আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > ঢাকা > খালেদার মুক্তির দাবিতে প্রতীকী অনশনে নেতাকর্মীরা

খালেদার মুক্তির দাবিতে প্রতীকী অনশনে নেতাকর্মীরা

খালেদার মুক্তির দাবিতে প্রতীকী অনশনে নেতাকর্মীরা [১]

প্রতিচ্ছবি প্রতিবেদক:

দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে পূর্বঘোষিত প্রতীকী অনশন কর্মসূচি অনশন শুরু করেছে দলটির নেতাকর্মীরা। বুধবার সকাল ১০টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এই কর্মসূচি শুরু হয়। চলবে বিকাল পাঁচটা পর্যন্ত।

খালেদার মুক্তির দাবিতে প্রতীকী অনশনে নেতাকর্মীরা [২]

গতকাল রাতে বিএনপির কেন্দ্রীয় দপ্তর থেকে গণমাধ্যমে মেইল করে এ কথা জানানো হয়। অনশনে যোগ দিতে সকাল ১০টার আগ থেকেই প্রেসক্লাবের সামনে জড়ো হতে থাকেন বিএনপি ও ২০ দলীয় জোটের নেতাকর্মী।

এদিকে বিএনপির এই অনশনকে ঘিরে যাতে কোনো বিশৃঙ্খলা না হয়, সে জন্য সতর্ক অবস্থানে রয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। প্রেসক্লাব ও আশপাশের এলাকায় রয়েছে অন্যদিনের তুলনায় অতিরিক্ত পুলিশ। এ ছাড়া আছে সাদা পোশাকে বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা।

এরই মধ্যে অনশনে উপস্থিত হয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, মির্জা আব্বাস, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ, নিতাই রায় চৌধুরী, ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন, ২০ দলের শরিক লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত হোসেন সেলিম, জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টির (জাগপা) সাধারণ সম্পাদক খন্দকার লুৎফর রহমান, ইসলামী ঐক্যজোটের মহাসচিব আবদুল করিম, ন্যাপ-ভাসানীর মহাসচিব গোলাম মোস্তফা, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন প্রমুখ।

খালেদার মুক্তির দাবিতে প্রতীকী অনশনে নেতাকর্মীরা [৩]

খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আইনি লড়াইয়ের পাশাপাশি রাজপথেও সক্রিয় বিএনপি। ধারাবাহিক কর্মসূচির অংশ হিসেবে গতকাল মঙ্গলবার তিন দফা স্থান পরিবর্তন করে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে বিএনপি। এর আগে সোমবার একই দাবিতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করে বিএনপি ও ২০ দলীয় জোট।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায় ঘোষণা করেন বিশেষ আদালতের বিচারক ডা. মো. আখতারুজ্জামান। রায়ে তিনি সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেন। এ ছাড়া বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ পাঁচ আসামিকে ১০ বছর করে কারাদণ্ড এবং দুই কোটি ১০ লাখ টাকা করে জরিমানা করা হয়।

এসএম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে