আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > বিনোদন-সংস্কৃতি > জয়ার পুত্রের আগমন

জয়ার পুত্রের আগমন

লাজিম ও জয়া আহসান

প্রতিচ্ছবি বিনোদন ডেস্ক:

নতুন বছরের প্রথম মুক্তিপ্রাপ্ত বাংলাদেশি চলচ্চিত্র ‘পুত্র’। ৫ জানুয়ারি, শুক্রবার দেশের ১০৬টি সিনেমা হলে  মুক্তি পেয়েছে জয়া আহসান ও ফেরদৌস অভিনীত এ ছবিটি। বাংলাদেশ তথ্য মন্ত্রণালয়ের আর্থিক সহযোগিতা ও উদ্যোগে ছবিটি নির্মিত হয়েছে। চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা অধিদপ্তরের প্রযোজনা এবং ইমপ্রেস টেলিফিল্মের তত্ত্বাবধায়নে ‘পুত্র’ পরিচালনা করেছেন সাইফুল ইসলাম মাননু।  ছবিটির পরিবেশক জাজ মাল্টিমিডিয়া।

২০১৮ সালের প্রথম মুক্তিপ্রাপ্ত বাংলাদেশি চলচ্চিত্র ‘পুত্র’

হারুন রশীদের কাহিনিতে ছবির চিত্রনাট্য ও সংলাপ রচনা করেছেন পরিচালক নিজেই। টেলিভিশনের অনেক জনপ্রিয় নাটকের নির্মাতা মাননু পরিচালিত প্রথম চলচ্চিত্র এটি। সমাজে অটিস্টিক শিশুদের বেড়ে ওঠা, পরিবারের চ্যালেঞ্জ এবং পারিপার্শ্বিক সামাজিক অবস্থায় একটি অটিস্টিক শিশুর জীবন-যাপন কেমন হয়, শিশুটি কিভাবে বেড়ে ওঠে, সেসব দৃশ্যপট তুলে ধরা হয়েছে ‘পুত্র’ ছবিতে।

ছবির কাহিনিতে দেখা যাবে,  ফারিহা ও ফেরদৌসের দুই সন্তান লাজিম ও তাহসিন। ছোট ছেলে স্বাভাবিকভাবে জন্ম নিলেও বড় ছেলে লাজিম অটিস্টিক বা স্পেশাল চাইল্ড হিসেবে বেড়ে উঠতে থাকে। কাজেই, বড় সন্তানকে লালন-পালন করতে পদে পদে সংগ্রাম করতে হয় তাদের।

জয়া আহসান ও ফেরদৌস

ছবিতে অটিস্টিক শিশুর চরিত্রে অভিনয় করেছেন শিশুশিল্পী লাজিম। জয়া আহসানকে দেখা যাবে লাজিমের স্কুল শিক্ষিকার চরিত্রে। অন্যদিকে, লাজিম ও তাহসিনের বাবা-মায়ের চরিত্রে অভিনয় করেছেন ফেরদৌস ও শর্মীমালা। ছবিতে আরও আছেন ডলি জোহর, আজিজুল হাকিম ও ছোট পর্দার অভিনেত্রী জ্যোতিকা জ্যোতি। এছাড়া অতিথি চরিত্রে অভিনয় করেছেন শাকিব খান, ফাহমিদা নবী, বাপ্পা মজুমদার ও মেহরীন।

মূলত প্রতিবন্ধী শিশুদের বেড়ে ওঠার নানা দিক নিয়েই আবর্তিত হয়েছে ‘পুত্র’র গল্প। একটি প্রতিবন্ধী শিশুর জীবনে কী ধরনের প্রতিবন্ধকতা দেখা দেয়, সেসবই ফুটিয়ে তোলা হয়েছে ছবিতে।

জাজ মাল্টিমিডিয়ার পরিবেশনায় সাইফুল ইসলাম মান্নু পরিচালিত অটিস্টিক শিশুর গল্পের এ সিনেমা নিয়ে বেশ উচ্ছ্বসিত অভিনেত্রী জয়া। সিনেমাটি নিয়ে ফেসবুক স্ট্যাটাসে তিনি লিখেছেন, ‘স্পেশাল চাইল্ডদের নিয়ে নির্মিত সিনেমা ‘পুত্র’। বাংলাদেশ সরকারকে আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ এমন একটি সেনসিটিভ ইস্যু নিয়ে সিনেমা বানানোর জন্য। যা সত্যিই জনসাধারণের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি করবে।’

জয়া-আহসান ও লাজিম

সিনেমা প্রসঙ্গে জয়া বলেন, ‘আজ পুত্রের দিন। সিনেমাটি সবারই দেখা উচিত। আশা করি সবাই হলে গিয়ে ‘পুত্র’ দেখবেন।’

এ সিনেমা থেকে আয় হওয়া অর্থ অটিস্টিক মানুষের কল্যাণে ব্যয় করা হবে বলে জানানো হয়েছে। মূলত সমাজে প্রতিবন্ধী শিশুদের ভালো চোখে দেখা হয় না। তারাও যে দেশের সম্পদ সেটি অনেকেই মানতে চায় না। সচেতনতার অভাবেই এমনটি হচ্ছে। এ বিষয়টিই তুলে ধরা হয়েছে নতুন এ সিনেমাতে।

