আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > অর্থ-বাণিজ্য > গাজীপুরে শিল্প কারখানাগুলোতে তীব্র গ্যাস সংকট

গাজীপুরে শিল্প কারখানাগুলোতে তীব্র গ্যাস সংকট

গাজীপুরে শিল্প কারখানাগুলোতে তীব্র গ্যাস সংকট

প্রতিচ্ছবি গাজীপুর প্রতিনিধি:

গাজীপুরে শিল্পখাতে তীব্র গ্যাস সংকট দেখা দিয়েছে। জেলার চান্দনা চৌরাস্তা থেকে টঙ্গী বাজার বাসস্ট্যান্ড পর্যন্ত ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের উভয় দিকে এ সংকট চলছে বিগত একমাস ধরে। গ্যাস সংকট নিরসনে তিতাস কর্তৃক্ষকে তেমন কোন ব্যবস্থা নিতে দেখা যাচ্ছেনা।

ফলে গ্যাস নির্ভর ছোট-বড় ও ভারী শিল্পপ্রতিষ্ঠানগুলো সময়মতো পণ্য উৎপাদন ও সরবরাহ করতে পারছেনা। এতে কোটি কোটি টাকা লোকসান হচ্ছে। গ্যাস সংকটের কারণে শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলো দুপুরের আগেই শ্রমিকদের ছুটি দিয়ে দিচ্ছে।

ইদানিং শুক্রবার ও শনিবার কোনরকমে গ্যাস পাওয়া গেলেও সপ্তাহের বাকি দিনগুলোতে গ্যাসের প্রেসার নেই বললেই চলে। সপ্তাহের পাঁচদিন সকাল ৯টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত এবং বিকাল পাঁচটা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত গ্যাস সংকট আরো তীব্র আকার ধারণ করছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ঢাকা-ময়মনসিংহ রুটের মালেকেরবাড়ি এলাকায় স্ট্যান্ডার্ড সিরামিক ইন্ড্রাস্ট্রিজ, হাজী পুকুর এলাকায় ম্যাট্রিক্স সোয়েটার ছাড়াও ওই রুটে পূর্বাচল স্টীল মিল, এভারগ্রীন গার্মেন্ট, এম এম সোয়েটার, এনগোড়া ফ্যাশন, প্রীতি গ্রুপ, ইস্ট ওয়েস্ট গার্মেন্ট, পিপলস সিরামিক ইন্ড্রাস্ট্রিজ লিমিটেডসহ বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠানে গ্যাস সংকটের কারণে উৎপাদন কার্যক্রম চরম ব্যাহত হচ্ছে।

Standard-Ceramic

তৈরী পোশাক শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলো সময় মতো পণ্য সরবরাহ করতে না পেরে লোকসানের মুখে প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যাওয়ার উপক্রম হয়েছে।

সরেজমিন স্ট্যান্ডার্ড সিরামিক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডে গিয়ে দেখা গেছে, গ্যাসের পিএসআইজি কম থাকার কারণে কারখানাটির উৎপাদন বন্ধ হয়ে আছে। কারখানাটির প্রিন্সিপাল প্রোডাকশন অফিসার মো.জিয়াউল হক ভূঁইয়া বলেন, তাদের অনুমোদিত গ্যাসের প্রেসার ৮ পিআসআইজি। অথচ এর বিপরীততে তিতাস সরবরাহ করছে ১-২ পিএসআইজি। ফলে চুল্লির ভেতরে থাকা অধিকাংশ মালামাল নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। গ্যাস সংকটের কারণে বেশ কিছুদিন ধরে উৎপাদন অর্ধেকের নিচে নেমে গেছে।

এ অবস্থা চলতে থাকলে লাগাতার লোকসানের মুখে শ্রমিক-কর্মচারিদের বেতন দিতে হিমশিম খেতে হবে। তাছাড়া মানসম্মত পণ্য উৎপাদন করে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করতে চাইলে চাহিদা মতো গ্যাস পেতে হবে। অন্যথায় পণ্যের গুণগত মান ধরে রাখা সম্ভব নয়। এতে বায়ার হাতছাড়া হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।

তিতাসের পরিচালক (অপারেশন) আলী আশরাফ জানান, গাজীপুরে গ্যাস সংকটের ব্যাপারে না দেখে তিনি কিছু বলতে পারবেন না।

তবে গাজীপুর তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন লিমিটেডের ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী শাহাবুদ্দিন বলেন, ওই রুটে গ্যাসের সরবরাহের তুলনায় চাহিদা অনেক বেশি হওয়ায় এ সংকট দেখা দিয়েছে।

হাবিবুর রহমান/এ আর

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে