আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > আন্তর্জাতিক > ফ্রান্সে বন্দুকধারীর হামলা: ১ পুলিশসহ নিহত ৪

ফ্রান্সে বন্দুকধারীর হামলা: ১ পুলিশসহ নিহত ৪

ফ্রান্সে বন্দুকধারীর হামলা

প্রতিচ্ছবি আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

অবশেষে জীবন রক্ষাকারী পুলিশ  এবং হামলাকারীর মৃত্যুর মধ্যে দিয়ে ফ্রান্সের সুপারমার্কেটে জিম্মি সঙ্কটের নাটকীয় অবসান ঘটেছে।

শুক্রবার ফ্রান্সের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের কারকাসোন শহরে একটি সুপার মার্কেটে রেদোয়ান লাকদিম (২৬) নামের এক তরুণ এই ঘটনা ঘটায়। আগ্নেয়াস্ত্রের পাশাপাশি ছুরি আর গ্রেনেড সঙ্গে নিয়ে সে এই হামলায় নামে এবং কয়েকজনকে জিম্মি করে। এই ঘটনায় একজন পুলিশসহ চারজন নিহত  এবং পাঁচজন আহত হয়।

জানা যায়, পুলিশ কয়েকজন জিম্মিকে মুক্ত করতে সক্ষম হলেও বন্দুকধারী এক নারীকে মানবঢাল হিসেবে ব্যবহার করে। এ পরিস্থিতিতে জিম্মি নারীর মুক্তির বিনিময়ে নিজেকে হামলাকারীর হাতে তুলে দেন ফরাসি এলিট পুলিশ বাহিনীর এক সদস্য। এরপরই পুলিশের ঝটিকা অভিযানে নিহত হয় হামলাকারী এবং গুরুতর আহত হন পুলিশ বাহিনীর ঐ সদস্য।

পুলিশি অভিযানের সময় তিনি  নিজের ফোন একটি টেবিলের উপর চালু অবস্থায় ফেলে রাখেন, যাতে বাইরে থাকা সহকর্মীরা ভেতরের পরিস্থিতি বুঝতে পারেন।

এই সাহসিকতার জন্য ফরাসি এলিট পুলিশ বাহিনীর সদস্য লেফটেন্যান্ট কর্নেল আরনু বেলটাম (৪৫)কে  ‘নায়ক’ আখ্যায়িত করেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ।

বেলটামের মৃত্যুর খবর দিয়ে এক টুইটে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “তিনি নিজের দেশের জন্য প্রাণ দিয়েছেন। ফ্রান্স কখনো তার বীরত্ব, সাহস ও আত্মত্যাগকে ভুলবে না।” এর আগে তিনিও বেলটামকে একজন ‘নায়ক’ হিসেবে বর্ণনা করে বলেছিলেন, হামলাকারীর গুলিতে গুরুতর আহত বেলটাম হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছেন।

টেলিভিশনে দেওয়া এক ভাষণে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ বলেন, ‘আমাদের দেশে ইসলামিক জঙ্গিরা হামলা চালিয়েছে।’

এদিকে, ইসলামিক স্টেট গ্রুপ এ হামলার দায়িত্ব স্বীকার করেছে। পশ্চিমা শত্রুদের ওপর হামলা চালাতে গ্রুপটির অনুসারীদের প্রতি আহবানের পরিপ্রেক্ষিতেই এ হামলা চালানো হয়েছে বলে তারা দাবি করছে।

এর আগে, ২০১৫ সালে আইএসএর হামলার লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত হওয়ার পর থেকে ফ্রান্সে এ পর্যন্ত ২৪০ জনের প্রাণ গেছে বিভিন্ন সন্ত্রাসী হামলায়।

জেএস

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

Leave a Reply

উপরে