আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > জাতীয় > ‘বাংলাদেশ ভাষাভিত্তিক রাষ্ট্র’

‘বাংলাদেশ ভাষাভিত্তিক রাষ্ট্র’

‘বাংলাদেশ ভাষাভিত্তিক রাষ্ট্র’

প্রতিচ্ছবি প্রতিবেদক:

সেই ব্রিটিশ শাসন থেকেই বারবার বাংলা ভাষার ওপর আঘাত এসেছে, কলুষিত করার চেষ্টা হয়েছে বাংলা সাহিত্যকে। তবে বরাবরই বাঙালি তার প্রতিবাদ করেছে। শুধু তাই নয় বিশ্বের অনান্য মাতৃভাষা রক্ষায়ও সচেতন হবার আহ্বান জানিয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শনিবার (১৩ জানুয়ারি) রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে আন্তর্জাতিক বাংলা সাহিত্য সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। এ সম্মেলনে যোগ দিয়েছেন বিভিন্ন দেশের ২২৫ জন শিল্পী-সাহিত্যিক।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘বাংলা ভাষার ওপর নানা সময়ে কতভাবে আক্রমণ হয়েছে। সেই আক্রমণ বারবার প্রতিহত করা হয়েছে। এই উপমহাদেশে একমাত্র বাংলাদেশই একটি ভাষাভিত্তিক রাষ্ট্র। বাংলা ভাষাকে ভিত্তি করেই আমাদের স্বাধীনতা।’

তিনি এ ধরনের একটি আয়োজনের জন্য আয়োজকদের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ‘এর মধ্য দিয়ে বাংলা সাহিত্য আরও ঋদ্ধ হবে। নতুন সম্ভাবনা উন্মোচিত করার পাশাপাশি নিজেদের সামর্থ্যকে তুলে ধরবে।’

মাতৃভাষাকে বাঁচিয়ে রাখতে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সাহিত্যচর্চা ন্যায়ভিত্তিক সমাজ গঠনে মানুষকে উদ্বুদ্ধ করে। যে সমাজে সাহিত্য যত ঋদ্ধ, সে সমাজ তত আধুনিক।’ নিজেকে সাধারণ মানুষ উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘দেশকে উন্নত করে গড়ে তুলতে হবে, যাতে বাঙালি বিশ্বে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারে।’

তিনি আরো যোগ করেন, ‘বিশ্বে অনেক মাতৃভাষা হারিয়ে যাচ্ছে। সেটি যেন না হয়, এ জন্য আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট করেছি। সারা বিশ্বের মাতৃভাষা সেখানে সংরক্ষণ হবে, সেসব ভাষা নিয়ে গবেষণা হবে।’

ভাষা আন্দোলনের সঙ্গে বঙ্গবন্ধুর সম্পৃক্ততা ও নেতৃত্ব নিয়ে বিস্তারিত তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘১৯৫২ সালের ২১ ফ্রেব্রুয়ারি ছিল প্রাদেশিক পরিষদের বাজেট ঘোষণার দিন। সে সময় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছিল। তখনকার ছাত্রসমাজ সেটি ভাঙার কারণে গুলিতে শহীদ হন ছাত্রনেতারা।’

এম এম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে