আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > জাতীয় > যুদ্ধ-সংকটে নেতৃত্ব দেবে প্রতিরক্ষা বাহিনী

যুদ্ধ-সংকটে নেতৃত্ব দেবে প্রতিরক্ষা বাহিনী

যুদ্ধ-সংকটে প্রতিরক্ষার নেতৃত্বে থাকবে আধাসামরিক-সহায়ক বাহিনী

প্রতিচ্ছবি প্রতিবেদক:

যুদ্ধকালীন বা সংকটে সব আধাসামরিক বাহিনী ও সহায়ক বাহিনী সশস্ত্র বাহিনীর কর্তৃত্বে অপারেশনাল কমান্ডে থাকবে—এমন বিধান যুক্ত করে জাতীয় প্রতিরক্ষা নীতিমালা-২০১৮ এর খসড়া অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

সোমবার (১৯ মার্চ) তেজগাঁওয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কার্যালয়ে তাঁর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভায় এই নীতিমালার অনুমোদন দেওয়া হয়। পরে সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে সভার সিদ্ধান্ত জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম।

সচিব বলেন, সংকটকাল বা ক্রান্তিকাল ঠিক করবেন সরকার প্রধান। এই নীতিমালায় জাতীয় স্বার্থ, প্রতিরক্ষা মূল নীতি, প্রতিরক্ষা সক্ষমতা, সামরিক ও বেসামরিক সম্পর্ক কী, গণমাধ্যমের সঙ্গে সম্পর্ক কী—এ ধরনের বিভিন্ন বিষয় নীতিমালায় উল্লেখ রয়েছে।

এ ছাড়াও আজকের সভায় ভেজাল সার বিক্রির জন্য শাস্তি বাড়িয়ে সার (ব্যবস্থাপনা) (সংশোধন) আইন-২০১৮ এর খসড়া অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। বিদ্যমান আইনে ভেজাল সার বিক্রির জন্য ছয় মাস কারাদণ্ড বা ৩০ হাজার টাকা অর্থদণ্ডের বিধান রয়েছে। এখন প্রস্তাবিত আইনে ২ বছরের কারাদণ্ড বা পাঁচ লাখ টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডের বিধান রাখা হয়েছে।

এ ছাড়াও আজকের সভায় বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ আইন-২০১৮ এর খসড়া এবং বাংলাদেশ প্রাণী সম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউট আইনের খসড়াও অনুমোদন দেওয়া হয়। সভায় পায়রা বন্দরের রাদনাবাদ চ্যানেলের ক্যাপিটাল অ্যান্ড মেন্টেনেন্স ড্রেজিং কম্পোনেন্টি জাতীয় অগ্রাধিকার প্রকল্প হিসেবে ঘোষণার প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়।

এ ছাড়া আজকের সভায় কাঠমান্ডুতে বিমান দুর্ঘটনায় নিহতদের স্মরণে শোকপ্রস্তাব গ্রহণ করা হয়। এ ছাড়াও মুক্তিযোদ্ধা ফেরদৌসী প্রিয়ভাষিণীর মৃত্যুতেও শোকপ্রস্তাব গ্রহণ করা হয়। সভায় বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশের যোগ্যতা অর্জনের স্বীকৃতিপত্র পাওয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছে মন্ত্রিসভা।

এআর 

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

Leave a Reply

উপরে