আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > জাতীয় > সক্রিয় মুক্তিযোদ্ধার সংখ্যা দেড় লাখের বেশি না

সক্রিয় মুক্তিযোদ্ধার সংখ্যা দেড় লাখের বেশি না

সক্রিয় মুক্তিযোদ্ধার সংখ্যা দেড় লাখের বেশি না

প্রতিচ্ছবি প্রতিবেদক:

মুক্তিযোদ্ধা বানিয়ে দেওয়ার নামে হাজার কোটি টাকার বাণিজ্য হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে ‘একাত্তরের মুক্তিযোদ্ধা’ নামক একটি সংগঠন। তাঁদের অভিযোগ, দেশের উপজেলাগুলোতে গঠিত মুক্তিযোদ্ধা যাচাই বাছাই কমিটি অ-মুক্তিযোদ্ধা—এমনকি রাজাকারদের থেকে ২-১০ লাখ টাকার বিনিময়ে তাঁদের মুক্তিযোদ্ধা বানিয়ে হাজার হাজার কোটি টাকার বাণিজ্য করেছে।

সংগঠনটির অভিযোগ, মুক্তিযোদ্ধা বানানোর নামে যে বাণিজ্য চলছে, সে বাণিজ্যের ভাগ মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়, জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডারসহ ক্ষমতাসীন দলের সাংসদ ও পাতি নেতারা পেয়েছেন।

আজ শুক্রবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবে সংগঠনটি আত্মপ্রকাশ করে। তাঁদের দাবি, এই সংগঠনটি প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে গঠিত হয়েছে। মূলত দুইটি দাবি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে এই সংগঠনটি গঠিত হয়েছে বলে তারা জানান। দাবি দুটি হলো মুক্তিযোদ্ধাদের সাংবিধানিক স্বীকৃতি এবং মুক্তিযোদ্ধা তালিকা থেকে ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা বাতিল।

লিখিত বক্তব্যে সংগঠনটির আহ্বায়ক আবীর আহাদ বলেন, মুক্তিযুদ্ধে সরাসরি অংশগ্রহণকারী সক্রিয় মুক্তিযোদ্ধার সংখ্যা কোনো অবস্থাতেই দেড় লাখের বেশি হবে না। কিন্তু বর্তমানে মুক্তিযোদ্ধা তালিকায় মুক্তিযোদ্ধার সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ লাখ ১৫ হাজারের বেশি। এই সংগঠন ৭১ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করেছে।

এ আর

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে