আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > খেলাধুলা > বল টেম্পারিং: নিজেকে দুষছেন ওয়ার্নারের স্ত্রী ক্যানডিস!

বল টেম্পারিং: নিজেকে দুষছেন ওয়ার্নারের স্ত্রী ক্যানডিস!

ডেভিড ওয়ার্নার ও তার পরিবার

প্রতিচ্ছবি স্পোর্টস ডেস্ক:

বল-বিকৃতি কাণ্ডে গোটা ক্রিকেট দুনিয়া তোলপাড়। এরই মধ্যে দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে দেশে ফিরে গিয়েছেন স্টিভেন স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নার। শনিবার অস্ট্রেলিয়ায় সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়েছিলেন ওয়ার্নার। সেখানে নিজের বিবৃতি পড়ে শোনানোর পর বেশিরভাগ প্রশ্নের উত্তর দেননি। যা দেখে এক অসি সাংবাদিক টুইট করেছেন এভাবে, ‘ডেভিড ওয়ার্নারকে অফ স্টাম্পের বাইরে এত হাফভলি ছাড়তে দেখিনি কখনো।’

ওয়ার্নার জবাব না দিলেও তার স্ত্রী ক্যানডিস মুখ খুলেছেন। অস্ট্রেলীয় সংবাদমাধ্যম সিডনি সানডে টেলিগ্রাফকে ক্যানডিস বলেন, ‘ওয়ার্নারের এই অবস্থার জন্য আমিই দায়ী। যা ভেবে আমি শেষ হয়ে যাচ্ছি, পুরোই শেষ হয়ে যাচ্ছি।’

ওয়ার্নারের স্ত্রী ক্যানডিস কেন নিজেকে দায়ী করছেন, সেই ব্যাখাও অবশ্য দেননি তিনি। তবে ধারনা করা হচ্ছে, অতীতে একটা সময় নিউজিল্যান্ডের রাগবি খেলোয়াড় সনি বিল উইলিয়ামসের সঙ্গে সম্পর্ক ছিল ক্যানডিসের। যা নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার সমর্থকদের সামনে বিদ্রুপের মুখে পড়তে হয় ক্যানডিসকে। টেস্ট চলাকালীন দর্শকদের একটি অংশ বিলের মুখোশ পরে মাঠেও এসেছিল।

এটি চোখ এড়ায়নি ওয়ার্নার ও ক্যানিডসের। তাই সব মিলিয়ে বেশ চাপেই ছিলেন ওয়ার্নার-ক্যানডিস জুটি। সেই চাপ থেকেই ওয়ার্নার এমন কান্ড করেছেন বলে ধারনা করা হচ্ছে।

তবে ওয়ার্নারের ভুলের জন্য কোন অজুহাত দেননি ক্যানডিস। তিনি বলেন, ‘যতটা পারে আমাকে এবং আমাদের সন্তানদের রক্ষা করেন ওয়ার্নার। খেলা শেষ করে সে যখন বাড়ি ফিরতো, শয়নকক্ষে আমাকে অশ্রু চোখে দেখতো। তখন মেয়েরা শুধু আমার দিকে তাকিয়ে থাকতো, যা ছিলো হতাশাজনক। তবে যখন কেপটাউন বা পোর্ট এলিজাবেথে ছিলাম আমরা, ডেভ বাড়ি আসতো তার সামনেই আমি শক্ত থাকতাম এবং খেলার বিষয়েই তার সাথে ব্যস্ত থাকতাম।’

ওয়ার্নারের বল টেম্পারিংয়ের জন্য হতাশ হয়েছে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটপ্রেমিরা। এজন্য অস্ট্রেলিয়ানদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করেছেন ক্যানডিস, ‘আমি জানি অস্ট্রেলিয়ানরা কতটা ব্যথিত হয়েছে। এজন্য আমরা দুঃখিত।’

এসএম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

Leave a Reply

উপরে