আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > অর্থ-বাণিজ্য > সরকারি সার্ভিস ডিজিটালাইজ করতেই ‘ডাক টাকা’: জয়

সরকারি সার্ভিস ডিজিটালাইজ করতেই ‘ডাক টাকা’: জয়

প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় ১১ ডিসেম্বর, ২০১৭ ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সম্মেলনে কক্ষে ‘ডাক টাকা’ প্ল্যাটফর্মের ‍উদ্বোধন করেন।

প্রতিচ্ছবি প্রতিবেদক:

প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় সোমবার ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সম্মেলনে কক্ষে ‘ডাক টাকা’ প্ল্যাটফর্মের ‍উদ্বোধন করেন। মাত্র দুই টাকায় অ্যাকাউন্ট খোলার সুবিধা নিয়ে এ সেবা চালু করেছে বাংলাদেশ ডাক বিভাগ।

ব্যাংকির সেবার বাইরে থাকা দেশের প্রায় তিন কোটি মানুষকে আগামী এক বছরে এ সেবার আওতায় নিয়ে আসাই ডাক বিভাগের লক্ষ্য। ‘ডাক টাকা’ ব্যবহারকারীরা অন্যান্য আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গেও লেনদেন করতে পারবেন। এর বাণিজ্যিক কার্যক্রম শুরু হবে আগামী তিন মাসের মধ্যে। শুধু তাই নয় এর মাধ্যমে কার্ড বা অ্যাপ ব্যবহার করে কেনাকাটারও সুযোগ দেয়া হবে।

জয় বলেন, ‘সরকারি সার্ভিস আমরা ডিজিটাইজ করছি, আমরা চাই মানুষের জীবন সহজ করতে। সব কিছু যাতে মোবাইলে, অনলাইনে পেতে পারে।… মোবাইল ফাইনানশিয়াল সার্ভিস ডিজিটাইজ না করা পর্যন্ত এটা সম্ভব হবে না।’

‘ডাক টাকা’ প্ল্যাটফর্মকে সেই চেষ্টা বাস্তবায়নের পথে প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে বর্ণনা করেন জয়। তিনি বলেন, ‘আজ এই সফটওয়্যার দেখে খুব আনন্দিত। আশা করি এটা সাকসেসফুল হবে, মানুষ যত বেশি এটা ব্যবহার করবে, তত বেশি সেবা পাবে। আমি এটা দেখে খুবই আনন্দিত যে দুই টাকা দিয়ে ব্যাংক হিসাব খোলা হল।’

দেশে ডাক বিভাগের আট হাজারের বেশি ডাকঘর আছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা বলেন, ‘সব জায়গায় ব্যাংক ও ইউনিয়ন পর্যায়ে ব্যাংক থাকে না। এই ডিজিটাল টাকা মানুষের হাতে কীভাবে পৌঁছানো যায়, সে চিন্তা আমাদের ছিল। আমরা ঠিক করলাম ডাকঘর দিয়ে এই সেবা মানুষের কাছে পৌঁছাব। ঘরে বসে তারা টাকা লেনদেন করতে পারবেন, সরকারি ভাতার টাকা ডিজিটালি খরচ করতে পারবেন।’

এদিকে আগামী ২০২১ সালের মধ্যে ডাক বিভাগকে সম্পূর্ণ ডিজিটাইজ করার লক্ষ্যের কথা জানিয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেন, ‘ডাক টাকা’ সেবার মাধ্যমে ২০১৮ সালের মধ্যে তিন কোটি মানুষকে ব্যাংকিং সেবার আওতায় নিয়ে আসতে চান তারা।

ডাক বিভাগের এই সেবায় টেকিনিক্যাল পার্টনার ও পেমেন্ট সুইচ প্রোভাইযডার (আইটিসিএল) ডি-মানির ভাইস চেয়ারম্যান সোনিয়া বশির কবির অনুষ্ঠানে জানান, এই সেবায় খুব সহজেই ‘ডাক টাকা’ অ্যাকাউন্ট খুলে পোস্টাল ক্যাশ কার্ডের মাধ্যমে টাকা তোলা ও জমা দেওয়া যাবে। দুই টাকা জমা দিয়েই নাগরিকরা এই অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন।

অন্যদের মধ্যে ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদার, স্কয়ার গ্রুপের পরিচালক ও ডিমানির চেয়ারম্যান অঞ্জন চৌধুরীসহ জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তারা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

এম এম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে