আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > অপরাধ > বিডিআর বিদ্রোহ: ফের রায় পড়া শুরু; তবে আজই শেষ হচ্ছে না

বিডিআর বিদ্রোহ: ফের রায় পড়া শুরু; তবে আজই শেষ হচ্ছে না

বিডিআর বিদ্রোহ

প্রতিচ্ছবি প্রতিবেদক:

পিলখানায় নারকীয় হত্যাযজ্ঞের ঘটনায় করা হত্যা মামলায় হাইকোর্টের সম্পুর্ন রায়টি আজ পড়া শেষ হচ্ছে না। সকালে রায় পড়ার সময় ‘এক হাজার পৃষ্ঠার পর্যবেক্ষণ রয়েছে’ জানিয়ে এ কথা বলেন বিচারপতি মো. আবু জাফর সিদ্দিকী। এদিকে দুপুরে একঘন্টা বিরতিশেষে আবার রায় পড়া শুরু করেছেন আদালত।

এক হাজার পৃষ্ঠারও বেশি রায় কাল সোমবারও পড়বেন বিচারকেরা। আজ সকাল ১০টা ৫৫ মিনিটে বিচারপতি মো. শওকত হোসেনের নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের বিশেষ বেঞ্চে মামলাটির রায় পড়া শুরু হয়। শুরুতে শওকত হোসেন রায় পড়েন। বেঞ্চের অপর দুই সদস্য হলেন বিচারপতি মো. আবু জাফর সিদ্দিকী ও বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার।

আজ দুপুর একটা পর্যন্ত রায় পড়ার পর বিরতি নেন আদালত। দুপুর ২টায় আবার রায় পড়া শুরু হয়।

এখন পর্যন্ত পড়া রায়ের পর্যবেক্ষণে নারকীয় এই হত্যাকান্ডকে নৃশংস ও বর্বরোচিত বলে উল্লেখ করা হয়েছে। আদালত বলেছেন, মুক্তিযুদ্ধের সময় তৎকালীন ইপিআর পাকিস্তান বাহিনীর সঙ্গে যুদ্ধে বীরত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন। সীমান্তরক্ষায় নিয়োজিত এই বাহিনী দেশে-বিদেশে সম্মানের সঙ্গে কাজ করেছে। কিন্তু ২০০৯ সালে পিলখানায় তৎকালীন বিডিআরের কিছু সদস্য আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুল দেখিয়ে হত্যাকান্ড ঘটিয়েছে। এই কলঙ্ক চিহ্ন তাদের অনেকদিন বয়ে বেড়াতে হবে।

এক সঙ্গে ৫৭ জন সেনা কর্মকর্তাকে হত্যার নজির ইতিহাসে নেই। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দৃঢ় মনোবল নিয়ে পরিস্থিতি মোকাবিলায় যৌক্তিক পদক্ষেপ নিয়েছেন।

আসামিসংখ্যার দিক থেকে এই মামলা দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় মামলা। ২০০৯ সালের ২৫ ও ২৬ ফেব্রুয়ারি পিলখানায় ওই হত্যাযজ্ঞে ৫৭ সেনা কর্মকর্তাসহ ৭৪ জন প্রাণ হারান। এই হত্যা মামলায় ২০১৩ সালের ৫ নভেম্বর বিচারিক আদালত রায় দিয়েছিলেন। আজ হাইকোর্টের রায়ের মধ্য দিয়ে মামলাটির বিচারপ্রক্রিয়ার দুটি ধাপ শেষ হতে যাচ্ছে।

এম এম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে