আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > অর্থ-বাণিজ্য > পদ্মা সেতু: ১৩ হাজার কোটির প্রকল্পে বরাদ্দ তিন হাজার কোটি

পদ্মা সেতু: ১৩ হাজার কোটির প্রকল্পে বরাদ্দ তিন হাজার কোটি

পদ্মা সেতু: ১৩ হাজার কোটির প্রকল্পে বরাদ্দ তিন হাজার কোটি

প্রতিচ্ছবি প্রতিবেদক:

বর্তমান সরকারের অন্যতম প্রধান প্রকল্প বহুল আলোচিত পদ্মা বহুমুখী সেতুর নির্মাণকাজ আগামী ডিসেম্বর মাসে শেষ হওয়ার কথা থাকলেও নির্ধারিত সময়ে শেষ হচ্ছে না কাজ। জানা গেছে, পর্যাপ্ত বরাদ্দ না পেলে সঠিক সময়ে পদ্মা সেতু নির্মাণ সম্ভব হবে না।

সরকারের পক্ষ থেকে বারবার বলা হয়েছে, নির্ধারিত সময়ে সেতুর কাজ শেষ হবে। কিন্তু বাস্তবতা হলো, আগামী ডিসেম্বর মাসের মধ্যে এই সেতুর কাজ শেষ হওয়ার সুযোগ নেই। সরকার সেতুটির কাজ শেষ করার জন্য পর্যাপ্ত বরাদ্দ রাখেনি।

বৃহস্পতিবার পাস হওয়া আগামী অর্থবছরের এডিপিতে পদ্মা সেতুর জন্য মাত্র ৩ হাজার ৩৯৫ কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এ বছর প্রকল্পটি শেষ করতে হলে বরাদ্দ দরকার ১৩ হাজার ৭৬৫ কোটি টাকা। শুধু পদ্মা সেতু নয়, পুরো সেতু বিভাগের জন্য বরাদ্দ আছে ৯ হাজার ১১২ কোটি টাকা।

গত ফেব্রুয়ারি মাস পর্যন্ত পদ্মা সেতু প্রকল্পের ৫৩ শতাংশ খরচ হয়েছে। টাকার অঙ্কে এর পরিমাণ ১৫ হাজার ২৮ কোটি টাকা। পদ্মা সেতুর সুপার স্ট্রাকচার বা স্প্যান বসানো শুরু হয়েছে মাত্র। পুরো প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ২৮ হাজার ৭৯৩ কোটি টাকা।

অন্যদিকে এডিপির বই ঘেঁটে দেখা গেছে, আগামী অর্থবছরে ৪৪৬টি প্রকল্প শেষ করার জন্য ঠিক করা হয়েছে। সেই তালিকায় পদ্মা সেতু প্রকল্পটি নেই। এর মানে হলো, নির্ধারিত সময়ে প্রকল্পটি শেষ করার পরিকল্পনাও সরকারের নেই।

পাস হওয়া এডিপি সম্পর্কে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল সাংবাদিকদের বলেন, ‘কোনো প্রকল্পে কাজ হয়ে গেলেও আমরা ঠিকাদারদের বিল পরিশোধ করি না। পদ্মা সেতুর জন্য বরাদ্দকৃত টাকা খরচ হয়ে গেলেও বাড়তি বরাদ্দ দেওয়ার সুযোগ আছে।’

নির্ধারিত সময়ে পদ্মা শেষ হবে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি শুধু বলেন, এডিপির বইয়ে যেভাবে বলা আছে, সেভাবে শেষ হবে। নতুন এডিপি বই অনুযায়ী, ২০১৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর পদ্মা সেতু নির্মাণের কাজ শেষ হবে।

এআর

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

Leave a Reply

উপরে