আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > জাতীয় > ‘বাংলাদেশে আকায়েদের জঙ্গি সংশ্লিষ্টতার তথ্য পাওয়া যায়নি’

‘বাংলাদেশে আকায়েদের জঙ্গি সংশ্লিষ্টতার তথ্য পাওয়া যায়নি’

আকায়েদ উল্লাহ

প্রতিচ্ছবি প্রতিবেদক:

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে বোমা হামলার অভিযোগে গ্রেফতার বাংলাদেশি আকায়েদ উল্লাহর (২৭) সম্পর্কে বাংলাদেশে জঙ্গি সংশ্লিষ্টতার কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছেন পুলিশের কাউন্টার টোরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম।

বুধবার (১২ ডিসেম্বর) দুপুরে রাজধানীর মিন্টো রোড়ে মিডিয়া সেন্টারে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান মনিরুল ইসলাম।

তিনি বলেন, “আকায়েদ নিউইয়র্কেই জঙ্গিবাদে ‘হোম গ্রোন’ হয়েছে। সে ইন্টারনেটের মাধ্যমে জঙ্গিবাদে উদ্বুদ্ধ হয়ে বলে আমরা ধারণা করছি। তবে বাংলাদেশে তার জঙ্গি সংশ্লিষ্টতার কোনো রেকর্ড পাওয়া যায়নি। তবে সে দেশে কাদের সঙ্গে যোগাযোগ করতো সে বিষয়ে তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।”

তিনি আরো বলেন, “বিষয়টি আমরা খুব গুরুত্বের সঙ্গে তদন্ত করছি। কারণ, আমেরিকায় অনেক বাংলাদেশি প্রবাসী আছেন, যারা সেখানে নানা ব্যবসা-বাণিজ্য ও চাকরি করছেন, তাদের ওপর যাতে এ ঘটনার কোনো প্রভাব না পড়ে সেজন্য আমরা তদন্ত করছি।”

“এ বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে আমাদের অনানুষ্ঠানিক যোগাযোগ রয়েছে। যদি তারা আমাদের সঙ্গে আনুষ্ঠানিকভাবে যোগাযোগ করে সহায়তা চায় তবে আমরা তাদের সহযোগিতা করবো”, যোগ করেন মনিরুল ইসলাম।

আকায়েদ কীভাবে রেডিক্যালাইজড হয়েছিল? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে সিটিটিসি’র প্রধান বলেন, “সে বিকারগ্রস্থ ছিলো কি না বা কারও দ্বারা উদ্বুদ্ধ হয়ে জঙ্গিবাদে জড়িয়েছে কি না সেটি ওই দেশের আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর তদন্তে বেরিয়ে আসবে।

আমরা তার স্ত্রী, শ্বশুর-শাশুড়ি ও শ্যালককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডেকেছিলাম, তারা আমদের সঙ্গে কথা বলেছেন। তদন্তের প্রয়োজনে আবারও তাদের ডেকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হতে পারে।”

সিটিটিসি ইউনিটের প্রধান আরো বলেন, “এখন পর্যন্ত আমরা জেনেছি আকায়েদের গ্রামের বাড়ি চট্টগ্রামের সন্দ্বীপে। সেখান থেকে তারা ঢাকায় এসে বসতি স্থাপন করে। আকায়েদের বাবা সানাউল্লাহ অনেক আগেই তার মামার সঙ্গে আমেরিকায় যান। সেখানে গিয়ে তিনি ব্যবসা করেন। সে সময় আকায়েদ ঢাকার সিটি কলেজে বিবিএ পড়তো। পরে ২০১১ সালে সানাউল্লাহ তার পুরো পরিবারকে আমেরিকায় নিয়ে যান।”

আর এইচ 

 

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে