আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > ক্যাম্পাস > ২৯তম জাতীয় সম্মেলনকে ঘিরে ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল

২৯তম জাতীয় সম্মেলনকে ঘিরে ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল

২৯তম জাতীয় সম্মেলনকে ঘিরে ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিলপ্রতিচ্ছবি প্রতিবেদক:

আগামী ৩১ মার্চ দেশের সবচেয়ে পুরাতন ও ঐতিহ্যবাহী ছাত্র রাজনৈতিক সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের আসন্ন ২৯তম জতীয় সম্মলনকে স্বাগত জানিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে আনন্দ মিছিল করেছে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা।

বৃহস্পতিবার (১ মার্চ) সন্ধ্যা ৭ ঘটিকায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের মধুর ক্যান্টিন থেকে বের হয়ে অপরাজেয় বাংলা হয়ে টিএসসি প্রদক্ষিণ করে পুনরায় মধুর ক্যান্টিনে এসে মিছিলটি শেষ হয়।

২৯তম জাতীয় সম্মেলনকে ঘিরে ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল ২

মিছিলে নেতাকর্মীরা ‘ছাত্রলীগের সম্মেলন, সফল হোক, সফল হোক; ২৯তম সম্মেলন, সফল হোক, সফল হোক; সিণ্ডিকেট নিপাত যাক, ছাত্রলীগ মুক্তি পাক; শেখ হাসিনার সিদ্ধান্ত, চুড়ান্ত চুড়ান্ত; ৩১ মার্চের সম্মেলন, সফল হউক স্বার্থক হউক; জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু জয়তু শেখ হাসিনা। বলে শ্লোগান দেন।

মিছিলে নেতৃত্ব দেন-  সার্জেন্ট জহুরুল হক হল শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আমিনুল ইসলাম বুলবুল, ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সদস্য মো. মাহবুব খান, বর্তমান কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আওলাদ খান, সহকারী সম্পাদক মো. রনি, কার্যকরী সদস্য বায়োজিদ কোতোয়াল, সোহেল রানা, শেখ আতিক হাসান রাব্বী, ডিএম সাব্বির হোসেনসহ বেশ কয়েকজন সাবেক ও বর্তমান নেতাকর্মী। এছাড়া হল কমিটির নেতাকর্মীদের মধ্যে মিছিলে অংশ নেন- মেশকাত হোসেন, মোফাজ্জেম জামান চয়ন, ওয়াজিউজ্জামান ওয়াজি, আরিফ হোসেন মুন্না, ইয়াসির আরাফাত তুর্জ, সাগর ইসলাম; ঢাকা কলেজ- তুষার আহমেদ, রিমন শিকদার, মো. মৃদুল, মো. মাহবুব হোসেন, নাদিম মাহমুদ, মুস্তাফিজুর রহমান, সাদিক সরকার, নিরব প্রমুখ;

এছাড়া মিছিলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা কলেজ, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, সরকারি এসএস কলেজ, কবি নজরুল কলেজ শাখা ছাত্রলীগের হাজারো নেতাকর্মী অংশ নেন।

২৯তম জাতীয় সম্মেলনকে ঘিরে ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল ৩

এ সময় বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মেহেদী হাসান রনি বলেন, আমরা আশাকরি জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে অনুষ্ঠিতব্য আগামী সম্মেলন হবে ছাত্রজনতা এবং মুজিব সেনাদের বিজয়ের সম্মেলন। আশা করি বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি -সাধারন সম্পাদক দ্রুত সংবাদ সম্মেলন করে সম্মেলন প্রস্তুতি সম্পর্কে সবাইকে বিস্তারিত জানাবেন।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের বর্তমান কমিটির আরেক সহ সভাপতি আরেফিন সিদ্দিক সুজন বলেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সর্বস্তরের নেতৃবৃন্দের অংশগ্রহন ও সম্পৃক্ততার মধ্যদিয়ে আসন্ন সম্মেলন সফল করতে সারাদেশে কাজ করে যাচ্ছে।  আশা করছি ৭ মার্চ নেত্রীর জনসভার পর যথাসময়ে সংবাদ সম্মেলন করে সব কিছু জানাবে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ।

শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হল ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আমিনুল ইসলাম বুলবুল বলেন, আমরা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ ধারন করে জননেত্রী শেখ হাসিনার রাজনীতি করি। ছাত্রলীগের একমাত্র অভিভাবক জননেত্রী শেখ হাসিনার ইচ্ছা বিজয়ের মাসে ছাত্রলীগের সম্মেলন হোক। তাই তিনি ৩১ মার্চ ছাত্রলীগের সম্মেলনের তারিখ নির্ধারন করেছেন। আমরা নেত্রীর এই ইচ্ছাকে স্বাগত জানিয়ে মিছিল করেছি।

২৯তম জাতীয় সম্মেলনকে ঘিরে ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল ৪

নেতাকর্মীরা আরো বলেন, ছাত্রলীগের যেসব নেতাকর্মী বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে ধারন করে এবং শেখ হাসিনাকে ছাত্রলীগের অভিভাবক হিসেবে বিশ্বাস করে তাদের প্রাণের দাবিতেই আগামী ৩১মার্চ বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ২৯তম জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।

উল্লেখ্য, বর্তমান কমিটির মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ার পর থেকে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছিলেন, দ্রুতই ছাত্রলীগের সম্মেলন দেওয়া হবে। কিন্তু সুনির্দিষ্ট কোন দিনক্ষণ না উল্লেখ করায় আগামী জাতীয় নির্বাচনের আগে সম্মেলন আদৌ হবে কিনা তা নিয়ে সংশয় ছিল ছাত্রলীগসহ সংশ্লিষ্টদের মধ্যে।

গত ৬ জানুয়ারি ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আনন্দ শোভাযাত্রায় ‘মার্চেই ছাত্রলীগের সম্মেলন হবে’ বলে ঘোষণা দেন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, আমি নেত্রীর সঙ্গে কথা বলেছি। আগামী মার্চ মাসে, স্বাধীনতার মাসে সম্মেলন হোক- এটা নেত্রীর ইচ্ছা। সম্মেলনের প্রস্তুতি নিন।

আর এই বাংলাদেশ ছাত্রলীগের আসন্ন জতীয় সম্মলনকে স্বাগত জানিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল করে ছাত্রলীগ।

এ আর

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

Leave a Reply

উপরে