আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > আন্তর্জাতিক > শিকলবন্দি ১৩ সন্তান!

শিকলবন্দি ১৩ সন্তান!

শিকলবন্দি ১৩ সন্তান!

প্রতিচ্ছবি ডেস্ক:

মনে হতে পারে হলিউডি কোন হরর-অ্যাডভেঞ্চারাস ফিল্মের গল্প। যার শুরুটা হরর ফিল্মের সেট দিয়ে; যেখানে অন্ধকার, দুর্গন্ধময় আর নোংরা পরিবেশে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখা হয়েছে ‘দুই’ থেকে ‘২৯’ বছর বয়সী কিছু শিশু-কিশোর-যুবাকে।

এরপর ঘটনা মোড় নেয় অ্যাডভেঞ্চারাস গল্পে। বন্দি ছেলেমেয়েদের একজন মুক্ত করতে সমর্থ হয় নিজেকে। দুষ্টু মানুষদের চোখ এড়িয়ে বাড়ির একটি মোবাইল ফোন থেকে সাহায্য চায় পুলিশের। জরুরি নম্বরে ফোন করে জানায় নিজেদের দুর্দশার কথা। এরপর মেলে উদ্ধার আর দুষ্টদের হয় সাজা।

আসলে বাস্তবতা কখনো কখনো হার মানিয়ে যায় অতিকল্পনাকেও। বিষ্মিত হবেন আপনিও, যখন জানবেন এটা কোন গল্পতো নয়ই বরং এরা প্রত্যেকেই বন্দি ছিলেন নিজেদের সবচেয়ে আপন জনের কাছে।

শিকলবন্দি ১৩ সন্তান!

সহজ করে বললে, নিজেদের ১৩ সন্তানকে এভাবেই বেঁধে রাখতেন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় এক দম্পত্তি। আর এ অভিযোগ গ্রেফতার হয়েছেন বাবা-মা। গ্রেফতার হওয়া স্বামী-স্ত্রীর নাম ডেভিড অ্যালেন টুরপিন ও লুইস অ্যানা টুরপিন।

লস অ্যাঞ্জেলেস থেকে ৯৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বে পেরিস  এলাকায় ওই দম্পতির বাড়ি। যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় ঐ বাড়িতে ঐ দম্পতি তাদের দুই থেকে ২৯ বছর বয়সী ১৩ সন্তানকে বিছানার সঙ্গে শিকলে বেঁধে আটকে রেখেছিলেন।

রিভারসাইডের শেরিফের দফতরের এক বিবৃতিতে বলা হয়, ‘যে মেয়েটি পুলিশকে ফোন করেছিল, তার বয়স মাত্র দশ বছর। শারীরিকভাবেও সে বেশ রুগ্ন।

পুলিশকে সে জানায়, তার আরও ১২ ভাইবোনকে আটকে রেখেছে তাদের বাবা-মা।

পুলিশ পরে ওই বাড়িতে গিয়ে মেয়েটির তথ্য মত এসবের সত্যতা দেখতে পায়।

প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় ঐ দম্পতিকে। কিন্তু ওই দম্পতি ছেলেমেয়েদের এভাবে আটকে রাখার কোনো যৌক্তিক ব্যাখ্যা দিতে পারেনি বলে জানানো হয় শেরিফের বিবৃতিতে। উদ্ধার ব্যাক্তিদের স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

সূত্র: ডেইলী মেইল / সিবিএস নিউজ

এ এম / এম এম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে