আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > আন্তর্জাতিক > ‘জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা যুদ্ধ ঘোষণার শামিল’

‘জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা যুদ্ধ ঘোষণার শামিল’

‘জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা যুদ্ধ ঘোষণার শামিল’

প্রতিচ্ছবি ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক :

জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে গত শুক্রবার উত্তর কোরিয়ার বেশকিছু ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞাজারি হয়। আর এসব নিষেধাজ্ঞাকে “যুদ্ধ ঘোষণার শামিল” বলে অভিহিত করেছে উত্তর কোরিয়া।

ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার জেরে শুক্রবার দেশটির পরিশোধিত পেট্রলিয়াম পণ্য ও অপরিশোধিত খনিজ তেল এবং বিভিন্ন দেশে কর্মরত উ.কোরিয়ার নাগরিকদের উপর নিষেধাজ্ঞাজারী করা হয়।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে জাতিসংঘের সর্বশেষ নিষেধাজ্ঞাকে বলা হয়েছে “প্রজাতন্ত্রের সার্বভৌমত্বের লঙ্ঘন হিসেবে এবং ‘যুদ্ধ ঘোষণার শামিল’ যা কোরীয় উপদ্বীপ ও বৃহত্তর আঞ্চলিক শান্তি ও স্থিতিশীলতা ধ্বংস করছে।”

নিষেধাজ্ঞায় আরো রয়েছে ৯০% পরিশোধিত পেট্রলিয়াম পণ্যের আমদানি বাতিল করে দেয়া। এছাড়া শেষ মুহূর্তের পরিবর্তনে ২৪ মাসের পরিবর্তে ১২ মাসেই উ.কোরিয়ার কর্মরত নাগরিকদের দেশে ফেরত পাঠানোর সিন্ধান্ত গ্রহন করা হয়। এসব সিদ্ধান্তে উ.কোরিয়ার অর্থনীতি প্রভাবিত হবে।

উ. কোরিয়া সরকার জানায়, ‘এই নিষেধাজ্ঞায় সম্মতি জানিয়ে যারা ভোট দিয়েছেন তারা পিয়ংইয়ংয়ের ক্রোধের শিকার হবে।’

দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উদ্বৃত্তি দিয়ে কে.সি.এন.এ.-র বার্তা সংস্থার বিবৃতিতে জানা যায়, উ. কোরিয়ার পারমাণবিক কর্মকাণ্ডে যুক্তরাষ্ট্র আতংকিত।

প্রসঙ্গত, এটি ছিল উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের ১০ম নিষেধাজ্ঞা আরোপ।

সূত্র : রয়টার্স

জে এস / এম এম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে