আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > অপরাধ > টাকা লেনদেনের জেরে ব্যবসায়ীকে খুন, আটক ১

টাকা লেনদেনের জেরে ব্যবসায়ীকে খুন, আটক ১

হাজি শহিব উদ্দিন

প্রতিচ্ছবি সিলেট প্রতিনিধি:

দেড় কোটি টাকা লেনদেনের জের ধরেই খুন হন সিলেটের বিয়ানীবাজারের ব্যবসায়ী হাজি শহিব উদ্দিন। যুক্তরাষ্ট্র যাওয়ার জন্য জাকির হোসেন গংদের পর্যায়ক্রমে দেড় কোটি টাকা দিয়েছিলেন শহিব উদ্দিন। এরই জের ধরে তাকে ডেকে নিয়ে খুন করা হয়।

শনিবার (২৮ এপ্রিল) ভোরে হত্যার ঘটনায় জড়িত জাকির হোসেনকে বিয়ানীবাজারের বৈরাগিবাজার এলাকা থেকে আটক করে পুলিশ। আটককালে মরদেহ বহন করা প্রাইভেটকার রক্তমাখা অবস্থায় উদ্ধার করে বিয়ানীবাজার থানা পুলিশ।

আটক জাকির হোসেন সিলেটের আখালিঘাট এলাকার সামসুদ্দিনের ছেলে।

বিয়ানীবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাহজালাল মুন্সি বলেন, খুনের ঘটনার পর জাকিরকে আটক করা হয়েছে। অন্যদের আটকের চেষ্টা চলছে। তার কাছ থেকে রক্তমাখা অবস্থায় মরদেহ বহনকারী গাড়িটি জব্দ করা হয়।

তিনি বলেন, প্রায় দেড় বছর আগে স্বপরিবারে আমেরিকা যাওয়ার জন্য পর্যায়ক্রমে আটক জাকিরসহ অন্যদের দেড় কোটি টাকা দিয়েছিলেন ব্যবসায়ী শহিব। কিন্তু আমেরিকা নেওয়ার জন্য তারা কালক্ষেপণ করে। ওখানে বাড়ি ভাড়া নেওয়া হচ্ছে, প্রসেসিং চলছে-এরকম অংখ্য মিথ্যা কথা বলে বুঝ দিতে থাকে। টাকা ফেরত দেওয়ার নাম করে বৃহস্পতিবার (২৬ এপ্রিল) সন্ধ্যা রাতে ব্যবসায়ী হাজি শহিব উদ্দিনকে খবর দিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। অন্য এলাকায় হত্যার পর মরদেহ বহন করে সিলেট-বিয়ানীবাজার সড়কের গাছতলা এলাকায় রাস্তা সংলগ্ন ঝোপে ফেলে রেখে যায় হত্যাকারীরা। তবে, হত্যাকাণ্ডে বেশ কয়েকজন জড়িত থাকলেও তদন্ত ও গ্রেফতারের স্বার্থে অন্যদের নাম প্রকাশ করা হয়নি বলেন এই পুলিশ কর্মকর্তা।

এ ঘটনায় এখনো থানায় এজাহার দাখিল করা হয়নি, বলেন তিনি।

শুক্রবার (২৭ এপ্রিল) সকালে বিয়ানিবাজার-সিলেট সড়কে উপজেলার গাছতলা এলাকা থেকে থেকে গলা কাটা অবস্থায় বিয়ানীবাজার পৌর সদরের আবরণী ক্লথ স্টোরের স্বত্বাধিকারী হাজি শহিব উদ্দিনের (৬০) মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। তার গ্রামের বাড়ি বড়লেখা উপজেলার ইটাউরী গ্রামে। বর্তমানে তিনি স্থায়ীভাবে বিয়ানীবাজার পৌরসভার সুপাতলা গ্রামে বসবাস করতেন।

আর এইচ

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

Leave a Reply

উপরে