জাজ মাল্টিমিডিয়া জানায়, এ তালিকায় আরো ১০-১৫টি হলের নাম যুক্ত হবে। ‘পুত্র’ ছবিটির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন ফেরদৌস, জয়া আহসান, ডলি জহুর, আহসান হাবিব, রিচি সোলায়মান ও সাবেরি আলম প্রমুখ।

ঢাকার যে সকল হলে দেখা যাবে ‘পুত্র’

১। স্টার সিনেপ্লেক্স – বসুন্ধরা সিটি, পান্থপথ, ঢাকা, ২। ব্লক বাস্টার – যমুনা ফিউচার পার্ক, ঢাকা, ৩। বলাকা – ঢাকা, ৪। মধুমিতা – ঢাকা, ৫ শ্যামলী – ঢাকা, ৬। সনি – ঢাকা, ৭। চিত্রামহল – ঢাকা, ৮। আনন্দ – ঢাকা, ৯। জোনাকি – ঢাকা, ১০। সেনা – ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট, ১১। গীত – ঢাকা, ১২। নিউ গুলশান – জিঞ্জিরা, ঢাকা, ১৩। পুরবী – মিরপুর-১১, ঢাকা, ১৪। পুনম – রায়েরবাগ, ঢাকা, ১৫। রানিমহল – ডেমরা, ঢাকা, ১৬। সেনা – নবীনগর, সাভার ক্যান্টনমেন্ট, ১৭। চম্পাকলি – টঙ্গী, ১৮। বর্ষা – জয়দেবপুর।

সারাদেশের যে সকল সিনেমা হলে দেখা যাবে ‘পুত্র’…

ঢাকার বাইরে: নিউ মেট্রো (নারায়ণগঞ্জ), চাঁদমহল (কাঁচপুর), মনিহার (যশোর), নন্দিতা (সিলেট), উপহার (রাজশাহী), রূপকথা (পাবনা), শাপলা (রংপুর), পূরবী (ময়মনসিংহ), অভিরুচি (বরিশাল), আলমাস (চট্টগ্রাম), শঙ্খ (খুলনা), চিত্রালী (খুলনা), মর্ডাণ (দিনাজপুর), সনিয়া (বগুড়া), রূপালি (কুমিল্লা), গ্যারিসন (ময়নামতি ক্যান্টঃ), কাকলী (শেরপুর), মনোয়ার (জামালপুর), মানসী (কিশোরগঞ্জ), পান্না (মুক্তারপুর), ঝংকার (পাঁচদোনা), সাগরিকা (চালা), কেয়া (টাঙ্গাইল), রূপসী (ভোলা), পূর্বাশা (সান্তাহার), মধুমতি (ভৈরব), হ্যাপি (লক্ষ্মীপুর), নবীন (মানিকগঞ্জ), চলন্তিকা (গোপালদি), হীরামন (নেত্রাকোনা), তিতাস (পটুয়াখালী), কাজলী (মতলব), সিকতা (ধনুট), ছন্দা (পটিয়া), রাজমহল (চাঁপাইনবাবগঞ্জ), মুন (হোমনা), পালকী (চান্দিনা), উর্বশী (ফুলবাড়ী)।

এছাড়া, বনলতা (ফরিদপুর), কানন (ফেনী), হিরক (গোবিন্দগঞ্জ), মোহনা (কোনাবাড়ী), মোহন (হবিগঞ্জ), মনিকা (শেহতাজগঞ্জ), আলতা (সরিষাবাড়ী), ঝংকার (বশকিগনঞ্জ), প্রিয়া (ঝিনাইদহ), রাজ (কুলিয়ারচর), বনানী (কুষ্টিয়া), মিলন (মাদারীপুর), মধুমিতা (মাগুড়া), মেহেরপুর (মেহেরপুর), মুন (মুক্তাগাছা), ফিরোজমহল (পাগলা), গ্যারিসন (দয়ারামপুর), তামান্না (সৈয়দপুর), ছন্দা (হাসনাবাদ), আলিম (মাঠবাড়ী), সাধনা (রাজবাড়ী), সংগীতা (সাতক্ষীরা), আলোছায়া (শরিয়তপুর), বর্ণালী (শাহজাতপুর), মাধবী (মধুপুর), রাজিয়া (নাগরপুর), মায়াবী (আখাউড়া), অবসর (বিরামপুর), সুরভী (শিবচর), আলমডাঙ্গা (আলমডাঙ্গা), অনামিকা (পিরোজপুর), আনন্দ (তানোর), আয়না (আক্কেলপুর), ছন্দা (কালীগঞ্জ), দিনান্তা (কেশরহাট), জনতা (দাউদকান্দি), লাইটহাউজ (পারুলিয়া), মমতাজ মহল (নীলফামারী), নসিব (সাপাহার), রাজু (ঈশ্বরদী), রংধনু (নাজিরপুর), সোনালী (ঘোড়াঘাট), সনি (ইসলামপুর), উল্লাস (বীরগঞ্জ)।

এ এম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে