষেধাজ্ঞা জারি করে বৃহস্পতিবার একটি আদেশ দেন আদালত। খবর বার্তা সংস্থা এএফপি’র।

ওই মামলায় বলা হয়েছে, ‘নিষ্ঠুর ও অস্বাভাবিক শাস্তির’ ব্যাপারে সাংবিধানিক যে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে কারা কর্তৃপক্ষ তা লঙ্ঘন করেছে।

সিএআইআর বলছে, আলাস্কা আদালত আমাদের আবেদনটি মঞ্জুর করে এ বিষয়ে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে এবং সরকারপ্রণীত স্বাস্থ্যনির্দেশিকা অনুযায়ী বন্দীদের পর্যাপ্ত খাবার সরবরাহ করতে কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন।

ওয়াশিংটনভিত্তিক এই প্রতিষ্ঠানটি এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর আমেরিকান মুসলিম ও অন্যান্য সংখ্যালঘু গ্রুপ গোঁড়ামির শিকার হচ্ছে বলে সিএআইআর জানতে পেরেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের অ্যানকোরেজের মুসলমানরা প্রায় ১৮ ঘণ্টা ধরে রোজা পালন করছেন।

এএফপি’র প্রতিবেদনে বলা হয়, রোজা পালনের সময় একজন ব্যক্তির দৈনিক আড়াই হাজার ক্যালরির দরকার হয়, সেখানে মুসলমান বন্দীদের যে ধরনের খাবার দেয়া হয় তা থেকে এক হাজার ১০০ ক্যালরি পাওয়া যায়।

এছাড়া বন্দীর যে খাবারের প্যাকেট সরবরাহ করা হয় ওই খাবার শুকরের মাংস দিয়ে প্রস্তুত করা। অথচ শুকরের মাংসকে ইসলামে নিষিদ্ধ। তবে এ বিষয়ে প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি। গত ১৬ মে থেকে যুক্তরাষ্ট্রে রমজান শুরু হয়েছে। শেষ হবে আগামী ১৫ জুন।

এসএম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

Leave a Reply

উপরে