আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > খেলাধুলা > ফেরার অনুরোধেও ফিরছেন ‘না’ মাশরাফি

ফেরার অনুরোধেও ফিরছেন ‘না’ মাশরাফি

মাশরাফি বিন মর্তুজা

প্রতিচ্ছবি ক্রীড়া ডেস্ক:

নিজেদের মাটিতে ত্রিদেশীয় টুর্নামেন্টের পর শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি সিরিজে ভরাডুবি। জয়ের দেখা পেতে নানা পরীক্ষা নিরীক্ষাও চালানো হয়েছে। নিয়মিত অধিনায়ক সাকিব আল হাসান ইনজুরিতে থাকায় মাহমুদুল্লাহর নেতৃত্বে টি-টোয়েন্টি দুই ম্যাচে নামানো হয়েছে নতুন ৬ ক্রিকেটার। তাতেও ফলাফলের তেমন কোনো পরিবর্তন হয়নি।

টাইগারদের টানা এমন বিপর্যয়ের কারণ খুঁজছে বিসিবি। কোচহীন বাংলাদেশের পর্যালোচনার খুব একটা সময়ও পাচ্ছে না। সামনের মাসেই আবার লঙ্কানদের মাটিতে টি-টোয়েন্টির ত্রিদেশীয় টুর্নামেন্টে লড়বে বাংলাদেশ। আর ওই টুর্নামেন্টে ঘুরে দাঁড়াতে মাশরাফিকে ফিরে পেতে চায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

তবে ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে ফেরার কোন ইচ্ছা নেই জাতীয় দলের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার। বেসরকারি একটি টেলিভিশনকে এমনটাই জানিয়েছেন বাংলাদেশের এই তারকা ক্রিকেটার।

মাশরাফি বলেন, ‘যেহেতু ছেড়ে দিয়েছি, তাই টি-টোয়েন্টি খেলার আসলেই আর কোনো ইচ্ছা নেই। আর আমার মনে হয়, উঠতি তরুণদের সুযোগ করে দেওয়ার এটা খুব ভালো সময়। যদি খেয়াল করেন এখন আবু হায়দার রনি এবং আবু জায়েদ রাহি আসছে। ওদের জন্য এটা অনেক বড় সুযোগ যে টি-টোয়েন্টি থেকে জাতীয় দলে জায়গা তৈরি করা ও দলকে লম্বা সময় সার্ভিস দেওয়ার। আর এই জায়গা থেকেই আমার ছেড়ে দেওয়া।’

গত বছর শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ২০ ওভারের খেলা থেকে অবসর নেন মাশরাফি। ধারণা করা হয়, চাপে পড়ে অনেকটা অভিমানেই টি-টোয়েন্টি থেকে অবসর নিয়েছিলেন তিনি। তার শেষ ম্যাচে বাংলাদেশ জয় পেলেও তারপরের দশ মাস ধরে টি-টোয়েন্টিতে আর কোন জয় পায়নি বাংলাদেশ।

মাশরাফির পরিবর্তে অধিনায়কত্বের দায়িত্ব দেয়া হয়েছিলো বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানকে। তবে চোটের কারণে লঙ্কানদের বিপক্ষে সিরিজে ছিলেন না সাকিবও। যোগ্য অধিনায়কত্ব আর পরিকল্পনার অভাবে লঙ্কানদের কাছে বাজে ভাবে আত্মসমর্পন করে টাইগাররা। তাই দলের এমন দলের বিপর্যয় দেখে বিসিবি মাশরাফিকে আবারও টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে ফিরিয়ে আসার প্রস্তাব পাঠিয়েছে।

মাশরাফি বিন মর্তুজা জাতীয় দলের হয়ে ৫৪টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেন। যার মধ্যে ৮.০৪ রানের ইকোনোমিতে উইকেট সংগ্রহ করেন ৪২টি। আর তার অধিনায়কত্বে ২৮টি টি-টোয়েন্টি খেলে টাইগাররা। যার মধ্যে ১০টিতে জয় পায় বাংলাদেশ। আর হারে ১৭টিতে। বাকি একটি ম্যাচ ড্র হয়।

এসএম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে