আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > বিনোদন-সংস্কৃতি > বাঙ্গালি পরিচয়েই আনন্দ বিদ্যার

বাঙ্গালি পরিচয়েই আনন্দ বিদ্যার

বিদ্যা বালান

প্রতিচ্ছবি বিনোদন ডেস্ক:

বাংলা ছবি ‘ভালো থেকো’ দিয়েই রূপালি পর্দায় আত্মপ্রকাশ করেন বিদ্যা বালান। তবে ২০০৫ এ সাইফ আলী খানের সঙ্গে বলিউডে মুক্তিপ্রাপ্ত তার প্রথম ছবি পারিনীতা’র সৌজন্যেই ছড়িয়ে পড়ে তার নাম। পরের বছর মুন্না ভাই এমবিবিএসে তার অভিনয় প্রশংসা কুড়ায় সবার।

বিদ্যা কে একজন বাঙালি অভিনেত্রী বলেই মনে করেন অনেকে। দেখে অনেকেই মনে করেন নেন তিনি বাঙালি। এর আরেকটা কারন ‘পারিনীতা’য় বঙ্গতনয়ার চরিত্রে অভিনয় করেন এই অভিনেত্রী। ২০১৬ সালে মুক্তি পাওয়া ‘তিন’ ছবিতেও তাকে বাঙালি নারীর চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা গেছে।

বলিউডে যখন পা রেখেছিলেন বিদ্যা, সেই সময় তাকে বাঙালি চরিত্রে বেশ দারুণ লেগেছে। বাঙ্গালিয়ানা বেশভূষা, কখনো খোলা চুল কখণ বা বেনী আবার কখনো তিনি এল খোঁপায় থাকেন এমন বেশে তিনি মানান সই হয়েছেন।

শুটিংয়ের জন্য কলকাতায় বারবার যেতে হয়েছিল। সেই সময় বিদ্যা জানিয়েছিলেন, বাংলা তার দ্বিতীয় ঘর।

‘পরিনীতা’-র পর ‘কাহানি’ ছবিতেও একজন বাঙালি অন্তঃসত্ত্বা নারীর চরিত্রে অভিনয় করেন, যিনি নিজের স্বামীর হত্যাকারীকে খুঁজে বের করে বদলা নেন।

বিদ্যা জানান, যখন তিনি কলকাতায় আসেন, তখন কখনই নিজের ঘরের অভাব অনুভব করেন না। এমনকী, ‘তিন’ ও ‘কাহানি-২’ শুটিংয়ের সময় কলকাতায় ছিলেন তিনি। ফলে, এসবের জন্যই বিদ্যা বালানকে বাঙালি হিসেবেই দেখেন তার অনুগামীরা।

এ এম / এম এম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে