আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > জাতীয় > মেননের কাছে যা গালি, কামালের কাছে তা-ই পানি

মেননের কাছে যা গালি, কামালের কাছে তা-ই পানি

ডান দিক থেকে এ কে এম শাহজাহান কামাল ও রাশেদ খান মেনন

প্রতিচ্ছবি প্রতিবেদক:

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রনালয়ের নতুন মন্ত্রী এ কে এম শাহজাহান কামালকে সতর্ক করে দিয়ে রাশেদ খান মেনন বলেছেন, ‘আমাদের যত অর্জন, সব বিমানের কারণেই শেষ হয়ে যাচ্ছে। এটা নিয়েই বেশি গালি খাবেন।’

আর রাশেদ খান মেননকে আশ্বস্ত করে এ কে এম শাহজাহান কামাল বলেছেন, ‘বিমানকে আরো লাভজনক প্রতিষ্ঠান হিসেবে রূপান্তর করব। অনেকের কাছে এটা আগুন হলেও, আমার কাছে পানি।’

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে মন্ত্রনালয়ের দায়িত্ব হস্তান্তর অনুষ্ঠানে নতুন মন্ত্রীকে এ সতর্কবাণী শোনান রাশেদ খান মেনন। এরপর মেননের কাছ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব বুঝে নিয়ে মন্ত্রী হিসেবে প্রথম বক্তব্যে এমন আশার বাণী শোনান এ কে এম শাহজাহান কামাল।

দায়িত্ব হস্তান্তর অনুষ্ঠানে রাশেদ খান মেনন বলেন, ‘যখন প্রধানমন্ত্রী আমাকে এই মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দিলেন তখন অনেকে আমাকে তাচ্ছিল্য করে বলেছিলেন, ‘একটা ডুবন্ত জাহাজ তোমাকে তুলতে দেওয়া হয়েছে’। আমি আজ তৃপ্ত মনে বিদায় নিচ্ছি এজন্য যে অন্তত চ্যালেঞ্জগুলো মোকাবেলা করতে সক্ষম হয়েছি।’বাম দিক থেকে রাশেদ খান মেনন ও এ কে এম শাহজাহান কামাল

মেননের চার বছরে দেশের প্রধান বিমানবন্দর শাহজালালের নিরাপত্তা প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে একাধিক ঘটনায়। নিরাপত্তা শঙ্কার কারণ দেখিয়ে যুক্তরাজ্য ২০১৬ সালের মার্চে ঢাকা থেকে আকাশপথে কার্গো বহনে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে, যা এখনও ওঠেনি। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের মুনাফা এ বছর কমে আসার পেছনে ওই নিষেধাজ্ঞাও ভূমিকা রেখেছে।

এদিকে, দায়িত্ব বুঝে নিয়ে নতুন মন্ত্রী এ কে এম শাহজাহান কামাল বলেন, ‘অনেকে বলেছে আমাকে নিক্ষেপ করা হয়েছে’। না না না এটা আগুন নয়, এটা আমার জন্য পানি। আমি পারব ইনশাল্লাহ, আমি আশাবাদী, আমি নিরাশাবাদী নই, আপনাদের সহযোগিতা চাই।’

নতুন মন্ত্রী আরো বলেন, ‘বিমান ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের অনেক বদনাম শুনেছি। বিমানে চড়লে ঠিকমত সার্ভিস দেয় না এবং জনগণ বিমানের ভালো সার্ভিস পায় না। এই বদনামকে আমি ধুয়েমুছে সুন্দর করে পরিষ্কার করে দেব।’

মন্ত্রণালয়ের বদনামের কথা বললেও বিদায়ী মন্ত্রী মেননের প্রশংসা ঝরেছে নতুন মন্ত্রীর কণ্ঠে। কামাল বলেন, ‘তিনি চার বছর এই মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে ছিলেন। অত্যন্ত সুন্দরভাবে পরিচালনা করেছেন। তার বক্তৃতা থেকে কিছুটা অভিজ্ঞতা নিয়েছি। আজ উনি এখান থেকে বিদায় নিচ্ছেন, কিন্তু আমি বিদায় দিতে চাই না। আমি মনে করি তিনি সব সময় আমাকে সহযোগিতা করবেন।’

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার (২ জানুয়ারি) বঙ্গভবনে নতুন মন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন লক্ষ্মীপুরের সাংসদ এ কে এম শাহজাহান কামাল। এরপর বুধবার (৩ জানুয়ারি) মন্ত্রিসভার এক প্রজ্ঞাপনে তাকে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রনালয়ের দায়িত্ব দেয়া হয়। একইসঙ্গে আগের মন্ত্রী রাশেদ খান মেননকে সমাজকল্যাণ মন্ত্রনালয়ে বদলি করা হয়।

আর

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে