আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > খেলাধুলা > দর্শক পিটিয়ে শাস্তির মুখে সাব্বির!

দর্শক পিটিয়ে শাস্তির মুখে সাব্বির!

সাব্বির রহমান

প্রতিচ্ছবি ক্রীড়া ডেস্ক:

মাঠে একের পর এক অখেলোয়াড়ি আচরণ দেখিয়ে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলে এরই মধ্যে নিজেকে ‘ব্যাডবয়’ নামে পরিচিত করেছেন ব্যাটিং অলরাউন্ডার সাব্বির রহমান। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এরই মধ্যে তিনটি ‘ডিমেরিট’ পয়েন্ট যোগ হয়েছে সাব্বির রহমানের নামে।

সদ্য সমাপ্ত বিপিএলে আম্পায়ারকে গালি দিয়ে গুণেছেন দেড় লাখ টাকা জরিমানা। তার আগের বিপিএলে নারী কেলেঙ্কারিতে ১৩ লাখ টাকা জরিমানা করা হয় তাকে। কদিন পর পরই এই তরুণ ব্যাটসম্যান সংবাদ শিরোনাম হচ্ছেন নেতিবাচক ঘটনায়।

এবার যা করেছেন তা আগের কুকীর্তিকে ছাপিয়েও গেছে। ২১ ডিসেম্বর রাজশাহীর শহীদ কামরুজ্জামান স্টেডিয়ামে জাতীয় লিগের শেষ রাউন্ডে রাজশাহী-ঢাকা মহানগরের ম্যাচের দ্বিতীয় দিনে লাঞ্চের ঘণ্টাখানেক পর ঘটেছে ঘটনাটা। তখন মহানগর প্রথম ইনিংসে ব্যাটিং করছে। সাব্বির খেলেছেন রাজশাহীর হয়ে।

ড্রেসিংরুম থেকে নেমে সাব্বির যাচ্ছিলেন মাঠের দিকে। এ সময় গ্যালারি থেকে তাকে লক্ষ্য করে কেউ একজন ‘ম্যাঁও’ বলে চিৎকার করে। খেলা চলাকালিন পরিচিত কাউকে দিয়ে ওই দর্শককে ধরিয়ে আনেন সাব্বির। মাঠের দুই আম্পায়ার গাজী সোহেল ও তানভীর আহমেদের কাছ থেকে অনুমতি নিয়ে খেলা ফেলেই সাইটস্ক্রিনের পেছনে ১০-১২ বছর বয়সী ওই কিশোর দর্শককে মারধর করেন এই ব্যাটসম্যান।

বেলা ৪টার সময় ম্যাচ রেফারি শওকাতুর রহমানকে মৌখিকভাবে বিষয়টা জানান রিজার্ভ আম্পায়ার শওকত আলী। ঘটনাস্থলে থাকা আকসুর প্রতিনিধি আহসান হাবিবও ম্যাচ রেফারিকে নিশ্চিত করেন ঘটনাটা। পরের দিন সাব্বির ও দলের ম্যানেজারকে ডাকেন ম্যাচ রেফারি।

ম্যাচ রেফারি সাব্বিরকে ডাকলে, আরো ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন তিনি। যদি এটা নিয়ে বিসিবিকে কোনো প্রতিবেদন দেয়া হয় তবে অসুবিধা হবে বলে ম্যাচ রেফারি ও আম্পায়ারদের হুমকি-ধামকি দিতে থাকেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

ম্যাচ চলার সময়ই গত ২২ ডিসেম্বর সাব্বিরের বিরুদ্ধে গুরুতর শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগ এনে বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগে প্রতিবেদন জমা দিয়েছেন ম্যাচ রেফারি শওকাতুর রহমান। কোনো খেলোয়াড় মাঠে কাউকে লাঞ্ছিত করলে শাস্তি হিসেবে সর্বোচ্চ ৫ লাখ টাকা পর্যন্ত জরিমানা ও ঘরোয়া লিগে কয়েকটি ম্যাচ নিষিদ্ধ হওয়ার নিয়ম রয়েছে।

বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান আকরাম খান আজ দুপুরে বলেন, ‘আমি এরই মধ্যে প্রতিবেদনটা শৃঙ্খলা কমিটিকে দিয়ে দিয়েছি। তারা বাকি সিদ্ধান্ত নেবে।’

যদিও ডিসিপ্লিনারি কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান শেখ সোহেল জানালেন এখনো প্রতিবেদনটা পাননি, ‘এখনো আমাদের কমিটির কাছে সাব্বিরের বিষয়টি আসেনি। তবে আমি শুনেছি সে কি করেছে। একটা বিষয় পরিষ্কার করে বলে দিতে চাই কোনো ভাবেই তিনি রেহায় পাবেন না যদি ঘটনা সত্যি হয়ে থাকে। আপনারা দেখেছেন সাকিব, রুবেল এমনকি তামিমকেও আমরা ছাড় দেইনি। সাব্বিরের যে অপরাধ সেটি বিসিবির ভাবমূর্তিই ক্ষতি করে তা নয়, দলের নতুন ক্রিকেটারদের উপরও এর বাজে প্রভাব পড়বে। দেশের ক্রিকেটের কোনো ক্ষতিতো আমরা হতে দেবো না।’

অন্যদিকে সাব্বির রহমান দোষী হলে কি ধরনের শাস্তি হতে পারে এমন প্রশ্নের জবাবে শেখ সোহেল বলেন, ‘আগেও তিনি এমন করেছেন, শাস্তিও হয়েছে। এবারো দোষ প্রমাণ হলে তার বড় শাস্তিই হবে। সেটি আর্থিক জরিমানা ছাড়াও কয়েকটি ম্যাচ নিষিদ্ধও হতে পারে।’

আজ বৃহস্পতিবার মিরপুরে বিষয়টিকে সম্পূর্ণ অস্বীকার করে সাব্বির বলেছেন, ‘আমি কিছু জানি না। আগামীকাল আপনাদের জানাতে পারবো কি হয়।’

এসএম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে