আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > নির্বাচন > রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন > রসিক নির্বাচন: ভোটের অপেক্ষায় ভোটার-প্রার্থীরা

রসিক নির্বাচন: ভোটের অপেক্ষায় ভোটার-প্রার্থীরা

রসিক নির্বাচন: ভোটের অপেক্ষায় ভোটার-প্রার্থীরা

প্রতিচ্ছবি প্রতিবেদক

অপেক্ষা আর মাত্র কয়েক ঘণ্টার। এরপরই প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হবে দলীয় প্রতীকে রংপুর সিটি কর্পোরেশন (রসিক) নির্বাচন। গতরাতেই শেষ হয়েছে প্রচারণা পর্ব। এখন প্রার্থী ও ভোটারদের মধ্যে চলছে শেষ মুহুর্তের প্রস্তুতি।

নির্বাচনকে ঘিরে রংপুর নগরীতে বিরাজ করছে উৎসবের আমেজ। প্রার্থীদের পোস্টার ব্যানারে ছেয়ে গেছে পুরো নগরী। পছন্দের নগরপিতাকে ভোট দিতে অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন নগরীর ভোটাররা।

আছে অভিযোগ-পাল্টা অভিযোগ, আছে প্রার্থীদের নানা প্রতিশ্রুতিও। নির্বাচনী এই ডামাডোলের মধ্যে পরবর্তী নগরপিতা কে হচ্ছেন তা নিয়ে হিসাব মেলাতে শুরু করেছেন ভোটাররা। চায়ের দোকান থেকে শুরু করে অফিস আদালত, মাঠঘাটে একটাই প্রশ্ন কে হচ্ছেন রংপুরের পরবর্তী নগরপিতা? নির্বাচন কমিশনের কঠোর মনোভাবের কারণে ভোটারদের মধ্যে ভোট নিয়ে শঙ্কা কম।

২১ ডিসেম্বরের ভোটে সাতজন মেয়র প্রার্থী ও ২৭৬ জন কাউন্সিলর প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। মেয়র প্রার্থীরা হচ্ছেন- জাতীয় পার্টির মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা (লাঙ্গল), বিএনপির কাওসার জামান বাবলা (ধানের শীষ), আওয়ামী লীগের সাবেক মেয়র সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টু (নৌকা), জাতীয় পার্টির বিদ্রোহী নেতা স্বতন্ত্র প্রার্থী হুসেইন মকবুল শাহরিয়ার (হাতি), বাসদের আবদুল কুদ্দুস (মই), ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের এটিএম গোলাম মোস্তফা (হাতপাখা) ও ন্যাশনাল পিপলস পার্টির মো. সেলিম আকতার (আম)।

সিটি কর্পোরেশনের উন্নয়নের অসমাপ্ত কাজ শেষ করতে চান বলে জানিয়ে আওয়ামী লীগ প্রার্থী সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টু বলেন, নৌকার বিজয় নিশ্চিত। রংপুরবাসী নৌকাকে বিজয়ী করতে চান। ভোটাররাও নৌকার পক্ষেই আছেন।

জাতীয় পার্টির প্রার্থী মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা বলেন, আধুনিক নগরী গড়ার প্রত্যয় নিয়ে নির্বাচনে অংশ নিয়েছি। মেয়র নির্বাচিত হলে আধুনিক নগরী গড়ার জন্য যা করা দরকার তাই করব। নগরবাসীর জন্য জনদুর্ভোগের কারণ অনুসন্ধান করে তা প্রতিকারের জন্য কাজ করে যাব।

বিএনপি প্রার্থী কাওছার জামান বাবলার বলেন, বিএনপিসহ ২০ দলীয় জোটের নেতারা আমার জন্য মাঠে কাজ করছেন। রংপুরের মানুষও বিএনপির পক্ষে আছেন। বর্তমান সরকারের পায়ের নিচে মাটি নেই। সরকারের অন্যায় অত্যাচার ও জুলেমের বিরুদ্ধে সোচ্চার সবাই।

স্বতন্ত্র প্রার্থী হুসেইন মকবুল শাহরিয়ার বলেন, মেয়র নির্বাচিত হলে সততার সঙ্গে কাজ করে যাব। আমার মনে হয় রংপুরের মানুষ একজন ভালো মেয়র প্রার্থী নির্বাচন করবেন। আমি সেই দাবি নিয়ে বলতে পারি আমার প্রতীক হাতি মার্কায় রংপুরের মানুষ ভোট দেবেন। আমি জয়যুক্ত হব।

রিটার্নিং অফিসার সুভাষ চন্দ্র সরকার জানান, রংপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। সাত মেয়র প্রার্থীসহ ৩৩টি ওয়ার্ডের নির্বাচনে সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২১১ ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ৬৫ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

এ আর

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে