আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > বিনোদন-সংস্কৃতি > ইমরানের নতুন সারপ্রাইজ ইমরান’স লাইভ

ইমরানের নতুন সারপ্রাইজ ইমরান’স লাইভ

সংগীতশিল্পী ইমরান

প্রতিচ্ছবি বিনোদন প্রতিবেদক:

দেশের অন্যতম বেসরকারি রেডিও স্টেশন রেডিও টুডেতে জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী ইমরানকে নিয়ে শুরু হচ্ছে নতুন অনুষ্ঠান, নাম ‘ইমরান’স লাইভ’। শনিবার ইমরান জানান, মে মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকে প্রতি শুক্রবার রাতে প্রচারিত হবে অনুষ্ঠানটি।

ইমরান বললেন, ‘এবারই প্রথম আমার ভক্ত আর শ্রোতারা এ ধরনের অনুষ্ঠানে আমাকে পাচ্ছেন। কিছুটা নতুনত্ব থাকছে। আর অনুষ্ঠানে কী থাকছে, তা অনুষ্ঠানটি শুনতে শুনতে সবাই বুঝতে পারবেন।

এফএম রেডিও নিয়ে ইমরান বলেন, ‘গাড়িতে রেডিও শোনা হয়। ঢাকা শহরে পথে যখন যানজটে আটকে থাকি, তখন শুনি। গানের জগতে আমার শুরুর দিকে ২০০৭ সালে কানে হেডফোন লাগিয়ে এফএম শুনতাম। ওই সময় বিভিন্ন এফএম রেডিওর কয়েকটি অনুষ্ঠান আমার পছন্দের তালিকায় জায়গা করে নেয়।’

‘ইমরান’স লাইভ’ অনুষ্ঠানের বিশেষ পর্বে থাকবে ‘মিট উইথ ইমরান’। এখানে সপ্তাহব্যাপী অনুষ্ঠিত কুইজে বিজয়ী পাবেন ইমরানের সঙ্গে সরাসরি অন-এয়ারে আড্ডা দেওয়ার সুযোগ।

‘ইমরান’স লাইভ’ অনুষ্ঠান নিয়ে কিছু ধারণা দিয়ে ইমরান বললেন, ‘আমার গাওয়া গানের পাশাপাশি আমার পছন্দের গানও শুনতে পাবেন শ্রোতারা। এ ছাড়া নতুন প্রজন্মের শিল্পীদের এই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হবে। গানের জগতের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলব। এটা আমার গানের জগতের ভ্রমণ বলতে পারেন।’

এই শো’র বিশেষত্ব সম্পর্কে ইমরান বলেন, ‘এবারই প্রথম আমি এফএম রেডিওর আরজে হয়ে আসছি। এর আগে এভাবে কেউ আমাকে পায়নি। এটা অন্য রকম ব্যাপার হতে পারে। আমার মনে হয়, শ্রোতা আর ভক্ত যাঁরা আছেন, তাঁরা প্রতি শুক্রবার রাত ১১টা থেকে আমার জন্য অপেক্ষা করবেন। অনুষ্ঠান শুরু হওয়ার পর তাঁদের মনে হবে, আমার সঙ্গে তাঁরা আড্ডা দিচ্ছেন। সেভাবেই কিছু হবে।’

গানের জগতে ইমরানের পথচলা এক দশকের। ২০০৮ সালের ‘চ্যানেল আই সেরা কণ্ঠ’ প্রতিযোগিতা তাঁকে দেশবাসীর সামনে তুলে ধরে। সেই থেকে পথচলা। শুরুটা ধীরে হলেও এখন তাঁকে দুরন্ত গতিতে ছুটতে হচ্ছে। গত দুই বছরে তাঁর ব্যস্ততা বেড়েছে কয়েক গুণ। দেশের আনাচে কানাচে গান গেয়ে দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন। দেশের বাইরে প্রবাসী বাঙালিদের মাঝেও রয়েছে তাঁর চাহিদা।

তবে গানের ব্যস্ততা শুরু হয় ২০১২ সালে।

ইমরান বলেন, ‘এক দশকে অনেক গানই করেছি। তবে “তুমি দূরে দূরে থেকো না” গানটি প্রথম অনেকের মুখে শুনতে পাই। আর আমার জীবনে সবচেয়ে বড় পরিবর্তন এনে দিয়েছে ‘বলতে বলতে চলতে চলতে’। দারুণ জনপ্রিয় এই গান আমাকে একধাপ এগিয়ে দিয়েছে। আর চলচ্চিত্রে “সম্রাট” ছবির ‘সারা রাত ভোর’ এবং পরে “বসগিরি” ছবির ‘দিল দিল দিল’ গানটি আমার পথচলা মসৃণ করেছে।’

এআর

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

Leave a Reply

উপরে