আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > খেলাধুলা > ফাইনালে যেতে পাকিস্তানের প্রয়োজন ২১২ রান

ফাইনালে যেতে পাকিস্তানের প্রয়োজন ২১২ রান

ফাইনালে যেতে পাকিস্তানের প্রয়োজন ২১২ রান

প্রতিচ্ছবি স্পোর্টস ডেস্ক:

গ্রুপ পর্বের সব ম্যাচ জিতে দাপুটে ভঙ্গিতেই সেমিফাইনালে পা রেখেছে ইংল্যান্ড। স্বাগতিক হিসেবে ইংল্যান্ডকেই শিরোপা জয়ের অন্যতম প্রধান দাবিদার হিসেবে বিবেচনা করছেন অনেকে। তবে সেমিফাইনালে পাকিস্তানের বিপক্ষে বেশ কঠিন পরীক্ষাই দিতে হচ্ছে ইংলিশ ক্রিকেটারদের।

টস হেরে ব্যাটিংয়ে নামা ইংল্যান্ডের শুরু আর শেষটা হলো ভিন্ন। পাকিস্তানি বোলারদের তোপে নির্ধারিত ৫০ ওভারই ব্যাট করতে পারেনি স্বাগতিকরা। ৪৯.৫ ওভারে অলআউট হয়েছে ইয়ন মরগানের দল। করতে পেরেছে ২১১ রান। জয়ের জন্য পাকিস্তানের সামনে ২১২ রানের টার্গেট ছুড়ে দিয়েছে ইংল্যান্ড।

শুরু থেকে খুব সাবধানী ব্যাট করছিল ইংল্যান্ড। কিন্তু পাকিস্তানের বোলাররাও কম যায় নি। চ্যাম্পিয়নস ট্রফির প্রথম সেমিফাইনালে বুধবার সমানে সমান লড়ছিল পাকিস্তান ও ইংল্যান্ড। কিন্তু স্বাগতিকদের মিডল অর্ডার খুব সুবিধা করতে পারে নি।

জনি বেয়ারস্টো শুরু থেকে সতর্ক ছিলেন। তার সঙ্গে আরেক ওপেনার অ্যালেক্স হেলস ছিলেন ধীরস্থির। কিন্তু বেশিক্ষণ টিকতে পারেন নি তিনি। ১৩ বলে ১৩ রানে রুম্মন রইসের শিকার হেলস। তবে জো রুটকে নিয়ে দেখেশুনে খেলতে থাকেন বেয়ারস্টো। ১৬ ওভারে ১ উইকেটে ৮০ রান করেছিল ইংল্যান্ড। তবে ১৭তম ওভারের তৃতীয় বলে বেয়ারস্টোকে ৪৩ রানে মোহাম্মদ হাফিজের ক্যাচ বানান হাসান আলী।

এ দুই উইকেট হারিয়ে ইংলিশদের রানের গতি আরও মন্থর হয়ে পড়ে। ২০ রানের ব্যবধানে রুট, এউইন মরগান ও জস বাটলারের মতো তিন নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান সাজঘরে গেলে চাপটা বেড়ে যায় স্বাগতিকদের। রুট ৪৬ রানে সাদাব খানের কাছে থামেন। ৩৩ রানে হাসানের দ্বিতীয় শিকার মরগান। বাটলারকে ৪ রানের বেশি করতে দেননি জুনাইদ খান। এ পেসার মঈন আলীকেও (১১) সাজঘরে পাঠালেন তার আরেক ওভারে। সর্বশেষ আদিল রশীদ হয়েছেন রান আউট।

হাসান তার তৃতীয় উইকেট তুলে নেন বেন স্টোকসকে (৩৪) ফিরিয়ে। লিয়াম প্লাঙ্কেট ৯ রানে আউট হন রইসের বলে। ১ বল বাকি থাকতে শেষ উইকেটটিও হারায় ইংল্যান্ড। মার্ক উড হন রান আউট।

পাকিস্তানের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নেন হাসান। ২টি করে পান রইস ও জুনাইদ।

এ ম্যাচে দুই দলই একাদশে পরিবর্তন এনেছে। জেসন রয়ের বদলে ইংল্যান্ড দলে ঢুকেছেন জনি বেয়ারস্টো। ইনজুরির কারণে পাকিস্তানের একাদশ থেকে বাদ পড়েছেন মোহাম্মদ আমির। তার জায়গায় রুম্মন রইস এসেছেন। লেগস্পিনার শাদাব খান এসেছেন ফাহিম আশরাফের জায়গায়।

ইংল্যান্ড একাদশ :
অ্যালেক্স হেলস, জনি বেয়ারস্টো, জো রুট, ইয়ন মরগান, বেন স্টোকস, মইন আলি, জস বাটলার, জ্যাক বল, লিয়াম প্লাঙ্কেট, আদিল রশিদ ও মার্ক উড।

পাকিস্তান একাদশ :
আজহার আলী, ফখর জামান, বাবর আজম, মোহাম্মদ হাফিজ, শোয়েব মালিক, সরফরাজ আহমেদ, ইমাদ ওয়াসিম, শাদাব খান, ফাহিম আশরাফ, হাসান আলী ও জুনায়েদ খান।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে