আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > চট্টগ্রাম > মহিউদ্দিনের কুলখানি: নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১০

মহিউদ্দিনের কুলখানি: নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১০

মহিউদ্দিনের কুলখানি: নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১১

প্রতিচ্ছবি চট্টগ্রাম প্রতিনিধি:

চট্টগ্রামের সাবেক মেয়র আওয়ামী লীগ নেতা এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর কুলখানিতে আয়োজিত মেজবানে পদদলিত হয়ে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১০এ দাঁড়িয়েছে। এছাড়া আহতের অনেকেই শঙ্কটাপন্ন।

এদিকে দুর্ঘটনার শিকার পরিবারগুলোর পাশে দাড়াবার ঘোষণা দিয়েছে চট্টলাবীর মহিউদ্দিন চৌধুরীর পরিবার। নিহতদের পরিবারকে ১ লক্ষ টাকা করে সহায়তা এবং আহতদের চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছে তারা।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে নিহত ও আহতদের দেখতে এসে মহিউদ্দিন চৌধুরীর ছেলে মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল এ ঘোষণা দেন। এ সময় মৃতব্যাক্তিদের আত্মার শান্তি কামনা করেন তিনি।

এদিকে ঘটনার পরই রিমা কমিউনিটি সেন্টারে ছুটে যান চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের কমিশনার ইকবাল বাহার। তিনি প্রতিচ্ছবিকে বলেন, ‘অতিরিক্ত মানুষের চাপে এ দুর্ঘটনা ঘটে। গেটটি ছোট হওয়ায় হুড়োহুড়ি করে অনেকেই এক সঙ্গে ভেতরে ঢুকছিলেন। এ সময় পড়ে গেলে পদদলিত হয়ে ৯ জন মারা যান। পরে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১১ দাড়ায়।’

তবে নিরাপত্তার কোনো কমতি ছিল না বলে জানান সিএমপি কমিশনার ইকবাল বাহার।

নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে নয়জনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তাঁরা হলেন সুধীর দাস, দীপংকর রাহুল দাস, আশিস বড়ুয়া, রীবন দাস, উজ্জ্বল চৌধুরী, প্রদীপ তালুকদার, ঝন্টু দাস, কৃষ্ণপদ দাস ও লিটন দেব।

উল্লেখ্য, রিমা কমিউনিটি সেন্টারের পাশাপাশি নগরীর আরও ১৪টি কমিউনিটি সেন্টারে কুলখানি ও মেজবানের আয়োজন করা হয়। এগুলো হচ্ছে- কিং অব চিটাগাং, স্কয়ার, কিশলয়, সুইস পার্ক, স্মরণিকা, এন মোহাম্মদ, কে বি কনভেনশন হল, ভিআইপি ব্যাংকুয়েট, গোল্ডেন টাচ, স্মরণিকা, সাগরিকা কমিউনিটি সেন্টার।

প্রসঙ্গত, গত ১৪ ডিসেম্বর দিনগত রাত ৩টার দিকে বন্দরনগরীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন চট্টল বীর এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী।

জয় নয়ন / এ আর / এম এম

আরো জানতে পড়ুন

মহিউদ্দিন চৌধুরীর কুলখানিতে পদদলিত হয়ে ১০ জনের মৃত্যু

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে