আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > ক্যাম্পাস > প্রযুক্তি ব্যবহারে সবাইকে সজাগ থাকতে হবে: রাষ্ট্রপতি

প্রযুক্তি ব্যবহারে সবাইকে সজাগ থাকতে হবে: রাষ্ট্রপতি

প্রতিচ্ছবি প্রতিবেদক:

প্রযুক্তি ব্যবহারের ক্ষেত্রে সবাইকে সচেতন থাকার আহ্বান জানিয়ে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, ‘এখন সবাই মোবাইল ফোন নিয়ে ব্যস্ত। এ কারণে পারিবারিক বন্ধন দুর্বল হচ্ছে। প্রযুক্তি উন্নয়নের সহায়ক। তবে এই প্রযুক্তি যেন সর্বনাশের কারণ না হয় সেদিকে সবাইকে সজাগ থাকতে হবে।’

বুধবার খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুয়েট) তৃতীয় সমাবর্তন অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে রাষ্ট্রপতি এ কথা বলেন।

রাষ্ট্রপতি বলেন, প্রযুক্তি উন্নয়নের সহায়ক। তবে এই প্রযুক্তি যেন সর্বনাশের কারণ না হয় সেদিকে সজাগ থাকতে হবে।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, একটা কথা পরিষ্কারভাবে মনে রাখতে হবে, পারিবারিক বন্ধন দুর্বল হওয়ার জন্য প্রযুক্তি বা মোবাইল ফোন কোনোভাবেই দায়ী নয় বরং এর দায়দায়িত্ব ব্যবহারকারীর। আমাদের ইতিবাচক পরিবর্তন ও মানবতার কল্যাণে কাজে লাগানোর মধ্যেই প্রযুক্তির সার্থকতা নিহিত।

সমাবর্তন বক্তা ছিলেন বিশিষ্ট বিজ্ঞানী ও বরেণ্য শিক্ষাবিদ প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলী আসগর। বিশেষ অতিথি ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান প্রফেসর আবদুল মান্নান।

সমাবর্তন অনুষ্ঠান থেকে  ৩ হাজার ২৩ জন শিক্ষার্থীকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রী প্রদান করা হয়।

সমাবর্তনে ২০১০-২০১১ থেকে ২০১৫-২০১৬ শিক্ষাবর্ষে বি.এস-সি. ইঞ্জিনিয়ারিং ও বিইউআরপি এবং ২য় সমাবর্তনের পর হতে এ সময়কাল পর্যন্ত পিএইচডি, এমফিল, এমএস-সি, ইঞ্জিনিয়ারিং ও এমএসসি ডিগ্রী অর্জনকৃত শিক্ষাথৃীদের ডিগ্রী প্রদান করা হয়েছে।

মোট ২ হাজার ৭৯৫ জনকে স্নাতক ও ২২৮জনকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রী প্রদান করা হয়েছে। এর মধ্যে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং ২ হাজার ৬৫৭, বিইউআরপি ১৩৮, এমএসসি ৬৯, এমএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং ১০৩, এমফিল ৪৮ এবং ৮ জনকে পিএইচডি ডিগ্রীর সনদ প্রদান করা হবে। একই সাথে স্নাতক পর্যায়ে ভালো ফলাফলের ভিত্তিতে ‘বিশ্ববিদ্যালয় স্বর্ণপদক’ দেয়া হয়েছে ৩৮ জন কৃতি গ্রাজুয়েটকে।

এসএম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

Leave a Reply

উপরে