আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > অপরাধ > বেনাপোলে হুন্ডি পাচারকারীর অন্তর্বাসে মিললো ৬ লাখ রুপি

বেনাপোলে হুন্ডি পাচারকারীর অন্তর্বাসে মিললো ৬ লাখ রুপি

বেনাপোলে হুন্ডি পাচারকারীর অন্তর্বাসে মিললো ৬ লাখ রুপি

প্রতিচ্ছবি খুলনা প্রতিনিধি:

বেনাপোলে ইজিবাইকের এক যাত্রীর কাছ থেকে হুন্ডির ছয় লাখ ভারতীয় রুপি উদ্ধার করেছে। বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। বুধবার (১৬ মে) সকালে বেনাপোল বন্দর থানার গাতিপাড়া এলাকা থেকে ওই রুপি উদ্ধার করা হয়। এ সময় হুন্ডির রুপি পাচারকারী আবদুস সামাদকে (২০) আটক করে বিজিবি।

আটক আবদুস সামাদ বেনাপোল বন্দর থানার গঁয়ড়া গ্রামের হবিবার রহমানের ছেলে।

বিজিবি জানায়, সকালে হুন্ডির রুপি পাচারকারী আবদুস সামাদ ভারতীয় সীমান্ত পার হয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেন। এরপরে তিনি ইজিবাইকে করে বেনাপোলের দিকে রওনা হন। সকাল ছয়টার দিকে তাঁকে বহনকারী ইজিবাইকটি গাতিপাড়া এলাকার আবু শ্যামার মোড়ে পৌঁছায়।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এ সময় ইজিবাইকটি থামানোর নির্দেশ দেয় বিজিবি। ইজিবাইক থামার একপর্যায়ে আবদুস সামাদ ইজিবাইক থেকে নেমে দৌড় দেন। এ সময় পিছু ধাওয়া করে কিছুটা দূরে গিয়ে তাঁকে ধরা হয়। তাঁর পরনে প্যান্ট এবং কোমরে গামছা বাঁধা ছিল। এরপর তাঁর শরীর তল্লাশি করে অন্তর্বাসের ভেতরে তিনটি বান্ডিল পাওয়া যায়। বান্ডিলগুলো কাগজের ওপর খাকি রঙের স্কচটেপ দিয়ে মোড়ানো ছিল। তিনটি বান্ডিলের মধ্যে ৩০০টি ২০০০ ভারতীয় রুপির নোট পাওয়া যায়। উদ্ধার করা মোট রুপির পরিমাণ ছয় লাখ।

বিজিবি বেনাপোল সদর ক্যাম্পের কমান্ডার মো. মনিরুজ্জামান খান বলেন, অন্তর্বাসের ভেতরে রেখে বহন করার সময় হুন্ডির ছয় লাখ ভারতীয় রুপিসহ আবদুস সামাদকে আটক করা হয়েছে। তিনি একজন হুন্ডি পাচারকারী। তাঁর বিরুদ্ধে অর্থ পাচার আইনে বেনাপোল বন্দর থানায় মামলা হয়েছে। তাঁকে থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।

উদ্ধার করা ভারতীয় রুপি থানায় জমা দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

 

সাজেদুর রহমান/এআর

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

Leave a Reply

উপরে