আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > খেলাধুলা > হাথুরুর নব শিষ্যদের টিকে থাকার লড়াই আজ

হাথুরুর নব শিষ্যদের টিকে থাকার লড়াই আজ

হাথুরুর নব শিষ্যদের টিকে থাকার লড়াই আজ

প্রতিচ্ছবি ক্রীড়া ডেস্ক:

বাংলাদেশের মাটিতে ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলতে আসা বর্তমান শ্রীলঙ্কান দল নিয়ে কখনোই তেমন প্রত্যাশা ছিল না। ২০১৭ সালটা খুব ভালো কাটেনি তাদের। বিশ্বের প্রায় প্রতি প্রান্তেই পরাজিত হয়েছে দলটা। ফিল্ডিংয়ে ক্যাচ ফেলে দেয়া, ব্যাটিংয়ে অসহায় আত্মসমর্পণ, নির্বিশ বোলিং এই দলের মজ্জাগত হয়ে গেছে। এরকম একটা বাজে অবস্থার মধ্যে নতুন বছর শুরু করে ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম দুটি ম্যাচেই পরাজিত হয়েছে শ্রীলঙ্কা। আজ শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ম্যাচে হেরে গেলে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে খেলার আর কোন পথই খোলা থাকবে না হাতুরুসিংহের শিষ্যদের।

বর্তমান জিম্বাবুয়ে দলটার দিকে তাকালে দেখা যায়, আট মাস আগে এই দলটাই ঘরের মাঠে আফগানিস্তানের কাছে সিরিজ হেরেছে। এই দলটাই গত বছরের জুলাই থেকে ওডিআই খেলেনি। এই সময়ের মধ্যে খেলা ছয় ম্যাচের মধ্যে জিম্বাবুয়ের পাওয়া চার জয়ের তিনটাই শ্রীলঙ্কার সাথে। ব্রেন্ডন টেলর ফিরেছেন জিম্বাবুয়ে দলে। সিকান্দার রাজা প্রতি ম্যাচেই খেলছেন দুর্দান্ত (অন্তত শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে)। ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম পর্যায়ের ম্যাচে শ্রীলঙ্কার পেস আক্রমণকে হ্যামিল্টন মাসাকাদজা এবং সলোমন মির যেভাবে পেটালেন তাতে বোঝাই যায় যে, আজ শ্রীলঙ্কানদের কপালে খারাবি আছে।

আজকের ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে জয় দিয়েই ফাইনাল নিশ্চিত করতে চায় জিম্বাবুয়ে। গতকাল সংবাদ সম্মেলনে এমনটাই জানিয়েছেন দলটির তারকা ব্যাটসম্যান ক্রেইগ আরভিন।

শ্রীলংকার কোচ হিসেবে প্রথম সিরিজেও লজ্জার দ্বারপ্রান্তে হাথুরু। আজ জিম্বাবুয়ের কাছে হারলে এক ম্যাচ হাতে রেখেই ত্রিদেশীয় সিরিজ থেকে বিদায় নেবে শ্রীলংকা। তখন বাংলাদেশের বিপক্ষে ২৭ জানুয়ারির ফাইনালের টিকিট বুকড হয়ে যাবে জিম্বাবুয়ের।

এদিকে, পরপর দুটি ম্যাচ হেরে চাপের মুখে আছে লঙ্কানরা। বিশেষ করে বাংলাদেশের বিপক্ষে ১৬৩ রানের বিশাল হার তাদের আত্মবিশ্বাস অনেকখানি নিচে নামিয়ে দিয়েছে।

অন্যদিকে জিম্বাবুয়ে আছে বেশ ফুরফুরে মেজাজে। মিরপুর একাডেমি মাঠে অনুশীলনের পর জিম্বাবুয়ের অলরাউন্ডার শন আরভিন জানিয়েছেন, আগের রাউন্ডে লঙ্কানদের বিপক্ষে ১২ রানের জয় অনুপ্রেরণা জোগাচ্ছে তাদের। কোণঠাসা শ্রীলঙ্কাকে আরো চেপে ধরতে চাইছেন আরভিন।

তিনি বলেন, ‘এ মুহূর্তে দুই দলের মধ্যে নিশ্চিতভাবেই আমরা ছন্দে আছি। তারা বেশ চাপের মুখে আছে। যদিও তারা বেশ ভালো দল। আগের ম্যাচের মতো জয়ের জন্য তাদের চেপে ধরতে হবে।’

আগের ম্যাচের দল নিয়েই তারা আজ মাঠে নামবেন বলে এমনটিই ইঙ্গিত দিয়েছেন জিম্বাবুয়ের অলরাউন্ডার আরভিন। পরিকল্পনাতেও যে খুব একটি পরবির্তন আসবে না তাও জানিয়েছেন তিনি।

শ্রীলঙ্কা পাহাড় সমান চাপ থেকে ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া। এজন্য খেলোয়ারেরা একে অন্যকে চাঙ্গা রাখার চেষ্টা করছেন বলে জানিয়েছেন দলটির অলরাউন্ডার থিসারা পেরেরা। তিনি জানান, ‘ফাইনাল ম্যাচ খেলতে হলে আমাদের সামনের দুটি ম্যাচ জিততেই হবে। তাই একে অন্যের চাঙ্গা রাখার চেষ্টা করছি। ক্রিকেটে এমনটি হতেই পারে। তবে আমরা আশা করছি, পরের দুই ম্যাচে আমরা শক্তভাবে ঘুরে দাঁড়াব।’

বাংলাদেশকে সাড়ে ৩ বছর অনেক সাফল্য এনে দিয়েছেন হাথুরুসিংহে। কিন্তু নিজ দেশের ক্রিকেটারদের অনুপ্রাণিত করতে পারছেন না। এমনটাই ভাবছেন অনেকে।

তবে লঙ্কান ক্রিকেটার থিসারা পেরেরা অবশ্য তেমনটা মনে করছেন না। ‘কোচ কখনোই মিরাকল করতে পারে না। হাথুরু বিশ্বের সেরা কোচদের একজন, তাকে সময় দিতে হবে।’ রবিারের (২১ জানুয়ারি) এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে নিয়মিত অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজকে পাচ্ছে না শ্রীলঙ্কা।

শ্রীলঙ্কা সম্ভাব্য একাদশ :

কুশল পেরেরা, উপুল থারাঙ্গা, কুশল মেন্ডিস, দিনেশ চান্দিমাল (অধিনায়ক), থিসারা পেরেরা, আসেলা গুনারত্নে, নিরোশান ডিকওয়েলা (উইকেটরক্ষক), আকিলা ধনঞ্জয়া, সুরঙ্গা লাকমল, নুয়ান প্রদ্বীপ, লক্ষণ সান্দাকান।

জিম্বাবুয়ে সম্ভাব্য একাদশ :

হ্যামলিটন মাসাকাদজা, সলোমন মিরে, ক্রেইগ আরভিন, ব্রেন্ডন টেইলর (উইকেটরক্ষক), সিকান্দার রাজা, পিটার মুর, ম্যালকম ওয়ালার, গ্রায়েম ক্রেমার (অধিনায়ক), টেন্ডাই সাতারা, কাইল জারভিস, ব্লিজিং মুজারাবানি।

এসএম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে