আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > ক্যাম্পাস > মতিয়া চৌধুরী ক্ষমা না চাইলে সারা দেশে অবরোধ

মতিয়া চৌধুরী ক্ষমা না চাইলে সারা দেশে অবরোধ

সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ

প্রতিচ্ছবি প্রতিবেদক:

কোটা সংস্কার আন্দোলনে অংশ নেয়া মেধাবী ছাত্রদেরকে জাতীয় সংসদে `রাজাকারের বাচ্চা` বলে গালি দেওয়া বক্তব্য আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী আজ বিকাল ৫ টার মধ্যে প্রত্যাহার করতে হবে। না করলে আজ বিকেলে সারা দেশে ফের অবরোধ কর্মসূচি পালন করবে সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ।

মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন উক্ত পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক রাশেদ খান। একই সঙ্গে আগামী ৭ মের মধ্যে দাবি না মানলে ফের অবরোধ কর্মসূচি দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

গতকাল সোমবার সংসদে মতিয়া চৌধুরী বলেন, ‘পরিষ্কার বলতে চাই, মুক্তিযুদ্ধ করেছি, মুক্তিযুদ্ধ চলছে, চলবে। এই রাজাকারের বাচ্চাদের অবশ্যই আমরা দেখে নেব।’

কৃষিমন্ত্রী আরো বলেন, ‘সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের নামে সাধারণ ছাত্রদের ব্যবহার করে পরিকল্পিতভাবে গতকাল এই নৈরাজ্যকর পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছে। এরা ১৯৭১ সালের ১৪ ডিসেম্বরের বুদ্ধিজীবী হত্যাকারীদের উত্তরসূরি।’

এর প্রতিক্রিয়ায় রাশেদ খান আলটিমেটাম দিয়ে বলেন, ‘আজ বিকেল ৫টার মধ্যে মতিয়া চৌধুরী ক্ষমা এবং বক্তব্য প্রত্যাহার না করলে আমরা সারা দেশে অবরোধ কর্মসূচি পালন করব।’

ওদিকে ভিসির বাসভবনে হামলাকারীরা ‘বহিরাগত’ বলে দাবি করেন রাশেদ খান। তিনি বলেন, ‘এ ঘটনায় আমরা তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেউ নয়।’ তিনি হামলাকারী পুলিশের শাস্তি ও ক্ষতিপূরণের দাবি জানান।

এছাড়া নতুন কমিটিকে অসৎ ও ছদ্মবেশী দাবি করে রাশেদ বলেন, ‘যারা নতুন কমিটি করেছে, তারা স্বার্থ হাসিলের জন্যই এ কমিটি করেছে। আমাদের ব্যানার ছাড়া কেউ যদি অন্য ব্যানারে আন্দোলন করে, তাদের আমরা প্রতিহত করব।’

সরকারি চাকরিতে সাম্য আনয়নের দাবিতে গত রোববার রাজধানীর শাহবাগে বিক্ষোভ শুরু করে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এ বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে ঢাকার বাইরে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়েও। সর্বশেষ সরকারের আশ্বাসে মে মাসের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত আন্দোলন স্থগিত করেন আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। কিন্তু সরকারদলীয় সাংসদদের এহেন বিদ্বেষী অবস্থানে দ্রুত আস্থা হারাচ্ছেন তারা।

এসএম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

Leave a Reply

উপরে